শিরোনাম
◈ আদালতের আদেশ তো শিক্ষার্থীদের পক্ষেই, তাহলে কার বিপক্ষে আন্দোলন: ওবায়দুল কাদের ◈ গণতন্ত্রের জন্যও শিক্ষার্থীদের লড়াই করার আহ্বান আমির খসরুর ◈ চাল কেজিতে ২ থেকে ৫ টাকা, সবজি ১৫ থেকে ২০ টাকা বেড়েছে ◈ কোটাবিরোধীরা পরবর্তী কর্মসূচি ঘোষণা শনিবার ◈ ৫ শতাংশ কোটা পুনর্বহালের দাবিতে আন্দোলনে ক্ষুদ্র নৃগোষ্ঠীর সদস্যরা ◈ আনোয়ারা-ফৌজদারহাট পাইপলাইন মেরামত সম্পন্ন, কমবে গ্যাস সংকট ◈ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার চীন সফরে বাংলাদেশ, ভারত ও চীন তিনদেশই খুশি ◈ আইনশৃঙ্খলার অবনতি ঘটালে বরদাশত করা হবে না: ডিএমপি কমিশনার ◈ কোটা আন্দোলনকারীরা ঘরে ফিরে যাবে বলে আশাবাদ আইনমন্ত্রীর ◈ অতি বৃষ্টিতে রাজধানীর বেশিরভাগ এলাকায় হাঁটুপানি, জনজীবন বিপর্যস্ত

প্রকাশিত : ২২ মার্চ, ২০২৩, ০৪:০১ দুপুর
আপডেট : ২৩ মার্চ, ২০২৩, ০২:৪৭ রাত

প্রতিবেদক : নিউজ ডেস্ক

ব্রয়লার মুরগির কেজি ২০০ টাকার বেশি বিক্রি অযৌক্তিক : ভোক্তার ডিজি

এ এইচ এম সফিকুজ্জামান

মাসুদ আলম: জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের মহাপরিচালক এ এইচ এম সফিকুজ্জামান বলেন, সারা দেশের বাজারগুলোতে পণ্যের দাম নিয়ে কারসাজি হলে বা কোনো ক্ষেত্রে বাজার নিয়ন্ত্রণে সংশ্লিষ্ট বাজার কমিটি ব্যর্থ হলে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। এই মুহূর্তে ভোক্তাদের উদ্বেগেরকোনো কারণ নেই। আসন্ন রমজানকে কেন্দ্র করে বাজারে কোনো পণ্যের ঘাটতি নেই।  বুধবার আসন্ন পবিত্র রমজান উপলক্ষে রাজধানীর নিউমার্কেটের বনলতা মার্কেট কাঁচাবাজারে তদারকি কার্যক্রম পরিচালনা শেষে সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন তিনি। 

তিনি আরও বলেন, বাজার ঘুরে আমরা দেখেছি কোনো পণ্যের ঘাটতি নেই। দু’একটি পণ্যের দাম কিন্তু কমেছেও। এখন শুধুমাত্র অস্থিরতা রয়েছে ব্রয়লার মুরগির বাজারে। দফায় দফায় ব্যবসায়ী, উৎপাদক ও খামারিদের সঙ্গে বৈঠক করেও এই পোল্ট্রি পণ্যটির দাম কমাতে ব্যর্থ তদারকি সংস্থাগুলো। এ অবস্থায় ব্রয়লার মুরগির দাম ভোক্তা পর্যায়ে কেজিতে ২০০ টাকার বেশি হওয়ার যৌক্তিক কোনো কারণ নেই।  যারা দায়িত্বশীল রয়েছেন, তারা ভোক্তাদের কষ্ট লাঘবের জন্য বিষয়টি দেখবেন সেই প্রত্যাশা করবো।

ডিজি  বলেন, রমজান মাসে যেসব কারণে নিত্যপণ্যের দাম বেড়ে যায় সেটি আমরা শনাক্ত করেছি। কিছু ব্যবসায়ী রমজানের অজুহাতে দাম বাড়ানোর কারসাজি করেন। এবার রমজানে তারা যাতে এটি করতে না পারে, সেজন্য বাংলাদেশ দোকান মালিক সমিতি, এফবিসিসিআই ও জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদফতর যৌথভাবে কাজ করছি। 

তিনি আরও বলেন, আপনারা বাজরে হুমড়ি খেয়ে পড়বেন না। আপনারা তিন দিন বা সাত দিনের পণ্যে একসঙ্গে কিনেন। কিন্তু পুরো রমজানের বাজার একসঙ্গে করে বাজার অস্থির করবেন না।

তিনি বলেন, এবার রমজানে নিত্যপণ্যের দাম নিয়ে যাতে ব্যবসায়ীরা কারসাজি করতে না পারে, সেজন্য বাজার কমিটিগুলোকে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে। তারপরও দেশের কোনো বাজারে নিত্যপণ্যের দাম নিয়ে যদি অস্থিরতা সৃষ্টি হয়, তাহলে এর জন্য বাজার কমিটি দায়ী থাকবে এবং তাদের বিরুদ্ধে আমরা ব্যবস্থা নেব।  

এ সময় এফবিসিসিআইয়ের জ্যেষ্ঠ সহ-সভাপতি মোস্তফা আজাদ চৌধুরী বাবু বলেন, ব্যবসায়ীরা কোনো পণ্য বেশি দামে বিক্রি করলে বাজার কমিটিগুলো গঠনতন্ত্র অনুযায়ী তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেবে। যদি বাজার কমিটিগুলো এটি নিয়ন্ত্রণ করতে না পারে, তাহলে বাণিজ্য মন্ত্রণালয় কমিটি বাতিল বা স্থগিত করতে পারেন। তাই ব্যবসায়ীদের প্রতি আহ্বান জানাবো, এবার রমজানে সব ভোক্তা যেনো স্বস্তিতে থাকে।

বাংলাদেশ দোকান মালিক সমিতির সভাপতি হেলাল উদ্দিন বলেন, রমজান এলেই ভোগ্যপণ্যের দাম বাড়িয়ে দেওয়ার অভিযোগ উঠে ব্যবসায়ীদের বিরুদ্ধে। কিন্তু এবার কোনো পণ্যের দাম বাড়ার যৌক্তিক কারণ নেই। দুই একদিনের মধ্যে যদি দাম না কমে বা অব্যহতভাবে বাড়তে থাকে, তাহলে পার্শ্ববর্তী দেশ থেকে ব্রলার মুরগি আমদানির ব্যবস্থা করার জন্য সরকারকে অনুরোধ জানাচ্ছি।

এমএ/এএ

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়