শিরোনাম

প্রকাশিত : ২৮ ফেব্রুয়ারি, ২০২৪, ০৬:০৪ বিকাল
আপডেট : ২৮ ফেব্রুয়ারি, ২০২৪, ০৬:০৪ বিকাল

প্রতিবেদক : নিউজ ডেস্ক

হাসপাতালেও বোমা ফেলছে মিয়ানমারের জান্তা সরকার, ৮০ সেনা সহ ১২০ হত

রাশিদুল ইসলাম: [২] মিয়ানমারের পশ্চিমাঞ্চলীয় রাজ্য রাখাইনের উপকূলীয় রামরি শহরে জান্তা সেনাদের সঙ্গে আরাকান আর্মিদের সঙ্গে ৩ দিনের সংঘর্ষে অন্তত ৮০ সেনা নিহত হয়েছে। ইরাবতি

[৩]  আরাকান আর্মি জানায়, জান্তা বাহিনীর ব্যাপক বিমান হামলা সত্ত্বেও শনিবার সংঘর্ষের সময় অন্তত ৬০ সেনাকে হত্যা করেছে তারা। সংঘর্ষের পর ওই এলাকা থেকে বিপুল পরিমাণ অস্ত্র ও গোলাবারুদসহ সেনাদের মৃতদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। সোমবার উপকূলীয় শহরটি থেকে পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টার সময় আরও ২০ জান্তা সৈন্যকে হত্যা করেছে তারা। 

[৪] এদিকে রাখাইনের মিনবিয়া শহরের কাছের কান নি গ্রামে জান্তা বাহিনীর নবম সেন্ট্রাল মিলিটারি ট্রেনিং স্কুলের ওপর সোমবার থেকে হামলা শুরু করেছে আরাকান আর্মি। সামরিক বাহিনী সেখানকার ঘাঁটি রক্ষায় বিমান থেকে আরাকান আর্মির যোদ্ধাদের অবস্থান লক্ষ্য করে ব্যাপক হামলা চালায়। 

[৫] আরাকান আর্মি এক বিবৃতিতে জানায়, মিনবিয়া শহরের মিন এইচপু সিভিল হাসপাতালে জান্তা সরকারের বিমান হামলায় এসব বেসামরিক ব্যক্তি, যুদ্ধবন্দী এবং কিছু চিকিৎসা কর্মী হতাহতের ঘটনা ঘটে।

[৬] হাসপাতালটিতে যুদ্ধবন্দী (জান্তা সৈন্য) এবং তাদের পরিবারের সদস্যদেরও চিকিৎসা দেওয়া হয়। এমনকি হাসপাতাল ছাড়াও স্কুল এবং অন্যান্য কমিউনিটি বিল্ডিং লক্ষ্য করেও বিমান থেকে বোমা ফেলা হচ্ছে। জান্তার এধরনের আচরণ তাদের হতাশা ও হতাশাকে যুদ্ধাপরাধী হিসেবে চিহ্নিত করে।

[৭] পা-ও ন্যাশনাল লিবারেশন আর্মি (পিএনএলএ) এর সাথে সংঘর্ষের মধ্যে মিয়ানমার জান্তা আর্টিলারি এবং বিমান হামলায় দক্ষিণের শান রাজ্যের ৪০ জন বেসামরিক লোক নিহত হয়েছে। পা-ও ইয়ুথ অর্গানাইজেশন (পিওয়াইও) বলছে গত এক মাসে হিসেং, লোইলেন এবং হপং শহরের বেসামরিক নাগরিকদের হত্যা করা হয়েছে।

[৮] গত এক মাসে জান্তা ২৯৩টি বিমান হামলা এবং ৮০৮টি গোলা হামলা চালিয়েছে, ৪০ জন বেসামরিক লোক নিহত হওয়া ছাড়াও ৫১ জন আহত হয়েছে এবং ৯৭টি ভবন ধ্বংস করেছে। একই সঙ্গে এসব হামলায় বারোটি ধর্মীয় ভবন ধ্বংস এবং ৯৪,৩০০ বেসামরিক লোক বাস্তুচ্যুত হয়েছে বলে পিওয়াইও জানিয়েছে।

[৯] বাস্তুচ্যুত বেসামরিক লোকেরা তাউংগি, হোপং এবং নিয়াং শোয়ে টাউনশিপ এবং মান্দালয় অঞ্চলে চলে গেছে। জান্তা গত ৫ ফেব্রুয়ারি পা-ও অঞ্চলে ১০০টিরও বেশি শেল এবং ২৪ ফেব্রুয়ারি ১৩০টি শেল নিক্ষেপ করে। 

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়