শিরোনাম
◈ রমজানে নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যের দাম নিয়ন্ত্রণে পদক্ষেপ নিয়েছে সরকার: সংসদে প্রধানমন্ত্রী  ◈ সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণ ভোট গ্রহণে সব ধরনের ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে: ইসি ◈ রমজানে অফিস সময় ৯টা থেকে সাড়ে ৩টা  ◈ প্রধানমন্ত্রী নিজের রচিত দু’টি বইয়ের মোড়ক উন্মোচন করলেন ◈ পিএসসির প্রতিটি কাজে স্বচ্ছতা, জবাবদিহিতা নিশ্চিত করার নির্দেশ রাষ্ট্রপতির ◈ শেখ হাসিনার কারাগার বিষাক্ত গ্যাস চেম্বার: রিজভী  ◈ আর্জেন্টিনার ক্লাব ছেড়ে আবাহনীতে যোগ দিচ্ছেন জামাল ভূঁইয়া (ভিডিও) ◈ গজল গায়ক পঙ্কজ উদাসের অনুষ্ঠানেই প্রথম উপার্জন শাহরুখ খানের  ◈ ঢাকা আইনজীবী সমিতির কার্যকরী কমিটির নির্বাচনে ভোট গ্রহণ চলছে ◈ ভারত বাংলাদেশের সাথে তার বন্ধুত্বকে সর্বোচ্চ অগ্রাধিকার দেয়: মুর্মু

প্রকাশিত : ২৮ নভেম্বর, ২০২৩, ০৭:১৩ বিকাল
আপডেট : ২৮ নভেম্বর, ২০২৩, ০৭:১৩ বিকাল

প্রতিবেদক : নিউজ ডেস্ক

আমার মন্তব্যের ভুল ব্যাখ্যা দেওয়া হয়েছে: চঞ্চল চৌধুরী 

শিমুল চৌধুরী ধ্রুব: [২] সদ্য শেষ হওয়া ওয়ানডে ক্রিকেট বিশ্বকাপে টানা অপরাজেয় ছিল ভারত। কিন্তু ১৯ নভেম্বর অনুষ্ঠিত বিশ্বকাপের ফাইনাল ম্যাচে সেই ভারতকেই পরাজিত করে অস্ট্রেলিয়া। ট্রফির কাছাকাছি এসেও ছিটকে যাওয়ায় ভারতীয়রা ছিল মর্মাহত। অন্যদিকে ভারতের হারে বাংলাদেশিদের একটি অংশ সামাজিক মাধ্যমে উচ্ছ্বাস প্রকাশ করে।

[৩] বাংলাদেশিদের এমন উল্লাসে ক্ষুব্ধ ভারতীয়রা। বিষয়টি নিয়ে ভারতীয় এক গণমাধ্যম অভিনেতা চঞ্চল চৌধুরীর কাছে মতামত জানতে চায়। সেখানে কারণ হিসেবে ভারত বিদ্বেষী মনোভাবকে দায়ী করেছিলেন অভিনেতা। এমন মন্তব্যের ফলে সামাজিক মাধ্যমে তোপের মুখে পড়েন তিনি। নেটিজেনদের অনেকে তার তীব্র সমালোচনা করেন। আবার কেউ কেউ আবার চঞ্চলকে বয়কটের ডাক দেন। এবার বিষয়টি নিয়ে মুখ খুললেন চঞ্চল। তিনি মনে করছেন তার মন্তব্যের ভুল ব্যাখ্যা করা হয়েছে।

[৪] এ প্রসঙ্গে চঞ্চল বলেন, ‘এটা আমার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রের একটা অংশ। আমার মন্তব্যকে ভুল ব্যাখ্যা দেওয়া হয়েছে। তবে এ বিষয়ে আমি আর কোনও মন্তব্য করতে রাজি নই।’

[৫] এর আগে ভারতের হারে বাংলাদেশের অনেকের উল্লাস প্রসঙ্গে ভারতের এক সংবাদমাধ্যমকে চঞ্চল বলেছিলেন, ‘খেলাকে আর মানুষ শুধু মাঠের মধ্যেই সীমাবদ্ধ রাখছে না। এটাই আমার খারাপ লাগার জায়গা। খেলাতে হার-জিত থাকেই, তবে সেটার ফলে এমন হিংসার ছবি প্রকাশ্যে আসা কাম্য নয়। বাংলাদেশে অনেক ভারত বিদ্বেষী আছে, এটা তো অস্বীকার করার জায়গা নেই। সে রাজনীতি হোক কিংবা খেলা। সবক্ষেত্রেই। এটা বাস্তব। সব দেশেই এমন থাকে। বাংলাদেশেও আছে।’

[৬] তিনি বলেছিলেন, ‘তবে এটাই কিন্তু বাংলাদেশের সার্বিক চিত্র নয়। এখানে এ রকম প্রচুর মানুষ ভারতের সিনেমা ভালোবাসে। মুক্তিযুদ্ধের অবদান মনে রাখে। যারা মুক্তিযুদ্ধের সমর্থক নয়, তাদের পরিবার পরম্পরায় পাকিস্তানের পক্ষে। আর যারা ভারতবিরোধী তাদের প্রত্যেকের কাছে জনে জনে গিয়ে তো আমার পক্ষে বলা সম্ভব নয় যে, ভারতকে সাপোর্ট করো।’

[৭] চঞ্চল আরও বলেছিলেন, ‘একটা দেশে বিভিন্ন মতাদর্শের মানুষ আছে। বাংলাদেশের বহু মানুষ এখনও মুক্তিযুদ্ধের বিরোধিতা করে। অনেকে আবার সমর্থনও করে। আবার ভারত বনাম পাকিস্তান খেলা হলে, অনেকে পাকিস্তানকেও সমর্থন করে। এমন নয় যে, বাংলাদেশের ২০ কোটি মানুষই ভারত বিদ্বেষী। এটা তো রাজনীতি বা খেলা সবক্ষেত্রেই হতে পারে। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় চত্বরে যারা ছিল, তারা হয়ত ভারত বিদ্বেষী। তাই এহেন আচরণ করেছে।’ সম্পাদনা: তারিক আল বান্না

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়