শিরোনাম
◈ চার বছর পর বিধিনিষেধহীন মুক্ত পরিবেশে পহেলা বৈশাখ ◈ পহেলা বৈশাখে ইলিশের দাম চড়া ◈ নববর্ষ ১৪৩১ বঙ্গাব্দকে বরণে বর্ণাঢ্য র‌্যালি করবে আওয়ামী লীগ ◈ নতুন বছর মুক্তিযুদ্ধবিরোধী অপশক্তির বিরুদ্ধে লড়াইয়ে প্রেরণা জোগাবে: প্রধানমন্ত্রী ◈ নতুন বছর মানে ব্যর্থতা পেছনে ফেলে সমৃদ্ধ আগামী নির্মাণ করা: মির্জা ফখরুল ◈ ইসরায়েলের তেল আবিব থেকে সরাসরি ঢাকায় ফ্লাইট অবতরণ ◈ বিএনপি গুম-নির্যাতনের কাল্পনিক তথ্য দিয়ে জনগণকে বিভ্রান্ত করছে: ওবায়দুল কাদের ◈ সরকারি খরচে ৩০৪৮টি মামলায় আইনি সহায়তা প্রদান ◈ রেল ভ্রমণে মানুষের আস্থা তৈরি হয়েছে: রেল মন্ত্রী  ◈ অস্ট্রেলিয়ায় শপিংমলে ছুরি হামলায় নিহত ৫, আততায়ী মারা গেছে পুলিশের গুলিতে

প্রকাশিত : ২২ ফেব্রুয়ারি, ২০২৪, ০৪:০২ দুপুর
আপডেট : ২২ ফেব্রুয়ারি, ২০২৪, ০৪:০২ দুপুর

প্রতিবেদক : নিউজ ডেস্ক

রঞ্জি ট্রফি জিতলেই প্রত্যেক খেলোয়াড়কে বিএম ডব্লিউ গাড়ি দিবে হায়দরাবাদ

স্পোর্টস ডেস্ক: [২] আগামী তিন বছরের মধ্যে দল রঞ্জি ট্রফি জিতলে খেলোয়াড়দের মালামাল করে দেবেন। তার দলের খেলোয়াড়দের বড় পুরস্কারের টোপ দিলেন হায়দরাবাদের ক্রিকেট সভাপতি জগনমোহন রাও অরিষ্ণাপালি। তিলক ভার্মার নেতৃত্বাধীন হায়দরাবাদ দল গত মঙ্গলবার প্লেট গ্রুপের ফাইনালে মেঘালয়কে ৫ উইকেটে হারিয়ে এলিট গ্রুপে উঠে এসেছে। আগামী বছর থেকে হায়দরাবাদ এলিট গ্রুপে খেলবে। আর তাতেই ‘দিল খুশ’ হায়দরাবাদ ক্রিকেটের সভাপতির। তিনি জানিয়ে দেন, আগামী তিন বছরের মধ্যে রঞ্জি জিতলেই দলের প্রত্যেক খেলোয়াড়কে একটি বিএমডব্লিউ গাড়ি আর দলকে নগদ এক কোটি টাকা দেবেন। - ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস

[৩] শুধু মৌখিক ঘোষণা করেই ক্ষান্ত হননি জগনমোহন রাও। সোশ্যাল মিডিয়া এক্স-এও তিনি সেই বার্তা দিয়েছেন। সেখানে রাও বলেছেন, ‘রঞ্জির এলিট ট্রফি জিতলে আগামী তিন বছরের মধ্যে প্রত্যেক খেলোয়াড়কে বিএমডব্লিউ গাড়ি আর দলকে নগদ এক কোটি টাকা দেওয়া হবে। 

[৪] হায়দরাবাদ দলের খেলোয়াড়দের মোটিভেশন বাড়াতেই যে তার এই ঘোষণা, সেকথাও অবশ্য স্পষ্ট করে দিয়েছেন রাও। তিনি বলেছেন, ক্রিকেটারদের অনুপ্রাণিত করতেই একথা ঘোষণা করেছি। আগামী বছরই লক্ষ্য পূরণ করতে চাই। তবে, বাস্তবের দিক থেকে বিচার করলে সেটা সম্ভব না। তাই খেলোয়াড়দের আগামী তিন মওসুম পর্যন্ত সুযোগ দিয়েছি। 

[৫] রাও একথা বললেও হায়দরাবাদ যে একবারও রঞ্জি ট্রফি জেতেনি, তা কিন্তু নয়। এর আগে তারা দু’বার রঞ্জি জিতেছে। সেটা ১৯৩৭-৩৮ এবং ১৯৮৬-৮৭ মওশুম। তবে, গত মওশুমে তারা এলিট গ্রুপ বি-তে সবার নিচে থেকে মওশুম শেষ করেছিল। নেমে গিয়েছিল প্লেট গ্রুপে।

[৬] এলিটে ওঠার পরে সোশ্যাল মিডিয়ায় রাও লিখেছেন, উৎপল স্টেডিয়ামে পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে যোগ দিয়েছিলাম। রঞ্জি প্লেট ফাইনালে হায়দরাবাদ দলকে তাদের অসাধারণ জয়ের জন্য আমার আন্তরিক অভিনন্দন। আমাদের সবার কাছে এটি অত্যন্ত একটি গর্বের মুহূর্ত। প্লেট ফাইনাল জয়ী দলের সদস্যদেরও অবশ্য খালিহাতে থাকতে হচ্ছে না। তাদের জন্যও রাওয়ের সংস্থা আর্থিক পুরস্কার ঘোষণা করেছে। 

[৭] জয়ী দলকে মোট ১০ লাখ টাকা দেবে হায়দরাবাদ ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশন (এইচসিএ)। আর, যারা ভালো খেলেছে, তাদের দেওয়া হবে নগদ ৫০ হাজার টাকা করে।

এলআরবি/এসবি২

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়