শিরোনাম
◈ টেক্সাসে বন্দুকধারীর হামলায় শিক্ষার্থীসহ নিহত ১৫ ◈ সারাদেশে ছাত্রদলের ২দিনের বিক্ষোভ কর্মসূচি ঘোষণা ◈ আবারও বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার প্রধান তেদ্রোস ◈ ছাত্রলীগের হামলার প্রতিবাদে নারায়ণগঞ্জে ছাত্রদলের বিক্ষোভ ও মশাল মিছিল ◈ ঢাবিতে ছাত্রলীগের হামলার প্রতিবাদে জবি ছাত্রদলের মশাল মিছিল ◈ স্মারক স্বর্ণ মুদ্রার দাম ৪ হাজার টাকা বাড়লো কেন্দ্রীয় ব্যাংক ◈ হজ ফ্লাইট ৫ জুন শুরু ◈ সর্বজনীন পদ্মা সেতুতে ওঠার আগে অপপ্রচারকারীদের ক্ষমা চাওয়া উচিত: তথ্যমন্ত্রী ◈ সিরিয়ায় সামরিক অভিযানের ইঙ্গিত দিলেন এরদোগান ◈ হাতিরঝিলে ওয়াটার ট্যাক্সি ও বাণিজ্যিক স্থাপনা উচ্ছেদের নির্দেশ

প্রকাশিত : ২৮ জানুয়ারী, ২০২২, ০১:৫৬ দুপুর
আপডেট : ২৮ জানুয়ারী, ২০২২, ০১:৫৬ দুপুর

প্রতিবেদক : নিউজ ডেস্ক

[১] শেরপুরের হরিজনপল্লীতে হবে ৭ তলা ভবন : পূনর্বাসিত  হবে ৩৬ পরিবার

তপু সরকার : [২] মুজিববর্ষে প্রধানমন্ত্রীর উপহার হিসেবে শেরপুরের হরিজনরা পাচ্ছেন সাততলা বিশিষ্ট পাকা বাসভবন। সেখানে পূনর্বাসিত হবে শেরপুর পৌরসভার হরিজনপল্লীর বাসিন্দা ৩৬ পরিবার। শেরপুর শহরের সজবরখিলা এলাকার হরিজনপল্লীর বাসিন্দাদের জীবনমান উন্নয়ন বিষয়ক মতবিনিময় সভায় এমন তথ্য জানান পৌর মেয়র গোলাম মোহাম্মদ কিবরিয়া লিটন।

[৩] বৃহস্পতিবার (২৭ জানুয়ারি)বিকেলে পৌরসভার সম্মেলনকক্ষে নাগরিক প্ল্যাটফরম জনউদ্যোগ কমিটি এ মতবিনিময় সভার আয়োজন করে। প্রধান অতিথির বক্তব্যে মেয়র জানান, প্রধানমন্ত্রীর উপহার হিসেবে হরিজনপল্লীতে এলজিইডি’র তত্বাবধানে নির্মিত হবে ৭ তলা বিশিষ্ট ভবনটি।

[৪] ইতোমধ্যে জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের (একনেক) সভায় প্রকল্পটি অনুমোদিত হয়েছে। এলজিইডি’র পক্ষ থেকে ভবন নির্মাণের জন্য হরিজনপল্লীতে জায়গাও পরিমাপ করা হয়েছে। জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে খাসখতিয়ানের ওই জায়গার অনাপত্তি পত্রও প্রদান করা হয়েছে।

[৫]তাছাড়া হরিজন পল্লীর পুকুরটি কিভাবে সংরক্ষণ করা যায় এবং সেখানকার শিশুদের শিক্ষার জন্য একটি পাঠকেন্দ্র স্থাপন করার বিষয়েও প্রয়োজনী পদক্ষেপ নেওয়ার কথা জানান পৌর মেয়র গোলাম মোহাম্মদ কিবরিয়া লিটন।

[৬] জনউদ্যোগ কমিটির আহ্বায়ক শিক্ষক আবুল কালাম আজাদ-এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় হরিজনপল্লীর বাসিন্দারা সেখানে বসবাসকারি হেলা ও বাসফোর সম্প্রদায়ের মধ্যে সমন্বয় করে ভবনটিতে বরাদ্দ দেওয়ার দাবী জানানো হয়। সেইসাথে পুকুরটি তাদের ধর্মীয় ও জীবনযাপনের অনুসঙ্গ হিসেবে উল্লেখ করে সেটি সংরক্ষনর দাবী জানান।

[৭] হরিজনপল্লীর বাসিন্দারা সেখানে একটি শিক্ষাকেন্দ্র চালু করা, সীমানাপ্রাচীর নির্মাণ, মাদক নিয়ন্ত্রণ সহ বিভিন্ন সমস্যাদি সমাধানেরও দাবী তুলে ধরেন। মেয়র সেসব বিষয়ে পদক্ষেপ নেওয়ার আশ্বাস দেন। হরিজন নেতৃবৃন্দের মধ্যে বক্তব্য রাখেন নন্দ কিশোর চৌধুরী, বিমল বাসফোর, মুক্তা হরিজন, মিলন হরিজন প্রমুখ। সম্পাদন : আফরোজা সরকার

 

 

 

 

  • সর্বশেষ