প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

চাতলাপুর শুল্ক স্টেশনে আমদানি রপ্তানি বন্ধ

স্বপন কুমার দেব, মৌলভীবাজার : পরিবহন শ্রমিকদের কর্মবিরতির ২য় দিনেও পরিবহন ধর্মঘটের কারণে মৌলভীবাজার জেলায় চরম দুর্ভোগে পড়েন শিক্ষার্থী, চাকুরীজীবিসহ সাধারণ মানুষ। এদিকে কুলাউড়া উপজেলার চাতলাপুর স্থল শুল্ক স্টেশনে দ্বিতীয় দিনের মত আমদানি রপ্তানি বন্ধ ছিল।

সোমবার সকালে সংবাদপত্র আনতে শ্রীমঙ্গলে যাওয়া কমলগঞ্জের সিএনজি অটোরিক্সাগুলোকে শ্রীমঙ্গলে প্রবেশকালে আটকিয়ে রাখে পরিবহন শ্রমিকরা। পরে শ্রীমঙ্গলের গণমাধ্যম কর্মীদের সহযোগিতায় কমলগঞ্জের সংবাদপত্রবাহী সিএনজি অটোরিক্সাগুলোকে ছেড়ে দেওয়া হয়। পরিবহন ধর্মঘটের কারণে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে উপস্থিতির হার ছিল কম। ধর্মঘট চলাকালে কমলগঞ্জর উপজেলার বিভিন্ন স্থানে ধর্মঘটের আওতামুক্ত যানবাহনগুলোকেও পরিবহন শ্রমিকরা চলাচলে বাঁধা প্রদান করে।

চাতলাপুর স্থল শুল্ক স্টেশনের আমদানি রপ্তানিকারক সাইফুর রহমান ও তাসদিক হোসেন জানান ভারতীয় অংশে তাদের প্রচুর আপেল পড়ে রয়েছে। পরিবহন ধর্মঘটের কারণে কোন ট্রাকই শুল্ক স্টেশনে আসতে পারছে না। ফলে দুই দিন ধরে এ স্টেশনে আমদানি রপ্তানি কার্যক্রম বন্ধ রয়েছে।

চাতলাপুর স্থল শুল্ক স্টেশনের পরিদর্শক মো. হায়াৎ মাহমুদ বলেন, ধর্মঘটের কারণে ঝুঁকি নিয়ে কোন ট্রাক ও কভার্ড ভ্যান আসতে পারছে না। ফলে গত ২ দিন ধরে আমদানি রপ্তানি বন্ধ রয়েছে। কমলগঞ্জের শমশেরনগর বিএএফ শাহীন কলেজ সূত্রে জানা যায়, পরিবহন ধর্মঘটের কারণে দূরবর্তী কোন স্থানের শিক্ষার্থী কলেজে আসতে পারেনি।

এছাড়াও পর্যাপ্ত রিক্সা চলাচল করতে না পারায় স্থানীয় অনেক শিক্ষার্থীর কলেজে যেতে পারেনি। বিভিন্ন উপজেলার বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ছাত্র উপস্থিতি ছিল খুবই কম। ধর্মঘটের কারণে ১০ টাকার রিক্সা ভাড়া হয়ে যায় ৫০ টাকা।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