শিরোনাম

প্রকাশিত : ২৯ নভেম্বর, ২০২৩, ১২:২৬ দুপুর
আপডেট : ২৯ নভেম্বর, ২০২৩, ১২:২৮ দুপুর

প্রতিবেদক : নিউজ ডেস্ক

২ বছর বয়সী শিশুর বিস্ময়কর মেধা 

সাজ্জাদুল ইসলাম: [২] শিশুটির বয়স যখন দেড় বছর, হাঁটি হাঁটি পা করে ঘুরে বেড়ায়, তখনই সুযোগ পেলেই মুঠোফোনে কার্টুন দেখতে ব্যস্ত হয়ে পড়ত। একই বয়সী শিশুদের যখন ইংরেজি বর্ণমালা বলতে পারা ও দেখে দ্রুত পড়াটা অবাক করার বিষয় বটে। তবে সত্যিই এমনটি ঘটেছে এ অসাধারণ মেধাবি শিশুটির ক্ষেত্রে। সূত্র: এনডিটিভি

[৩] যুক্তরাষ্ট্রের কেন্টাকি অঙ্গরাজ্যের শিশুটির নাম ইসলা ম্যাকনাভ, বয়স দুই বছর। এ বয়সে সে হাই-আইকিউ সোসাইটি মেনসাতে সর্বকনিষ্ঠ সদস্য হিসেবে নিজের নাম লিখিয়েছে। 

[৪] গিনেস ওয়ার্ল্ড রেকর্ডস জানায়, ২ বছর বয়সী শিশুদের বুদ্ধিমত্তা মাপার স্ট্যানফোর্ড-বিনেত ইন্টেলিজেন্স স্কেলে ইসলা ম্যাকনাভ ১০০ পয়েন্টের মধ্যে ৯৯ পেয়েছে। মেনসা হলো বিশ্বের সবচেয়ে বড় উঁচুমাত্রার বুদ্যঙ্ক (বুদ্ধি পরিমাপক) সোসাইটি। এই সোসাইটির সদস্য হতে হলে বুদ্ধিমত্তা পরিমাপক স্কেলে শতকরা ৯৮ স্কোর থাকতে হবে।

[৫] ইসলা ম্যাকনাভের বাবা জেসন গিনেস ওয়ার্ল্ড রেকর্ডসকে বলেন, ৭ মাস বয়সে সে বই দেখে ছবি শনাক্ত করতে পারত। ১ বছর বয়সে সে রঙের নাম, সংখ্যা ও বর্ণমালা শিখতে শুরু করে।

[৬] ইসলার দ্বিতীয় জন্মদিনে তার খালা তাকে লেখা মুছে ফেলা যায়, এমন একটি ট্যাবলেট উপহার দেন। জেসন একদিন তাতে ইংরেজিতে ‘রেড’ শব্দটি লেখেন। সবাইকে অবাক করে দিয়ে ইসলা সেই শব্দটি বানান করে পড়তে পেরেছিল। এরপর বিভিন্ন রঙের নাম লেখা হয়। ইসলা জোরে জোরে কোনো ধরনের দ্বিধা ছাড়াই সেগুলো পড়েছিল।

[৭] সন্তানের এই প্রতিভার চর্চা ধরে রাখতে ইসলাকে তার বাবামা মেনসাতে অন্তর্ভুক্ত করেছেন। জেসন বলেন, আন্তর্জাতিক অলাভজনক সংস্থা মেনসার সবচেয়ে বড় ভালো দিক হচ্ছে, এটি প্রতিভাবানদের একটি সংগঠন। এখন ইসলা প্রিস্কুলে পড়ছে। সম্পাদনা: রাশিদ 

এসআই/আর/এইচএ

 

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়