প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতার ঘোষণার পর মিশরের সাবেক সেনাপ্রধান আটক

অনলাইন রিপোর্ট  : গত সপ্তাহে নিজের ফেসবুক পেজে আগামী মার্চে অনুষ্ঠিতব্য প্রেসিডেন্ট পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতার ঘোষণার পর মঙ্গলবার আটক হয়েছেন মিশরের সাবেক সেনাপ্রধান সামি আনান। তার প্রচারণা শিবিরের তিন সংগঠকের বরাতে এই খবর দিয়েছে মধ্যপ্রাচ্যের খবর পর্যবেক্ষণকারী ব্রিটিশ ওয়েবসাইট মিডলইস্ট মনিটর। তবে দেশটির স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় বা সামরিক বাহিনীর তরফে এই আটকের কথা এখনও স্বীকার করা হয়নি।

গত সপ্তাহে নিজের অফিসিয়াল ফেসবুক পেজে আনান জানান, ভুল নীতি থেকে মিশরকে রক্ষায় আগামী মার্চের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে অংশ নেবেন তিনি। ২০০৫ থেকে ২০১২ সালের আগস্ট পর্যন্ত সেনাপ্রধানের দায়িত্ব সামলেছেন আনান। তিনি নির্বাচনে সব প্রার্থীর জন্য সমান সুযোগ নিশ্চিত করতে রাষ্ট্রীয় প্রতিষ্ঠানগুলোর প্রতি আহ্বান জানান। মিশরের বর্তমান প্রেসিডেন্ট আবদেল ফাত্তাহ আল সিসি নিজেও একজন সাবেক সেনা কর্মকর্তা। নিজের দ্বিতীয় মেয়াদে নির্বাচন করতে এরইমধ্যে আগ্রহ দেখিয়েছেন তিনি।

গত সপ্তাহে আনানের ঘোষণার পর রাষ্ট্রীয় টেলিভিশনে সামরিক বাহিনীর এক বিবৃতি প্রচারিত হয়। তাতে তার বিরুদ্ধে সামরিক বাহিনীর আইন ভঙ্গের অভিযোগ তোলা হয়। সাবেক কর্মী হিসেবে সেনাবাহিনীর অনুমতি ছাড়াই নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বীতার ঘোষণাকে বেআইনি বলে আখ্যা দেওয়ার পাশাপাশি আনানের বিরুদ্ধে জাল নথি ব্যবহারের অভিযোগ তোলা হয় ওই বিবৃতিতে। বলা হয় আইনের এই মারাত্মক লঙ্ঘন চুপ করে দেখবে না সেনাবাহিনী।

আনানের প্রচারণা শিবিরের তিন কর্মী সংবাদমাধ্যমকে জানান, নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বীতার বিষয়ে তার মনোভাব নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য মঙ্গলবার কায়রোতে সামি আনানকে ডেকে নেয় সেনাবাহিনী। পরে তাকে আর ফেরত পাঠানো হয়নি। তবে তাকে আটকের বিষয়ে মন্তব্য করার জন্য কোনও স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের কাউকে পাওয়া যায়নি। সেনাবাহিনীর তরফ থেকেও কোন কিছু জানানো হয়নি।

সূত্র :  বাংলা ট্রিবিউন

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত