শিরোনাম
◈ দেশজুড়ে সহিংসতার ঘটনায় অভিযান, গ্রেপ্তার ২৭৪৭ ◈ আজ বিদেশি কূটনীতিকরা ধ্বংসযজ্ঞ পরিদর্শনে যাবেন ◈ চলমান সংকটে রাজশাহীতে কৃষিখাতে দিনে ২০ কোটি টাকার ক্ষতি ◈ কারফিউ শিথিল সময়ে চলবে দূরপাল্লার বাস ◈ প্রাণহানি ও ধ্বংসাত্মক ঘটনার সুষ্ঠু তদন্ত দাবি করেছে সম্পাদক পরিষদ ও নোয়াব ◈ ড. ইউনূস রাষ্ট্রদ্রোহী কাজ করেছেন: পররাষ্ট্রমন্ত্রী ◈ বাংলাদেশের সহিংসতা বন্ধে বিশ্ব নেতৃবৃন্দের প্রতি জরুরি আহ্বান জানিয়েছেন ড. ইউনূস ◈ নরসিংদী কারাগার থেকে পালানো ১৩৬ কয়েদির আত্মসমর্পণ ◈ কতজন শিক্ষার্থী মারা গেছেন, জানতে সময় লাগবে: শিক্ষামন্ত্রী ◈ বাংলাদেশি শ্রমিকদের জন্য ভিসা বন্ধ করল আরব আমিরাত

প্রকাশিত : ০৬ জুন, ২০২৩, ০২:০২ দুপুর
আপডেট : ০৬ জুন, ২০২৩, ০৪:৩৯ দুপুর

প্রতিবেদক : নিউজ ডেস্ক

ভারত-যুক্তরাষ্ট্র প্রতিরক্ষা শিল্প সহযোগিতা চুক্তি 

সাজ্জাদুল ইসলাম: ভারত ও মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র আগামী কয়েক বছরের জন্য প্রতিরক্ষা শিল্প সহযোগিতার জন্য একটি রোডম্যাপে পৌঁছেছে। ভারত সরকার বলছে, এই পদক্ষেপ নয়াদিল্লির প্রতিরক্ষা উৎপাদন উচ্চাকাঙ্ক্ষাকে শক্তিশালী করবে। সূত্র : আল জাজিরা, ফার্স্টপোস্ট।

ওয়াশিংটন বিশ্বের বৃহত্তম অস্ত্র আমদানিকারকের সঙ্গে সম্পর্ক গভীর করার জন্য কাজ করছে এবং ভারতও ওয়াশিংটনের সঙ্গে সামরিক ও প্রযুক্তিগত সম্পর্ক বাড়াতে আগ্রহী। উভয় দেশ এই অঞ্চলে চীনা আধিপত্যের বিপক্ষে অবস্থান নিয়েছে।

যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিরক্ষামন্ত্রী লয়েড অস্টিন দুই সফরে দিনের দিল্লি পৌছেন সোমবার। এই সফরে তিনি অজিত ডোভাল ছাড়াও ভারতের প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিংয়ের সঙ্গেও সাক্ষাৎ করেন। 

রাজনাথের সঙ্গে বৈঠকের পর যৌথ সাংবাদিক সম্মেলনে অস্টিন দাবি করেন যে, চীন বিভিন্ন দেশকে ধমক দিয়ে তাদের সার্বভৌমত্বের জন্য হুমকি সৃষ্টি করে  সারা বিশ্বে জোর করে সীমান্ত পুণনির্মাণের করার চেষ্টা করছে। তিনি বলেন, বিশ্ব দ্রুত পরিবর্তন ঘটছে। আমরা চীনের হুমকিধমকি দেখতে পাচ্ছি। ইউক্রেনের বিরুদ্ধে রাশিয়ার আগ্রাসন চলছে। মস্কো জোরপূর্বক সীমান্ত পুণনির্মাণ করার চেষ্টা করছে  এবং জাতীয় স্বার্বভৌমত্বের প্রতি হুমকি সৃষ্টি করেছে। একই সঙ্গে সন্ত্রাসবাদ ও জলবায়ু পরিবর্তনের মতো অন্তবর্র্তীকালীন চ্যালেঞ্জ যোগ হয়েছে। অস্টিন ও রাজনাথ প্রতিরক্ষা শিল্প সহযোগিতার কাঠামোর সম্পর্কিত  চুক্তি স্বাক্ষর করেন। 
 
ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির ওয়াশিংটন সফরের দুই সপ্তাহ আগেই এই চুক্তি সম্পন্ন হলো। আগামী ২২ জুন মোদি ওয়াশিংটনে যাবেন। সেখানে তিনি জো বাইডেনের সঙ্গে আলোচনায় করবেন।  

ভারতের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় এক বিবৃতিতে বলেছে, রাজনাথ সিং ও অস্টিনের মধ্যে আলোচনায় শিল্প সহযোগিতা শক্তিশালীকরণের উপায়ে বিশেষভাবে নজর দেওয়া হয়েছে।  

বিবৃতিতে বলা হয়, আগামী কয়েক বছর দুই দেশ পারস্পরিক সামরিক শিল্প সহযোগিতার ক্ষেত্র কীভাবে বিস্তৃত করবে, সেই সংক্রান্ত নীতিনির্ধারণী দিকনির্দেশিকা প্রস্তুত করা হয়েছে। সে অনুযায়ী দুই দেশ নতুন প্রযুক্তিনির্ভর প্রতিরক্ষা উৎপাদনের ক্ষেত্রগুলো চিহ্নিত করবে। উৎপাদনের ব্যাপ্তি ঘটাতে প্রযুক্তি হস্তান্তরেও জোর দেওয়া হবে। 

ভারত সামরিক সরবরাহের প্রায় অর্ধেকের জন্য রাশিয়ার ওপর নির্ভর করে। দেশটি এর সামরিক সংস্থান বাড়াতে চাইছে। সেক্ষেত্রে ভারত যুক্তরাষ্ট্র, ফ্রান্স ও ইসরায়েলের মতো দেশের দ্বারস্থ হচ্ছে। সম্পাদনা: রাশিদ 

এসআই/এসএ

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়