প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] চট্টগ্রামে জশনে জুলুসে লাখো লাখো সুন্নী মুসলমানদের ঢল, নেতৃত্বে আল্লামা সাবির শাহ্ (ভিডিও)

ওয়ালি উল্লাহ, রিয়াজুর রহমান: [২] আনজুমান – এ – রহমানিয়া আহমদিয়া সুন্নিয়া ট্রাস্ট, চট্টগ্রাম কর্তৃক আয়োজিত পবিত্র ঈদে মিলাদুন্নবী সাল্লাল্লাহু আলায়হি ওয়াসাল্লাম উপলক্ষে বুধবার (২০ অক্টোবর) চট্টগ্রামে ঐতিহাসিক জশনে জুলুস উদযাপিত হয়েছে।

[৩] জুলুসটি দরবারে আলীয়া কাদেরিয়া সিরিকোট শরীফের সাজ্জাদানশীন আল্লামা পীর সৈয়্যদ মুহাম্মদ সাবির শাহ্ মাদ্দাজিল্লুহুল আলীর নেতৃত্বে বন্দর নগরীর জামেয়া আহমদিয়া সুন্নিয়া কামিল মাদ্রাসা সংল্মা আলমগীর খানকাহ্ এ – কাদেরিয়া সৈয়্যদিয়া তৈয়্যবিয়া হতে সকাল ৮ টায় এ জশনে জুলুস রওয়ানা হয়।

[৪] “নারায়ে তকবীর আল্লাহু আকবর, নারায়ে রিসালাত ইয়া রাসুল্লাল্লাহ ( দ.)” স্লোগানে মুখরিত লাখো লাখো সুন্নী মুসলমানদের অংশগ্রহণে অনুষ্ঠিত জুলুসটি নগরীর প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে পুনরায় জামেয়া আহমদিয়া সুন্নিয়া কামিল মাদ্রাসা সংলা জুলুছ ময়দানে পবিত্র ঈদে মিলাদুন্নবী (দ.)’র অনুষ্ঠানটি মাহফিলের মাধ্যমে সমাপ্ত হয়।

[৫] আল্লামা পীর সৈয়্যদ মুহাম্মদ সাবির শাহ্ মাদ্দাজিল্লুহুল আলীর সভাপতিত্বে আয়োজিত মাহফিলে বক্তব্য রাখেন- আনজুমান – এ – রহমানিয়া আহমদিয়া সুন্নিয়া ট্রাস্ট’র সিনিয়র ভাইস প্রেসিডেন্ট মুহাম্মদ মহসিন, সেক্রেটারী জেনারেল মুহাম্মদ আনোয়ার হোসেন, এডিশনাল জেনারেল সেক্রেটারী মুহাম্মদ সামশুদ্দিন, পিএইচপি ফ্যামেলীর চেয়ারম্যান সুফি মুহাম্মদ মিজানুর রহমান, জামেয়া আহমদিয়া সুন্নিয়া কামিল মাদ্রাসার অধ্যক্ষ আল্লামা মুফতি সৈয়দ মুহাম্মদ অছিয়র রহমান প্রমুখ।

[৬] মাহফিলে বক্তারা বলেন, ১২ ই রবিউল আউয়াল পৃথিবীর বুকে আল্লাহর রহমত হিসেবে আবির্ভূত হন আমাদের প্রিয় নবী হযরত মুহাম্মদ সাল্লাল্লাহু আলায়হি ওয়াসাল্লাম তিনি সমগ্র বিশ্ববাসীর জন্য সর্বোত্তম আদর্শের শিক্ষাদাতা হিসেবে আবির্ভূত হয়ে তাঁর সুন্দরতম আদর্শের মাধ্যমে পৃথিবীতে শান্তি – সৌহার্দ সাম্য – মানবতা প্রতিষ্ঠা করেন।

[৭] মাহফিল শেষে দেশ – জাতির উন্নতি, সমৃদ্ধি কামনায় মুনাজাত করেন রাহনুমায়ে শরীয়ত ও তরিকত আল্লামা পীর সৈয়্যদ মুহাম্মদ সাবির শাহ্ মাদ্দাজিল্লুহুল আলী ।

[৮] প্রতিবছরের মতো এবারও জুলুসের শৃঙ্খলা রক্ষায় ভোর থেকে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যদের পাশাপাশি আনজুমান সিকিউরিটি ফোর্স, গাউসিয়া কমিটি বাংলাদেশসহ বিভিন্ন সামাজিক সংগঠনের স্বেচ্ছাসেবকরা দায়িত্ব পালন করেন।

[৯] চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশের এসি (বায়েজিদ) মো. শাহ আলম গনমাধ্যমকে বলেন, জুলুসকে ঘিরে পর্যাপ্ত আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্য নিয়োজিত আছেন।

[১০] আনজুমান ট্রাস্টের সেক্রেটারি জেনারেল মুহাম্মদ আনোয়ার হোসেন জুলুস শুরুর আগে সাংবাদিকদের বলেন, আল্লামা তৈয়ব শাহ (র.) ৭৪ সালে এ জুলুসের প্রবর্তন করেন। আমরা এ জুলুস সারা বিশ্বে ছড়িয়ে দিতে চাই। আমাদের এবারের বার্তা হচ্ছে মানুষের প্রতি ভালোবাসা। করোনাকালে আপনারা দেখেছেন গাউসিয়া কমিটি জাতি ধর্ম বর্ণ নির্বিশেষে করোনায় মারা যাওয়া রোগীদের দাফন কাফন ও সৎকারে সহযোগিতা করে আসছে।

[১১] গাউসিয়া কমিটির অ্যাডভোকেট মোছাহেব উদ্দিন বখতেয়ার বলেন, বৈরী আবহাওয়ার মধ্যেও জুলুস সফল করার জন্য আমরা পীরভাই, সুন্নি জনতা, প্রশাসন, আইনশৃংখলা বাহিনীসহ সবার প্রতি ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানাই। এ জুলুস সম্প্রীতির বার্তা বয়ে আনবে দেশে। সম্পাদনা: হ্যাপি

সর্বাধিক পঠিত