প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] শেরপুরে জাতীয় স্যানিটেশন মাস ও আর্সেনিক মুক্ত পানি সরবরাহে যুকি নিরশন অবহিত করন সভা

তপু সরকার: [২] বাংলাদেশের পানিতে আর্সেনিকের আধিক্য মানুষের জন্য একটি হুমকি৷ নানা ভাবে আর্সেনিকমুক্ত পানি সরবরাহের চেষ্টা করছে সরকার এবং বিশ্ব হাত ধোয়া দিবস-ও জনসচেতনতা বাড়াতে নানা কর্মসূচি আয়োজন করা হয়। প্রতিপাদ্য ছিল-‘আমাদের ভবিষ্যৎ হাতের মুঠোয়-চলো একসঙ্গে এগিয়ে যাই।’

[৩] সকাল ১১টার সময় শেরপুর জেলাপ্রশাসক সম্মেলন কক্ষে শেরপুর জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তর ও (উন্নয়ন সংঘ) আয়োজিত শেরপুরে পানি সরবরাহে আর্সেনিক মুক্ত যুকি নিরশন ও জাতীয় স্যানিটেশন মাস ও বিশ্ব হাতধোয়া দিবস অবহিত করন সভা অনুষ্ঠত হয়।

[৪] শেরপুরের সু-যোগ্য জেলাপ্রশাসক মো. মোমিনুর রশিদ সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি জাতীয় সংসদের সম্মানিত হুইপ বীরমুক্তিযোদ্ধা আতিউর রহমান আতিক এমপি বলেন আর্সেনিকমুক্ত পানি পাওয়ার এই পরিবেশ বান্ধব ও সহজতর উপায় এখন পর্যন্ত পরীক্ষাগার পর্যায়ে রয়েছে৷ পরীক্ষামূলকভাবে এই পদ্ধতি নির্দিষ্ট এলাকায় বাস্তবায়ন করা হবে৷ সরকারের সাথে আলোচনা সাপেক্ষে নির্দিষ্ট ধাপ অতিক্রম করে সাধারণ মানুষের দোরগোড়ায় পৌঁছতে কিছু সময় লাগবে বলে উল্লেখ করেন ।

[৫] নিবার্হী প্রেকৌশলী শেরপুর জনস্বাস্থ্য অধিদপ্তর মুহাম্মদ ছামিউল হক, বলেন পাঁচ বছরের কম বয়সী শিশুদের ডায়রিয়া ও নিউমোনিয়া উভয় প্রবনতা কমাতে পানি ও সাবান দিয়ে হাত ধোয়া একটি ব্যয়-স্বাশ্রয়ী উদ্যোগ। কিছু নির্দিষ্ট সময়, বিশেষ করে খাবার গ্রহণের পূর্বে বা খাবার প্রস্তুতের পূর্বে এবং টয়লেট ব্যবহারের পর সাবান দিয়ে দুই হাত ধোয়ার মাধ্যমে ডায়রিয়ার হার প্রায় ৪০ শতাংশের বেশি ও তীব্র শ্বাসযন্ত্রের সংক্রমণ প্রায় ২৩ শতাংশ কমানো সম্ভব।

[৬] অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক মুকাদিরুল আহমেদ এর উপস্থাপনায় বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন জেলা আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক এডভোকেট চন্দন কুমার পাল,

[৭] উপ-সচিব (স্থানীয় সরকার), এ টিএম জিয়াউল ইসলাম, শেরপুর সদর উপজেলা চেয়ারম্যান রফিকুল ইসলাম, শেরপুর সদর উপজেলা নিবার্হী অফিসার মেহেনাজ ফেরদৌস, শেরপুর জেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার মো. নুরুল ইসলাম হিরু, পরিচালক মো. রফিকুল আলম মোল্লা উন্নয়ন সংঘ জামালপুর শেরপুর, প্রেসকলাবের সাধারন সম্পাদক মেরাজ উদ্দিন ।

[৮] বক্তারা বলেন এ বছরের প্রতিপাদ্য বিষয় হলো ‘সকলের হাত পরিচ্ছন্ন থাক’ এটি টেকসই উন্নয়ন কাউকে বাদ দিয়ে নয় তা অনুসরন করে। হাত ধোয়ার সুবিধায় অসমতা ও কার্যকর প্রচার প্রোগ্রামের অভাবে আমরা বিভিন্ন ধরনের রোগের ঝুঁকিতে পড়ছি যা আমাদের স্বাস্থ্য, শিক্ষা ও অর্থনৈতিক উন্নয়নকে প্রভাতিব করতে পারে।

[৯] এ সময় বিভিন্ন এনজিও, সমাজসেবী সংগঠন এবং সরকারী বেসরকারী কর্মকর্তা কর্মচারী, গনমাধ্যম কর্মী বৃন্দ উপস্থিত ছিলেন ।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত