প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] জবিতে বিজ্ঞান ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা সুষ্ঠুভাবে অনুষ্ঠিত

অপূর্ব চৌধুরী: [২] গুচ্ছভুক্ত ২০টি বিশ্ববিদ্যালয়ে ২০২০-২০২১ শিক্ষাবর্ষে বিজ্ঞান (এ) ইউনিটের স্নাতক (সম্মান) প্রথম বর্ষের ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়েছে। অন্যান্য কেন্দ্রের মত জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ে রবিবার (১৭ অক্টোবর) দুপুর ১২টা হতে ১টা পর্যন্ত ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়।

[৩] বিজ্ঞান (এ) ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষায় ২৬টি কেন্দ্রে মোট পরীক্ষার্থী সংখ্যা এক লাখ একত্রিশ হাজার নয়শত এক জন শিক্ষার্থীর মধ্যে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রে দশ হাজার নয়শত পনের জন পরীক্ষার্থীর আসন বিন্যাস করা হয়।

[৪] ভর্তি পরীক্ষা চলাকালীন সময়ে GST গুচ্ছভুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়সমূহের সমন্বিত ভর্তি কমিটি ২০২০-২০২১-এর যুগ্ম আহবায়ক ও জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. ইমদাদুল হক বিভিন্ন হল পরিদর্শন করেন। এসময় ট্রেজারার অধ্যাপক ড. কামালউদ্দীন আহমদ, বিভিন্ন অনুষদের ডিন, বিভাগীয় চেয়ারম্যান, রেজিস্ট্রার, পরিচালক (ছাত্র-কল্যাণ), প্রক্টর ও সহকারী প্রক্টরসহ আরো অনেকে উপস্থিত ছিলেন।

[৫] তবে পরীক্ষা কর্মদিবসে অনুষ্ঠিত হওয়ায় তীব্র যান-জটে ভোগান্তিতে পড়েন পরীক্ষার্থীরা। রাজধানীর দনিয়া কলেজ থেকে আসা পরীক্ষার্থী তানিশা অভিযোগ করে বলেন, কার্যদিবসে পরীক্ষা নেওয়ায় আমাদের অনেক অসুবিধা হয়েছে৷ এত যানজট সহ্য করে পরীক্ষা দেওয়ার মানসিকতা থাকে না।

[৬] নরসিংদী থেকে আসা পরীক্ষার্থী ইকরামুল ইসলাম জাহিদ বলেন, এই এলাকায় এত জ্যাম। বাস থেকে নেমে অনেক দূর হেঁটে এসেছি। আমি আমার আত্নীয়ের বাসা থেকে দুই ঘন্টা আগে রওনা দিয়েও জ্যামের জন্য নির্দিষ্ট সময়ে পৌঁছাতে পারিনি।

[৭] জানা যায়, আজ পরীক্ষা কেন্দ্রে বেলা ১০:৩০ থেকে পরীক্ষার্থীরা কেন্দ্রে প্রবেশ করে। পরীক্ষার্থীদের হল খুঁজে দিতে সহায়তা করেন বিশ্ববিদ্যালয়ের বি এন সিসি , রেঞ্জার ইউনিট, রোভার স্কাউট ও প্রক্টরিয়াল বডির সদস্যরা।

[৮] বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর ড. মোস্তফা কামাল বলেন, ‘আমরা হল পরিদর্শন করেছি। কোন প্রকার অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটেনি।

[৯] সার্বিক বিষয়ে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. ইমদাদুল হক বলেন, আমাদের কিছু প্রতিবন্ধকতা ছিল। আগামী পরীক্ষাগুলোতে সকল প্রতিবন্ধকতা কাটিয়ে সুষ্ঠু ও সুন্দর পরিবেশে পরীক্ষা গ্রহণ করা হবে। যানজট নিরসনে পর্যাপ্ত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে৷

[১০] তিনি বলেন, যানজটের কারণে পরীক্ষার শুরুর নির্দিষ্ট সময় শেষেও কোন শিক্ষার্থী দেরিতে পরীক্ষা দিতে আসে তাহলে মানবিক দিক বিবেচনায় তার পরীক্ষা গ্রহণ করা হবে। এছাড়া যদের কেন্দ্রে ভুল হয়েছে তারা যদি আমাদের কেন্দ্রে পরীক্ষা দিতে আসে তাহলে আমরা তাদের পরীক্ষা নেওয়ার ব্যবস্থা করবো।

সর্বাধিক পঠিত