প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] খুলনায় জাল সার্টিফিকেট তৈরির প্রতারক চক্রে গ্রেপ্তার ২

শরীফা খাতুন: [২] খুলনা মহানগরীর বয়রা বাজারের প্রত্যাশা প্লাজার ২য় তলা থেকে জাল সার্টিফিকেটসহ ভূয়া কাগজপত্র তৈরির অভিযোগে দুই প্রতারককে গ্রেপ্তার করেছে র‌্যাব। মঙ্গলবার এঘটনায় সোনাডাঙ্গা থানায় মামলা হয়েছে।

[৩] গ্রেপ্তারকৃতরা হলেন, সোনাডাঙ্গা থানার বয়রা বাজার ১৬ নং ওয়ার্ডের মো. আব্দুর রহিম মোল্লার ছেলে ইয়াসিন হোসেন (২৮) এবং একই থানার বুড়ারবাড়ি সবুরের মোড় বয়রা বাজার সংলগ্ন এলাকার মৃত কালিপদ মন্ডলের ছেলে শীবপদ মন্ডল (৪৩)।

[৪] র‌্যাব-৬ এর একটি আভিযানিক দল সোমবার বিকাল সাড়ে ৫টার দিকে বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের জালসনদপত্র ও পরিচয়পত্র জালিয়াতি চক্রের দুই সদস্যেকে গ্রেপ্তার করে।

[৫] র‌্যাবের এক প্রেস বিজ্ঞপ্তি সূত্রে জানা যায়, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে র‌্যাব-৬ এর একটি আভিযানিক দল খুলনা মহানগরীর একটি জালিয়াতি চক্রের সন্ধান পায়। যারা বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের মার্কশীট ও সনদপত্র, জাতীয় পরিচয়পত্র, বিভিন্ন সরকারি ও বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের ভূয়া পরিচয়পত্র, জালকৃত জন্ম নিবন্ধন ইত্যাদি প্রস্তুত করে বিপুল পরিমাণ অর্থ হাতিয়ে নেয়। এছাড়াও বিভিন্ন মেডিকেল সার্টিফিকেট, ট্রেড লাইসেন্স এবং বিভিন্ন প্রকার সনদপত্র তৈরি করে দেশের সাধারণ মানুষের সাথে প্রতারণা করে আর্থিকভাবে লাভবান হয় এমন সংবাদের ভিত্তিতে র‌্যাব-৬ এর একটি চৌকশ আভিযানিক দল ওই গ্রুপটির প্রতারণামূলক কার্যক্রমের উপর নজরদারি বৃদ্ধি করে।

[৬] এরই ধারাবাহিকতায় সোমবার বিকাল আনুমানিক সাড়ে ৫টার দিকে র‌্যাব-৬ (সদর কোম্পানি) খুলনার একটি আভিযানিক দল গোয়েন্দা তথ্যের ভিত্তিতে কেএমপি খুলনার সোনাডাঙ্গা থানাধীন বয়রা বাজারস্থ প্রত্যাশা প্লাজার ২য় তলায় রনি ওয়ান লাইন সলিউশন ও অয়ন কম্পিউটার ট্রেনিং সেন্টার নামে ২টি দোকানে অভিযান পরিচালনা করে ২ জন প্রতারককে প্রতারণার বিভিন্ন উপকরণসহ হাতেনাতে গ্রেপ্তার করতে সক্ষম হয়।

[৭] এ সময় গ্রেপ্তারকৃতদের কাছ থেকে প্রতারণার কাজে ব্যবহৃত ২টি সিপিইউ, ২টি মনিটর, ২টি কিবোর্ড, ২টি মাউস, একটি স্ক্যানার, ৩টি প্রিন্টার উদ্ধার করা হয়। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে গ্রেপ্তারকৃতরা জালিয়াতি করে নাগরিকদের সাথে প্রতারণা করে এবং বিভিন্ন মানুষকে এসব সনদের প্রলোভন দেখিয়ে সর্বশান্ত করার বিষয়টি স্বীকার করে।

[৮] গ্রেপ্তারকৃতদের প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদ শেষে কেএমপি খুলনার সোনাডাঙ্গা থানায় হস্তান্তর কার্যক্রম প্রক্রিয়াধীন।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত