প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

বাগমারায় গোপনে বিএনপি নেতার মনোনয়নপত্র উত্তোলন ও দাখিল

হিমাদ্রি শেখর রায়: বিএনপির দলীয় সিদ্ধান্ত না থাকলেও স্বতন্ত্রপ্রার্থী হিসেবে উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতার জন্য মনোনয়নপত্র দাখিল করেছেন রাজশাহীর বাগমারা উপজেলা বিএনপির সভাপতি ডি এম জিয়াউর রহমান। গোপনীয়তা রক্ষা করে, তিনি জেলা নির্বাচন কর্মকর্তার দপ্তর থেকে মনোনয়নপত্র উত্তোলন ও দাখিল করেন। বিএনপির জেলার নেতারা বলেছেন, জিয়াউর রহমানের সিদ্ধান্ত ব্যক্তিগত, দলীয় নয়। তাঁর বিষয়ে সিদ্ধান্ত কেন্দ্র থেকে নেওয়া হবে।

অপরদিকে আওয়ামী লীগের প্রার্থী অনিল কুমার সরকার দলীয় নেতা-কর্মীদের নিয়ে সদলবলে উৎসবমুখর পরিবেশে মনোনয়নপত্র দাখিল করেছেন। প্রথম ধাপে আগামী ১০ মার্চ বাগমারা উপজেলা পরিষদের নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।

উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তার দপ্তর থেকে জানা যায়, মনোনয়নপত্র দাখিলের শেষ দিন গতকাল সোমবার চেয়ারম্যান পদে তিনজন মনোনয়নপত্র দাখিল করেছেন। তাঁরা হলেন আওয়ামী লীগের জেলা শাখার সহসভাপতি অনিল কুমার সরকার, বিএনপির উপজেলা শাখার সভাপতি ডি এম জিয়াউর রহমান ও যুবলীগের সমর্থক দাবিদার বাবুল হোসেন।

এর মধ্যে আওয়ামী লীগের প্রার্থী অনিল কুমার সরকার সোমবার দুপুরে শতাধিক দলীয় নেতা-কর্মী নিয়ে উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তার দপ্তরে আসেন। এরপর নির্বাচন কর্মকর্তার কক্ষে ঢুকে মনোনয়নপত্র দাখিল করেন। তাঁর অনুসারীরা ফেসবুকের লাইভের মাধ্যমে মনোনয়নপত্র দাখিলের ছবি প্রচার করেন। এর আগে সকালে তিনি উপজেলার চানপাড়ায় অবস্থিত বঙ্গবন্ধু কমপ্লেক্সে দলীয় নেতা-কর্মীদের নিয়ে মতবিনিময় সভা করেন ও সেখানে শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিতে পুষ্প অর্পণ করেন।

অপরদিকে বিএনপির উপজেলা শাখার সভাপতি জিয়াউর রহমান আগের দিন জেলা নির্বাচন কর্মকর্তার দপ্তর থেকে মনোনয়নপত্র তুলে সোমবার তিনি সেটি দাখিল করেন। গোপনীয়তা রক্ষা করে মনোনয়নপত্র দাখিল ও উত্তোলন করা হয়। দলীয়ভাবে কোন সিদ্ধান্ত না থাকায় তাঁর সঙ্গে উপজেলা বা জেলা বিএনপির উল্লেখযোগ্য কোনো নেতা-কর্মী ছিলেন না। বিএনপি উপজেলা নির্বাচনে অংশ নেবে না বলে সংবাদ সম্মেলনে এর আগে ঘোষণা দিয়েছে। এ জন্য দলীয় কোনো প্রার্থীকেও মনোনয়ন দেয়নি দলটি।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত