শিরোনাম
◈ ব্রিকসকে দেওয়ার মতো অনেক কিছু রয়েছে বাংলাদেশের: ডা. দীপু মনি ◈ পল্টনে ফাইন্যান্স টাওয়ারের আগুন নিয়ন্ত্রণে ◈ ঢাকায় ৮ মাত্রার ভূমিকম্পের শঙ্কা রয়েছে: ত্রাণ প্রতিমন্ত্রী ◈ এমপি আনার হত্যা তদন্তে কোনো চাপ নেই: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ◈ তারেক রহমানসহ পলাতক আসামিদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে: সংসদে প্রধানমন্ত্রী ◈ সাধারণ নাগরিকের মতো করেই ড. ইউনূসের বিচার হচ্ছে: আইনমন্ত্রী ◈ শিগগিরই আমাদের আন্দোলন আরও বেগবান হবে: মির্জা ফখরুল ◈ ড. ইউনূসের কথা অসত্য, জনগণের জন্য অপমানজনক: আইনমন্ত্রী ◈ সরকারের ব্যাংকঋণে বেসরকারিখাতে বিনিয়োগ ব্যাহত হবে: সিপিডি ◈ বাবার হত্যার সঠিক বিচার চেয়েছেন নিহত আজিম আনারের কন্যা 

প্রকাশিত : ১৬ এপ্রিল, ২০২৪, ০৩:০১ দুপুর
আপডেট : ১৬ এপ্রিল, ২০২৪, ০৬:১৯ বিকাল

প্রতিবেদক : নিউজ ডেস্ক

ডায়রিয়া আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা বাড়ছে ,অধিকাংশই শিশু : আইসিডিডিআর,বি

শাহীন খন্দকার: [২] রাজধানীসহ সারাদেশই এখন প্রচন্ড তাপদাহে পুড়ছে। প্রখর রোদের পাশাপাশি ভ্যাপসা গরমে স্বস্তি মিলেছে না কোথাও। ছোট-বড় সবাই গরমে কাবু হচ্ছে। অনেক সময় আমাদের নিজেদের অজান্তেই দূষিত পানি ঢুকে যাচ্ছে পেটে, আর দেখা দিচ্ছে ডায়রিয়া।

[৩] হাসপাতালগুলোতে খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, সাধারণ সময়ের তুলনায় এখন ডায়রিয়া আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা বাড়ছে। হাসপাতালে আসা রোগীদের অধিকাংশই শিশু। এমনকি ঈদের ছুটি শেষে রাজধানীতে জনসমাগম বাড়লে হাসপাতালেও রোগী সংখ্যা আরও বাড়বে বলে আশঙ্কা করছেন সংশ্লিষ্টরা।

[৪] এদিকে আন্তর্জাতিক উদারাময় রোগ গবেষণা কেন্দ্রের (আইসিডিডিআর,বি) প্রধান ডা. বাহারুল আলম বলেছেন, রাজধানীতে  ডায়রিয়া পরিস্থিতি  স্বাভাবিক রয়েছে। তিনি বলেন গত মার্চ থেকে এপ্রিল ১৫ তারিখ পর্যন্ত রাজধানীসহ আশ-পাশের জেলা উপজেলাসহ দেশের বিভাগীয় ও জেলা শহর থেকে প্রতিদিন রোগী আসছে। প্রতিদিন গড়ে প্রায় ৪০০-৫০০ রোগী  চিকিৎসাসেবার জন্য আসছে বলে জানান তিনি।

[৩] মার্চ মাসে সর্বমোট ডায়রিয়ায় আক্রান্ত রোগী চিকিৎসাসেবা নিয়েছে ১৬ হাজার ৯৪৮ জন রোগী  আইসিডিডিআর,বিতে। এছাড়া এপিলের ১৫ তারিখ পর্যন্ত রোগী এসেছে প্রায় ৮ হাজার ৮৬৫ জন। ঢাকা ও আশেপাশের এলাকার ডায়রিয়া পরিস্থিতি আগামী ৩ সপ্তাহ অপরিবর্তিত থাকতে পারে বলে আন্তর্জাতিক উদরাময় রোগ গবেষণা কেন্দ্রের (আইসিডিডিআরবি)প্রধান ডা. বাহারুল আলম জানিয়েছেন। 

[৪]আজ মঙ্গলবার(১৬ এপ্রিল) তিনি বলেন, করোনা মহামারির আগের বছরগুলোর প্রবণতা বিবেচনা করে আমরা বলতে পারি যে ডায়রিয়া পরিস্থিতি আগামী ৩-৪ সপ্তাহ স্বাভাবিক। বর্তমানে তিনি প্রতিষ্ঠানটির ডায়রিয়া ইউনিটের তত্ত্বাবধান করছেন বলে জানিয়েছেন।

