প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] শ্রমিকলীগ নেতা হত্যা মামলার আসামির সঙ্গে ঘনিষ্ঠতা, সাংবাদিক গ্রেপ্তার

আয়াছ রনি: [২] কক্সবাজার জেলা শ্রমিকলীগ সভাপতি জহিরুল ইসলাম সিকদার হত্যা মামলায় ইমাম খাইর (৩৭) নামে এক সাংবাদিককে গ্রেপ্তার করেছে র‌্যাব।

[৩] হত্যা মামলার প্রধান আসামি লিয়াকত আলীর সঙ্গে ঘনিষ্ঠ যোগাযোগ ও হত্যা সংক্রান্ত প্রাথমিক তথ্য পাওয়ার অভিযোগে বৃহস্পতিবার (১১ নভেম্বর) রাত ১১টায় তাকে গ্রেপ্তার করা হয় বলে জানিয়েছে র‌্যাব।

[৪] গ্রেপ্তার ইমাম খাইর দৈনিক কক্সবাজার একাত্তর পত্রিকার নির্বাহী সম্পাদক ও চট্টগ্রামের দৈনিক সাঙ্গু পত্রিকার নিজস্ব প্রতিবেদক। তিনি ঈদগাঁও উপজেলার ইসলামপুর ফুলছড়ি গ্রামের ফরিদুল আলমের ছেলে।

[৫] এ বিষয়ে র‌্যাব-১৫ কক্সবাজারের সিনিয়র সহকারী পরিচালক (‘ল’ অ্যান্ড মিডিয়া) ও অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. আবু সালাম চৌধুরী বলেন, জেলা শ্রমিকলীগ সভাপতি জহিরুল ইসলাম সিকদার হত্যার ঘটনায় জড়িত থাকার প্রাথমিক প্রমাণ পাওয়ায় ইমাম খাইরকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। তাকে কক্সবাজার সদর মডেল থানা পুলিশের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।

[৬] কক্সবাজার সদর মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) শেখ মুনীর উল গীয়াস বলেন, সাংবাদিক ইমাম খাইরকে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। তাকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আগামী বোরবার আদালতে রিমান্ডের আবেদন করবে পুলিশ।

[৭] পুলিশ জানায়, গত ৫ নভেম্বর রাতে শহরতলীর লিংকরোড স্টেশনে আওয়ামী লীগ নেতা কুদরত উল্লাহর নিজস্ব কার্যালয়ে বসে ইউপি নির্বাচনী আলোচনার সময় অস্ত্রধারীরা গুলি চালায়। এতে জেলা শ্রমিক লীগের সভাপতি জহিরুল ইসলাম সিকদার ও তার ছোট ভাই ঝিলংজা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও ইউপি সদস্য কুদরত উল্লাহ সিকদার গুলিবিদ্ধ হন। ৭ নভেম্বর দুপুরে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় জহিরুল ইসলাম সিকদারের মৃত্যু হয়। গুলিবিদ্ধ কুদরত উল্লাহ সিকদার এখনো সেখানে চিকিৎসাধীন আছেন।

[৮] এ ঘটনায় গত ৯ নভেম্বর রাতে কক্সবাজার সদর মডেল থানায় স্থানীয় সাবেক ইউপি সদস্য লিয়াকত আলীকে প্রধান আসামি করে ১৯ জনের নাম উল্লেখ করে হত্যা মামলা করেন গুলিবিদ্ধ ইউপি সদস্য কুদরত উল্লাহ সিকদার। আসামিদের মধ্যে এ পর্যন্ত কেউ গ্রেপ্তার হয়নি। তবে আসামিদের ধরতে এলাকায় অভিযান চলছে জানিয়েছেন কক্সবাজার মডেল থানার ওসি (তদন্ত) বিপুল চন্দ্র দে।

সর্বাধিক পঠিত