প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] মানবপাচার রোধে আইন আরও কঠোর করার সুপারিশ

মনিরুল ইসলাম: [২] মানবপাচার রোধে বিদ্যমান আইন আরও কঠোর করার পরামর্শ দিয়েছে সংসদীয় কমিটি। কমিটি এ বিষয়ে আইন মন্ত্রণালয়ের সাথে কথা বলতে বলেছে।

[৩] মঙ্গলবার (১৯ অক্টোবর) সংসদ ভবনে অনুষ্ঠিত পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় কমিটির বৈঠকে এই সুপারিশ করা হয়েছে।

[৪] কমিটির সভাপতি মুহম্মদ ফারুক খানের সভাপতিত্বে কমিটির সদস্য পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আব্দুল মোমেন, প্রতিমন্ত্রী মো. শাহরিয়ার আলম, নুরুল ইসলাম নাহিদ, গোলাম ফারুক খন্দঃ প্রিন্স, মো. আব্দুল মজিদ খান, মো. হাবিবে মিল্লাত, নাহিম রাজ্জাক এবং কাজী নাবিল আহমেদ অংশ নেন।

[৫] বৈঠক সূত্রে জানা গেছে, অবৈধভাবে ইউরোপীয় দেশে যেতে গিয়ে লিবিয়া থেকে ফেরত আসা ৩৫ ব্যক্তির জবাববন্দির বিষয়টি কমিটিকে অবহিত করেছে মন্ত্রণালয়। মন্ত্রণালয় থেকে জানানো হয়েছে, তাদেরকে কোয়ারেন্টাইনে রেখে তথ্য আদায় করা হয়েছে। তারা জানিয়েছে, প্রত্যেকে ১০/১২ লাখ টাকা করে দিয়ে তুরস্ক ও লিবিয়া হয়ে ইতালি, জার্মানি বা ইউরোপের অন্য কোনো দেশে যেতে চেয়েছিল। তাদের অবৈধভাবে বিদেশে পাঠানো ৪/৫ জন ব্যক্তির নাম রয়েছে।

[৬] বৈঠক শেষে কমিটির সভাপতি ফারুক খান বলেন, যারা এভাবে বিদেশে যাওয়ার চেষ্টা করে তারা ধরা পড়ে দেশে ফিরলে আমরা তাদের ছেড়ে দেই। এটা না করে তাদেরকে আইনের আওতায় আনা হলে এভাবে কেউ যাওয়ার সাহস পাবে না। এজন্য আমরা মন্ত্রণালয়কে বলেছি অসত্য তথ্য দিয়ে যারা বিদেশ যায় তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিয়ে আইন মন্ত্রণালয়ের সাথে আলোচনা করে আইনের বিধানগুলোকে আরও কঠোর করার সুপারিশ করেছি।

[৭] প্রস্তাবিত মেরিটাইম জোন আইন নিয়ে সংশ্লিষ্টদের মতামত নেবে সংসদীয় কমিটি।

[৮] সংসদে উত্থাপিত মেরিটাইম জোন আইন নিয়ে সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন পক্ষের মতামত নেবে সংসদীয় কমিটি। এ লক্ষ্যে বৈঠকে একটি সাব-কমিটি গঠন করা হয়েছে। সংসদীয় কমিটির সভাপতি মুহম্মদ ফারুক খানকে এ সাব কমিটির সদস্য করা হয়েছে। কমিটির অপর দুই সদস্য হলেন গোলাম ফারুক খন্দকার প্রিন্স ও নাহিম রাজ্জাক। সাব-কমিটিকে চলতি মাসের মধ্যে প্রতিবেদন দেয়ার সময়সীমা বেঁধে দেয়া হয়েছে।

[৯] মুহম্মদ ফারুক খান বলেন, এটি একটি গুরুত্বপূর্ণ আইন। বঙ্গবন্ধুর সময়কার এই আইনটি যুগোপযোগী ও আধুনিক করতেই এই আইনটি আনা হয়েছে। এজন্য আমরা সংশ্লিষ্টদের সাথে কথা বলবো।

[১০] জাতিসংঘের মহীসোপান নির্ধারণসংক্রান্ত কমিশনে (সিএলসিএস) বাংলাদেশের দাবির প্রেক্ষিতে ভারত যে আপত্তি তুলেছে তার প্রসঙ্গ টেনে কমিটির সভাপতি বলেন, আমাদের এই আইনটির সংশোধনী না থাকার কারণে তারা এই দাবিটি তুলতে পেরেছে। আইনটি থাকলে তারা হয়তো পারতো না।

সর্বাধিক পঠিত