শিরোনাম
◈ ১৫৬ উপজেলায় ভোট আজ ◈ সংসদ সদস্য আজিমের অবস্থান জেনেছে ভারত পুলিশ ◈ বিধ্বস্ত হওয়ার আগে হেলিকপ্টারে কী করছিলেন ইরানের প্রেসিডেন্ট প্রকাশ্যে ‘শেষ’ ভিডিও ◈ সৈয়দপুর বিমানবন্দরের রানওয়েতে ফাটল, প্লেন চলাচলে বিঘ্ন ◈ ইসরায়েলি প্রধানমন্ত্রী ও হামাস প্রধানের বিরুদ্ধে আইসিসিতে গ্রেপ্তারি পরোয়ানার আবেদন ◈ নিরপেক্ষতা ক্ষুণ্ন হওয়ায় দুই ওসিকে প্রত্যাহার করলো ইসি  ◈ ইরানের প্রেসিডেন্টের মৃত্যুতে মির্জা ফখরুলের শোক ◈ ইরানের প্রেসিডেন্টের মৃত্যুতে রাষ্ট্রপতি প্রধানমন্ত্রীর শোক ◈ বাণিজ্য প্রতিমন্ত্রীকে কঠোরভাবে বাজার তদারকির নির্দেশ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী ◈ প্রতি বছর এপ্রিলের গরম ৪০ ডিগ্রি ছাড়াবে, বলছে রিপোর্ট

প্রকাশিত : ১৬ মে, ২০২৪, ০৯:৩০ রাত
আপডেট : ১৬ মে, ২০২৪, ০৯:৩০ রাত

প্রতিবেদক : নিউজ ডেস্ক

বিশ্বকাপে নিউইয়র্কে বাংলাদেশ ও ভারতের অনুশীলন ম্যাচের স্টেডিয়াম প্রস্তুত

স্পোর্টস ডেস্ক: আর মাত্র ১৫ দিন পরই মাঠে গড়াবে যুক্তরাষ্ট্র ও ওয়েস্ট ইন্ডিজে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের নবম আসর। এই আসরের জন্য নিউইয়র্কের এইসেন পাওয়ার পার্কের নাসাউ কাউন্টি স্টেডিয়াম প্রস্তুত করা হয়েছে। ৩৪ হাজার ধারণক্ষমতার এই স্টেডিয়ামটি বিশ্বের প্রথম অস্থায়ী ক্রিকেট স্টেডিয়াম।

আসন্ন বিশ্বকাপে যুক্তরাষ্ট্রে অনুষ্ঠিত হবে ১৬ ম্যাচ। তার মধ্যে এই ভেন্যুতে ৮ ম্যাচের খেলা হবে। টেক্সাস এবং ফ্লোরিডায় রাখা হয়েছে বাকি চারটি করে ম্যাচ। নাসাউ কাউন্টির স্টেডিয়ামটির বেশিরভাগ অংশই তৈরি করা হয়েছে অস্থায়ীভাবে। যেগুলো চাইলে যেকোনো সময় এক জায়গা থেকে অন্য জায়গায় নিয়ে যাওয়া যাবে। অ্যাডিলেড থেকে ড্রপ ইন পিচ এনে বসানো হয়েছে এই স্টেডিয়ামে।

বিশ্বকাপে নিউইয়র্কে প্রথম ম্যাচ ৩ জুন। খেলবে দক্ষিণ আফ্রিকা এবং শ্রীলঙ্কা। তবে এর আগে একটি প্রস্তুতি ম্যাচ আয়োজন করে স্টেডিয়ামের পরীক্ষানিরীক্ষা চালাবে ক্রিকেটের নিয়ন্ত্রণকারী সংস্থা (আইসিসি)। ক্রিকেটের জনপ্রিয় ওয়েবসাইট ইএসপিএন ক্রিকইনফো জানিয়েছে, ১ জুন প্রস্তুতি ম্যাচে এই স্টেডিয়ামে মুখোমুখি হবে বাংলাদেশ ও ভারত। মূল পর্বে ৯ জুন ভারত-পাকিস্তানের গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচ আয়োজিত হবে নিউইয়র্কের এই স্টেডিয়ামে। ১০ জুন এখানেই দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে মাঠে নামবে বাংলাদেশ। ৯ জুন বিশ্বকাপের গ্রুপ পর্বের সবচেয়ে হাইভোল্টেজ ভারত ও পাকিস্তানের ম্যাচ আয়োজিত হবে এখানে। -বিডিক্রিকটাইম

মজার বিষয় হলো , নিউইয়র্কের এই স্টেডিয়াম পাঁচ মাস আগেও ছিল পার্কের সাধারণ একটি মাঠ। খুবই অল্প সময়ের মধ্যে এখানে স্টেডিয়াম তৈরি করে বিশ্বকাপের ম্যাচ আয়োজনের উপযোগী করে তোলা হয়েছে। প্রায় ২৩ হাজার কিলোমিটার দূরের অ্যাডিলেড থেকে আনা হয়েছে ড্রপ ইন পিচ। শুরুতে জাহাজে করে ড্রপ ইন পিচ পাঠানো হয়েছে অ্যাডিলেড থেকে ফ্লোরিডায়। পরে সেখানে উষ্ণ তাপমাত্রায় সংরক্ষণ করা হয় পিচগুলোকে।

এরপর বিশ্বকাপের আগে সড়কপথে ফ্লোরিডা থেকে নিউইয়র্কে নিয়ে মূল মাঠে এবং অনুশীলনের জায়গায় বসানো হয়েছে সর্বমোট ১০টি পিচ। ৪টি পিচ ম্যাচের জন্য এবং ৬টি পিচ বসানো হয়েছে অনুশীলনের জন্য।

এসবি২

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়