[৫] ডা. বাহারুল আলম বলেন, চলতি বছর মার্চের দ্বিতীয় সপ্তাহে ডায়রিয়ার প্রাদুর্ভাব শুরু হয় এবং এখন এটি চতুর্থ সপ্তাহে প্রবেশ করেছে। এ অবস্থায় প্রতিদিন রোগীর সংখ্যা উল্লেখযোগ্যভাবে বাড়ছে না বা কমছে না। আইসিডিডিআরবি,র তথ্য অনুযায়ী, গত ১৬ মার্চ গত ৬০ বছরে প্রথমবারের মতো দৈনিক ডায়রিয়া রোগী ভর্তির সংখ্যা ১ হাজার ছাড়ায়। সেদিন হাসপাতালে ১ হাজার ৫৭ জন রোগী ভর্তি হয়েছিল। ২৮ মার্চ ভর্তি রোগীর সংখ্যা বেড়ে ১ হাজার ৩৩৪ জনে দাঁড়ায়। বর্তমানে সোমবার থেকে মঙ্গলবার ভোর পর্যন্ত ১৪ ঘণ্টায় আইসিডিডিআরবি হাসপাতালে ৬৩০ ডায়রিয়া রোগী।

[৬] ডা.বাহারুল বলেন, প্রায় প্রতিদিনই হাসপাতালে বেশ ডায়রিয়া রোগীকে আনা হচ্ছে। তবে হাসপাতালে ভর্তির পর কোনো মৃত্যুর ঘটনা ঘটেনি। এ বছর ডায়রিয়ায় মোট কতজন মারা গেছেন তা অবশ্য উল্লেখ করেননি তিনি।

[৯] এদিকে আমাদের বরিশাল বিভাগের প্রতিনিধি জানিয়েছেন,  গত ২৪ ঘণ্টায় ৩১৯ জন ডায়রিয়া রোগী বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন। গত ৭ দিনে প্রায় ২ হাজার রোগী এবং গত ১ মাসে প্রায় ৬ হাজার রোগী হাসপাতালে ভর্তি হয়েছিল। বরিশাল বিভাগীয় স্বাস্থ্য পরিচালক হুমায়ুন শাহীন খান জানিয়েছেন, বিভাগে গত ১ মাসে ডায়রিয়া রোগীর সংখ্যা শতকরা ৫০ ভাগের মতো বেড়েছে। বর্তমান পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের বাইরে না গেলেও পরিস্থিতি সতর্ক হওয়ার মতো বলে উল্লেখ করেন তিনি।

[১০] এদিকে স্বাস্থ্য বিভাগ বলছে, বাংলাদেশের দক্ষিণাঞ্চলীয় বরিশাল বিভাগের জেলাগুলোতে প্রায় এক মাস জুড়ে ভয়াবহ ডায়রিয়ার প্রকোপের পর পরিস্থিতি এখন কিছুটা স্থিতিশীল। প্রতিবছর এ সময়ে বিশেষ করে এপ্রিল মে মাসের দিকে ডায়রিয়ার প্রকোপ বাড়ে । এবার তুলনামূলক অনেক বেশি মানুষ ডায়রিয়ায় আক্রান্ত হয়েছে বলেই আইইডিসিআর ওএকটি দল বরিশাল অঞ্চলে এ নিয়ে কাজ করে যাচ্ছে।

[১১] স্বাস্থ্য বিভাগের তথ্য অনুযায়ী গত ৮ই মার্চ থেকে পরবর্তী এক মাসে সবচেয়ে বেশি মানুষ ডায়রিয়ায় আক্রান্ত হয়েছে, যা এখন পর্যন্ত মোট আক্রান্তের প্রায় অর্ধেক। আবার এপ্রিলের দ্বিতীয় সপ্তাহে আক্রান্তের গতি আরো বেড়েছে। ১৫ এপ্রিল পর্যন্ত সাত দিনে বিভাগে ডায়রিয়ায় আক্রান্ত হয়েছে ৪ হাজার ৫৭৭ জন। তবে বরিশাল জেনারেল হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার মলয় কৃষ্ণ বড়াল বলছেন বেশ কিছুদিন পর এখন রোগীর চাপ কিছুটা কমে আসতে শুরু করেছে। সম্পাদনা : কামরুজ্জামান

 

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়