প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] জেলা প্রশাসকের উদ্যোগ, চর অঞ্চলের শিক্ষার্থীরা পেল স্কুল হেলথ্ কার্ড

জহিরুল ইসলাম : ‘মুজিব বর্ষে স্বাস্থ্যখাত এগিয়ে যাবে অনেক ধাপ’ এই স্লোগানে লক্ষ্মীপুরে স্কুল শিক্ষার্থীদের জন্য চালু করা হলো স্বাস্থ্যবিষয়ক স্কুল হেলথ্ কার্ড।

আজ সোমবার দুপুরে জেলার রামগতি উপজেলার প্রত্যন্ত অঞ্চল চর বাদাম ইউনিয়নের দক্ষিণ পশ্চিম চরসীতা সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ৩০৪ জন শিক্ষার্থীদের মাঝে আনুষ্ঠানিকভাবে ‘স্কুল হেলথ্ কার্ড’ বিতরণ ও স্ক্রিনিং কার্যক্রমের উদ্বোধন করা হয়।

মুজিব শতবর্ষ উপলক্ষ্যে এসডিজি-৩ঃ সকল বয়সী মানুষের জন্য সুস্বাস্থ্য ও কল্যাণ নিশ্চিত করণে লক্ষ্মীপুর জেলা প্রশাসকের উদ্যোগে প্রাথমিক ও মাধ্যমিকের শিক্ষার্থীদের জন্য এ কার্যক্রম শুরু করা হয়। এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জেলা প্রশাসক মো. আনোয়ার হোছাইন আকন্দ।

জেলা প্রশাসন ও রামগতি উপজেলা প্রশাসনের আয়োজনে এবং উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা এবং চর বাদাম ইউনিয়ন পরিষদের সহযোগিতায় অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন, সিভিল সার্জন ডা. আবদুল গফফার, স্থানীয় সরকার বিভাগের উপ-পরিচালক (ভারপ্রাপ্ত) মোহাম্মদ নূর এ আলম, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (শিক্ষা ও আইসিটি) মেহের নিগার, পরিবার পরিকল্পনা বিভাগের উপ-পরিচালক ড. আশফাকুর রহমান মামুন প্রমুখ।

অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন রামগতি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ভারপ্রাপ্ত) মোহাম্মদ আবুল হাসনাত খাঁন।

পরিচ্ছন্নতা, পুষ্টিগত অবস্থা, শারীরিক সমস্যা, দৃষ্টি পরীক্ষা, রক্তশূন্যতা, পালস্ ও হার্টবিটসহ সামগ্রিক বিষয় উল্লেখ থাকবে। স্বাস্থ্যকেন্দ্রের চিকিৎসকরা কার্ডের রিপোর্টের উপর ভিত্তি করে শিক্ষার্থীদের স্বাস্থ্যসেবা প্রদান করবেন।

জেলা প্রশাসক মো. আনোয়ার হোছাইন আকন্দ বলেন, পৃথিবীর বিভিন্ন দেশে স্কুল ভিত্তিক স্বাস্থ্য সেবা কার্যক্রম রয়েছে। ‘জনগণের দোরগোড়ায় স্বাস্থ্যসেবা’ প্রধানমন্ত্রীর এই প্রতিশ্রুতি বাস্তবায়নে আমরাও তা শুরু করেছি। শিক্ষার্থীরা যাতে শিক্ষার পাশাপাশি মানষিক ও শারীরিকভাবে বেড়ে উঠতে পারে, সে জন্য এ কার্যক্রম শুরু করা হয়েছে।

আগামী তিন মাসের মধ্যে লক্ষ্মীপুররে মাধ্যমিক ও প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সাড়ে তিন লাখ শিক্ষার্থী স্কুল হেলথ্ কার্ডের মাধ্যমে স্বাস্থ্য বিষয়ক বিভিন্ন পরামর্শ পাবেন। এই কার্ডের মাধ্যমে শিক্ষার্থীদের শারিরীক অবস্থা যাচাই করা হবে।

তাদের শারীরিক এবং পুষ্টিকর বিষয়গুলো চিহ্নিত করে সেগুলো স্বাস্থ্য কার্ডে লিপিবদ্ধ থাকবে। শারীরিক কোন সমস্যা থাকলে তাদেরকে প্রয়োজনীয় চিকিৎসা সেবার প্রদানের ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

অনুষ্ঠান শেষে শিক্ষার্থীদের স্বাস্থ্য পরীক্ষা করেন উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডা. এসএম আমির ফায়সাল।

 

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত