শিরোনাম

প্রকাশিত : ২১ সেপ্টেম্বর, ২০২২, ০১:৪০ রাত
আপডেট : ২১ সেপ্টেম্বর, ২০২২, ০১:৪০ রাত

প্রতিবেদক : নিউজ ডেস্ক

ইউএসবি-সি পোর্টে আপত্তি

চার্জিং পোর্ট অপরিবর্তিত রাখতে অ্যাপলের পাঁচ পূর্বাভাস

ফাইল ছবি

প্রযুক্তি ডেস্ক: সম্প্রতি ইউরোপীয় ইউনিয়ন (ইইউ) অনুমোদিত সব স্মার্টফোনে বাধ্যতামূলক ইউএসবি-সি পোর্টের চার্জার-সংক্রান্ত নীতিমালা কার্যকর হলে ২০২৪ সাল থেকে সব ডিভাইসে একই চার্জার সরবরাহ করতে হবে। তবে এ নিয়মে চ্যালেঞ্জের মুখে রয়েছে আইফোন নির্মাতা প্রতিষ্ঠান অ্যাপল। মূলত ই-বর্জ্যের পরিমাণ কমানোর অন্যতম পদক্ষেপ হিসেবে গৃহীত আইনটি একবার বলবৎ হয়ে গেলে স্মার্টফোন প্রস্তুতকারী সংস্থাগুলো আর তাদের ফোনের সঙ্গে চার্জার দেবে না। ইইউর পরিসংখ্যানে দেখা যায়, নতুন আইনে প্রতি বছর অন্তত ২৪ কোটি ইউরো বা ২৮ কোটি ডলার অর্থ সাশ্রয় হবে।

বিশ্লেষক মিং-চি কুও মে মাসে আশা প্রকাশ করেছিলেন, অ্যাপলের নতুন আইফোন ১৫ মডেলে লাইটনিং পোর্টের বদলে সর্বজনীন ইউএসবি-সি চার্জিং পোর্ট ব্যবহূত হবে। তবে কুওর বিশ্লেষণ সত্ত্বেও সেপ্টেম্বরে অ্যাপলের কার্যক্রম বিশ্লেষণ করে পাঁচটি কারণে আইফোন ১৫, এমনকি আইফোন ১৬ মডেলেও ইউএসবি-সি পোর্ট ব্যবহারের সম্ভাবনা নেই বলে এক নিবন্ধে জানিয়েছে ফোন এরেনা।

ইউএসবি-সি ছাড়াই বাজারে এল এয়ারপড প্রো ২

অতি সম্প্রতি অ্যাপলের এয়ারপড প্রো ২ মডেলে ইউএসবি-সি পোর্ট ব্যবহারের গুজব ছড়ালেও কোম্পানিটি এয়ারপডস প্রো ২ মডেলে ইউএসবি-সি চার্জিং পোর্ট ব্যবহারের গুজব প্রত্যাখ্যান করেছে, যা সবচেয়ে বড় ইঙ্গিত যে তারা এয়ারপড ও আইফোনে ইউএসবি-সি ছাড়া ভবিষ্যতের জন্য পরিকল্পনা করছে। অ্যাপল ২০১৯ সালে প্রথম এয়ারপড প্রো এবং ২০২২ সালে এয়ারপড প্রো ২ বাজারে এনেছে। পরবর্তী এয়ারপড আসবে ২০২৫ সালে, যা ইইউ ঘোষিত সময়ের চেয়েও এক বছর পর।


আইফোন ১৪ থেকে সিম কার্ড ট্রে সরিয়ে দিয়েছে, চার্জিং পোর্ট থেকেও মুক্তি নয় কেন?

আইফোন ৭ মডেল থেকে হেডফোন জ্যাক বাদ দেয়ার পর আইফোন ১৪ মডেলে সিম কার্ড ট্রে বাদ দেয়ার সাহসী সিদ্ধান্ত নিয়ে কুপারটিনো দ্বিতীয় ইঙ্গিত দিয়েছে। আইফোন ১৪ মডেলে সিম ট্রে বাদ দেয়ার সিদ্ধান্তটি মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে আইফোন ব্যবহারকারীদের মধ্যে মিশ্র অনুভূতির সৃষ্টি করেছিল।

অ্যাপল সুপার-ফাস্ট চার্জিং সম্পর্কে চিন্তা করে না

অ্যাপলের নতুন আইফোন ১৪ মডেলে চার্জিং স্পিড বৃদ্ধি নিয়ে গুজব ছড়িয়েছিল। কিন্তু কোম্পানিটি সেই গুজবে জল ঢেলে দেখিয়ে দিয়েছে যে তারা দ্রুতগতির চার্জিং কিংবা ডাটা আদান-প্রদানের ব্যাপারে আগ্রহী নয়।

আইফোন ১৪ অ্যাপলের নিয়ম না মানার আরেকটি উদাহরণ

আইফোন ১৪ মডেলের প্রতিটি ফিচার প্রমাণ করে যে একটি কোম্পানি হিসেবে অ্যাপলের অন্যতম দিক হলো নিজস্ব গতিতেই চলা। এক্ষেত্রে প্রতিষ্ঠানটি কোনো নিয়মের তোয়াক্কা করে না।

লভ্যাংশের বিষয়ে অ্যাপল সচেতন

আইফোন ১৫ যে ইউএসবি-সি বিহীন হবে, তার শেষ গুরুত্বপূর্ণ ইঙ্গিত হলো অ্যাপল একটি সফল ব্যবসাপ্রতিষ্ঠান। অর্থনৈতিক মন্দার মধ্যেও কোম্পানিটি তাদের বিভিন্ন পণ্যের দাম বাড়াতে কুণ্ঠাবোধ করেনি। প্রতিষ্ঠানটি তখনই ইউএসবি-সি পোর্ট ব্যবহার করবে যখন তা লাভজনক হবে।

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়