প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] রাজশাহীতে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে কলেজ ছাত্রীকে লাগাতার ধর্ষণ; থানায় মামলা

ইফতেখার আলম: [২] রাজশাহীতে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে কলেজ পড়ুয়া (এইচএসসি) ২য় বর্ষের টুম্মা বেবি (ছদ্দনাম) নামের এক শিক্ষার্থীকে লাগাতার ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে তার প্রেমিকের বিরুদ্ধে।

[৩] এ ব্যাপারে ওই শিক্ষার্থীর দুুলাভাই রফিকুল ইসলাম বাদি হয়ে প্রেমিক জুবায়ের রহমান (১৮) এর বিরুদ্ধে বৃহস্পতিবার ৪ নভেম্বর বেলপুকুর থানায় মামলা করেছেন। এ ঘটনায় প্রেমিক জুবায়েরকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

[৪] বুধবার (৩ নভেম্বর) বেলপুকুর থানাধীন পূর্ব জামিরা গ্রামে সকাল সাড়ে ১০টার দিকে ওই শিক্ষার্থীর বড় বোনের বাড়িতে ধর্ষণের ঘটনা ঘটে।

[৫] পুলিশ সূত্রে জানা যায়, ধর্ষক মো. জুবায়ের রহমান দূর্গাপুর থানাধীন দুর্গাপুর বাজার এলাকার আজাহার আলীর ছেলে। সে দুর্গাপুর ডিগ্রী কলেজের বিজ্ঞান বিভাগের ২য় বর্ষের ছাত্র ও টুম্পা বেবি (ছদ্দনাম) একই কলেজে একই বর্ষের মানবিক বিভাগের ছাত্রী হওয়ায় মেয়েটির সঙ্গে প্রেমের সর্ম্পক গড়ে উঠে।

[৬] পরে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে বিভিন্ন জায়গায় বিভিন্ন সময় শারিরিক সম্পর্ক গড়ে তুলে। এ ঘটনায় মামলার বাদি রফিকুল ইসলাম জানান, তার শালীকা টুম্পা (ছদ্দনাম) প্রেমিক জুবায়েকে সাথে নিয়ে তাদের বাসায় বেড়াতে আসে। এসময় রফিকুল ইসলাম বাসায় ছিলেননা। এদিকে তার স্ত্রী রান্নার কাজে ব্যাস্ত ছিলেন। এ সুযোগে টুম্পাকে নিয়ে বাসার রুমে ভেতর থেকে দরজা বন্ধ করে দেয় এবং তাকে ধর্ষণ করে।

[৭] বেলপুকুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মনিরুজ্জাম বলেন, গতকাল রাতে জাতীয় জরুরি সেবা ৯৯৯ এ ফোন পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে যায়। সেখান থেকে মেয়ে এবং ছেলেকে থানায় নিয়ে আসা হয়। এ ঘটনায় থানায় একটি ধর্ষণের মামলা হয়েছে। বিবাদি জুবায়েরকে আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে। অন্যদিকে ভিক্টিম টুম্মাকে (ছদ্দনাম) রামেকের ওসিসিতে মেডিকেল পরিক্ষার জন্য ভর্তি করা হয়েছে বলে জানান ওসি।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত