প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

বিজেপির টার্গেট টিপু সুলতান

ডেস্ক রিপোর্ট: দলের আসন সংখ্যা ৭০ বলে শুক্রবার রাজ্য বিধানসভায় ৭০ জন স্বাধীনতা সংগ্রামী ও দেশপ্রেমিকের ছবি উন্মোচন করলেন ভারতের রাজধানী দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়াল। গ্যালারিতে রাখা ছবিগুলোর মধ্যে রয়েছেন আসফাকউল্লা খান, ভগৎ সিংহ, বিরসা মুন্ডা, সুভাষচন্দ্র বসু, টিপু সুলতান।

তবে টিপু সুলতানের ছবি ঘিরে শুরু হয়েছে বিতর্ক। বিধানসভায় টিপুর ছবি রাখার তীব্র বিরোধিতা করেছেন বিজেপি নেতারা। তাদের দাবি, টিপু ছিলেন কট্টর হিন্দুবিরোধী ও গণহত্যাকারী। খবর আনন্দবাজার পত্রিকার।

কংগ্রেসের পাল্টা দাবি, টিপু ব্রিটিশদের বিরুদ্ধে লড়াই করেছিলেন। তিনি ছিলেন স্বাধীনতা সংগ্রামী। আর শাসক আপ-এর বিধায়ক সৌরভ ভরদ্বাজ বলেন, আমি বিজেপি বিধায়কদের কাছে তাদের দল বা আরএসএস’র স্বাধীনতা সংগ্রামীদের নাম চেয়েছিলাম। কিন্তু তারা তা দিতে পারেননি। সৌরভের এ মন্তব্য স্বাভাবিকভাবেই অস্বস্তি বাড়িয়েছে বিজেপির।

টিপু সুলতানকে নিয়ে রাজনীতি অবশ্য নতুন নয়। দুই বছর ধরে সাড়ম্বরে টিপু সুলতানের জন্মবার্ষিকী পালন করছে কর্নাটকের কংগ্রেস সরকার। ২০১৫ সালে তার জন্মবার্ষিকী পালনের বিরোধিতায় বিক্ষোভ থেকে ছড়িয়েছিল সহিংসতা। বিজেপির শক্ত ঘাঁটি বলে পরিচিত কোদাগুতে প্রাণ গিয়েছিল দু’জনের।

এবার সেই টিপু সুলতান বিতর্ক দিল্লিতে। বিজেপি বিধায়ক মনজিন্দ্র সিংহ সিরসা বলেন, আমি আপ-এর কাছে জানতে চেয়েছিলাম, এ রকম বিতর্কিত এক জনের ছবি কেন রাখা হচ্ছে? কেন দিল্লির কোনো মহান ব্যক্তির ছবি রাখা হচ্ছে না? দিল্লির প্রতি যার কোনো অবদান নেই, এমন একজন লোকের ছবি কেন বিধানসভায় রাখা হচ্ছে?

এর উত্তরে আপ-এর কটাক্ষ, তারা তো স্বাধীনতা সংগ্রামী হিসেবে নিজেদের কোনো নেতার নামই দিতে পারলেন না!

টিপু বিরোধিতাকে পাত্তা দিতে নারাজ দিল্লি বিধানসভার স্পিকার রামনিবাস গোয়েলও। তিনি বলেন, কোনো না কোনো ছুতোয় বিজেপি একটা বিতর্ক তৈরি করতে চায়। এখন তারা বিধানসভার গ্যালারিতে টিপু সুলতানের ছবি রাখার বিরোধিতা করছে। আমি তাদের বলতে চাই, ভারতীয় সংবিধানের ১৪৪ পৃষ্ঠায় টিপু সুলতানের ছবি রয়েছে। যারা দেশকে স্বাধীন করতে ব্রিটিশদের বিরুদ্ধে লড়াই করেছিলেন ও সংবিধান রচনা করেছিলেন- হয় তারা, নয় তো ওরা (বিজেপি) দেশদ্রোহী। এসব না করে বিজেপির উচিত উন্নয়নের রাজনীতি করা।

শনিবার ছবিগুলো উন্মোচন করে কেজরিওয়াল বলেন, সর্বত্র সহিংসতার আবহ তৈরি করা হচ্ছে। মানুষ স্বাভাবিক জীবন-যাপন করতে পারছেন না।

বিধানসভায় রাখা ছবিগুলোর কাজ শুরু হয়েছিল ছয় মাস আগে। ছবিগুলি এঁকেছেন শিল্পী গুরু দর্শন সিংহ বিনকাল।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত