শিরোনাম
◈ শেষ বলের রোমাঞ্চে কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্সের কাছে খুলনার হার ◈ ভারতে একদিনে ৩ যুদ্ধবিমান বিধ্বস্ত, পাইলট নিহত ◈ ৮৫ বছর পর বন্ধ হচ্ছে বিবিসি আরবি রেডিও সম্প্রচার ◈ ভারত গরু না দিলেই বরং আমরা কৃতজ্ঞ থাকব: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ◈ বাংলাদেশকে নিয়ে প্রথম লক্ষ্য সেট করেছেন শেখ হাসিনা: আইনমন্ত্রী  ◈ বাংলাদেশিকে মারধর, কুয়েত স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তা গ্রেপ্তার ◈ অবিলম্বে পদত্যাগ করুন, পালাবার পথ পাবেন না: মির্জা ফখরুল ◈ শান্তিরক্ষা মিশনে যাচ্ছেন ৪৬০ পুলিশ কর্মকর্তা ◈ নিউ ইয়র্কে ২৮ মিনিট ধরে কৃষ্ণাঙ্গকে পিটিয়ে হত্যা, ভিডিও ভাইরাল ◈ বিএনপির সঙ্গে আমরা খেলে জিততে চাই: তথ্যমন্ত্রী

প্রকাশিত : ২৬ জানুয়ারী, ২০২৩, ০২:৫২ রাত
আপডেট : ২৬ জানুয়ারী, ২০২৩, ১১:৩৭ দুপুর

প্রতিবেদক : নিউজ ডেস্ক

হাঁপানি রোগীরা সুস্থ থাকতে যা করবেন

ডেস্ক রিপোর্ট: শীতকালে ঠান্ডার কারণে নানারকম রোগ শরীরে জেঁকে বসে। তাদের মধ্যে হাঁপানি অন্যতম। অন্য যেকোনো ঋতুর থেকে শীতে হাঁপানির সমস্যা বেশি বেড়ে যায়। তাই এ সময়টাতে হাঁপানি রোগীদের বেশি সতর্ক থাকা প্রয়োজন। এ ঋতু পরিবর্তনের সময়টাতেই বিশেষজ্ঞরা হাঁপানি রোগীদের বেশি সাবধান থাকতে বলেন।

হাঁপানি কী-

হাঁপানি রোগীদের শ্বাসনালি সঙ্কুচিত হয়ে শ্বাসকষ্টের সমস্যা দেখা দেয়। সঙ্গে কাশিও হতে পারে। অনেকের ক্ষেত্রে বুকে চাপ, ব্যথাও হতে পারে। কিছু কিছু রোগীর ক্ষেত্রে আবার শ্বাস নেওয়ার সময় বিশেষ এক ধরনের আওয়াজও শোনা যায়। তবে এর মূল উপসর্গ শ্বাসকষ্ট, যার কারণে ঘুমাতেও অসুবিধা হতে পারে।

হাঁপানি ধরন-

এক্সারসাইজ ইনডিউজড : অনেক ক্ষেত্রে ব্যায়াম বা ওয়ার্কআউট করার সময় হাঁপানির সমস্যা দেখা যায়।

অকুপেশনাল : কর্মক্ষেত্রে নির্দিষ্ট কোনো রাসায়নিকের সংস্পর্শে এলে সেখান থেকেও হাঁপানি হতে পারে। যেমন: কোনো গ্যাস, ধোঁয়া বা ধুলা।

অ্যালার্জি ইনডিউজড : পোলেন বা পরাগ, পোষা প্রাণীর লালারস, তেলাপোকার বর্জ্যে কিংবা বিশেষ জিনিস থেকে অ্যালার্জিও হাঁপানির কারণ হিসেবে ধরা হয়।

যাদের সতর্ক থাকা দরকার-

গবেষণা থেকে জানা যায়, পরিবারের সদস্যদের যেমন; মা-বাবা, ভাই-বোনের হাঁপানি থাকলে আগে থেকেই সতর্ক হতে হবে। এ ছাড়াও এমন কোনো ঘটনা যা ফুসফুসের বৃদ্ধিতে বাধার সৃষ্টি করতে পারে, যার ফলে হাঁপানি দেখা দিতে পারে। এর বাহিরে অন্য কোনো অ্যালার্জি থাকলেও সচেতন হতে হবে। তবে হাঁপানির জন্য লাইফস্টাইলের দিকেও নজর দিতে হবে। প্রতিদিনের জীবনযাপনে খাওয়া থেকে ঘুমানো পর্যন্ত হাঁপানির সমস্যা হতে পারে সেসব বিষয় থেকে দূরে থাকতে হবে।

যা করতে হবে-

চিকিৎসকদের মতামত অনুযায়ী, হাঁপানি কখনোই পুরোপুরি ভালো হয় না। তবে কিছু জিনিস মেনে চললে অনেকাংশে সুস্থ জীবন কাটানো যায়। অর্থাৎ লাইফস্টাইলের ওপর অনেকটাই ভালো থাকা নির্ভর করে। বিশেষত ঋতু পরিবর্তনের সময় কিছু নিয়ম মানতেই হবে।

নিয়মগুলো হলো-

ঠান্ডা পানিতে বেশিক্ষণ কাজ করা থেকে বিরত থাকতে হবে।

অন্যদের ঠান্ডার অনুভূতি না হলেও হাঁপানি রোগীদের আগাম সাবধানতা নিতে হবে।

চুল বেশিক্ষণ ভেজা রাখা যাবে না।

ঠান্ডা লাগানো যাবে না।

সকালে ও সন্ধ্যায় হাঁটতে বের হলে গলা ও নাক-মুখ ভালো করে ঢেকে বের হতে হবে।

শরীরে পানি শুকানো যাবে না।

ইনহেলার বা ওষুধ চললে ডাক্তারের সঙ্গে কথা না বলে তা বন্ধ করা যাবে না।

ইনফ্লুয়েঞ্জা ও নিউমোনিয়া টিকা আবশ্যক।

সামান্য হাঁচি, নাক বন্ধ ও বুকে চাপের মতো সমস্য়া থাকলেই ডাক্তারের কাছে যেতে হবে।

বেশি ঠান্ডা খাবার খাওয়া যাবে না। আরটিভি

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়