প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] করোনার অবসরে উদ্যোক্তা হলেন জবির আকিব

অপূর্ব চৌধুরী: [২] মহামারী করোনা ভাইরাসের প্রকোপে দেড় বছরেরও বেশি সময় ধরে বন্ধ বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাস। স্বাভাবিক শিক্ষাজীবন থেকে দীর্ঘ এই বিরতির মাঝে অনলাইন ব্যবসায় ঝুঁকে পড়েছে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের অনেক শিক্ষার্থী। তাদের মধ্যেই একজন বিশ্ববিদ্যালয়ের মনোবিজ্ঞান বিভাগের শিক্ষার্থী মোঃ আকিব হায়দার ইমন। সংকটকালীন সময়ে নিজস্ব প্রতিভা ও মেধা কাজে লাগিয়ে উদ্যোক্তা হবার শুরুটা মসৃণ না হলেও ব্যাপক চেষ্টা ও পরিশ্রমে এখন অনেকটাই সফল আকিব।

[৩] অনলাইন প্ল্যাটফর্মে ছেলেদের শার্ট, প্যান্ট, পাঞ্জাবি, জুতা সহ সব ধরনের পোশাক এবং মেয়েদের জুয়েলার্স, বোরখা,খিমার এবং জুতা নিয়ে ব্যবসা করেন আকিব। অল রাউন্ডার বিডি শপ.কম নামের ফেসবুক পেজ থেকে গত ৯ সেপ্টেম্বর থেকে আনুষ্ঠানিকভাবে এই অনলাইন ব্যবসা শুরু করেন জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের এই শিক্ষার্থী।

[৪] তবে প্রোডাক্ট মানসম্মত হওয়া, তুলনামূলক কম দাম এবং নানা রকম আকর্ষণীয় অফার থাকায় ইতিমধ্যেই ক্রেতাদের অন্যতম পছন্দের জায়গায় পৌঁছে গেছে আকিবের এই অনলাইন ব্যবসা।

[৫] আকিব বলেন, ছাত্ররা চাইলেই নিজের শখটা হুটহাট পূরণ করতে পারেনা। টাকার দিকে সবসময় তাকাতে হয়। সামর্থ্য অনুযায়ী সেই টাইপের জিনিস কোন জায়গায় পাওয়া যায় সেটা খোঁজাখোঁজি করতে হয়। নিজেদের পছন্দের কোন জিনিস কিনতে গিয়ে ছাত্রদেরকে সবসময়ই এই ভোগান্তিতে পড়তে হয়৷ এই চিন্তাটি থেকেই আমার এই অনলাইন ব্যবসা শুরু করা। এখানে সব প্রোডাক্ট এর দাম সবার নাগালের মধ্যেই রাখার চেষ্টা করেছি। তাই ছাত্র-ছাত্রী সহ সবারই তাদের পছন্দের জিনিস সহজে কিনতে পারে।

[৬] এই উদ্যোক্তা শিক্ষার্থী বলেন, বাংলার ঐতিহ্যবাহী শিল্পকেও ধরে রাখার ইচ্ছে হয়েছে। তাই ঐতিহ্যের বিভিন্ন পোশাক, বাঁশের গ্লাস, হাঁড়ি, মাটির জিনিস ও নকশিকাঁথার টাইপ জিনিসপত্রও রাখার চেষ্টা করব।

[৭] ক্রেতাদের উদ্দেশ্যে আকিব বলেন, আসলে আমি এই ব্যবসায় প্রথম। তাই সার্বিক ব্যবস্থাপনায় অনেক ভুল হতে পারে। এজন্য সবার কাছে অনুরোধ থাকবে আমাকে যেন ক্ষমাসুন্দর দৃষ্টিতে দেখেন। আমি কোয়ালিটিতে খুব বিশ্বাসী। আমি শতভাগ চেষ্টা করি যেন কোন ক্রেতার ভোগান্তি না পোহাতে হয়।

[৮] তিনি আরও বলেন, অনলাইন ব্যবসাটা অফলাইনে আনার চেষ্টা করছি। সেটা সবার সহযোগিতায় সম্ভব হবে। তবে বর্তমানের এই অনলাইন যাত্রাটা নেহাত কম আনন্দের না।

[৯] উল্লেখ্য, করোনাকালীন সময়ে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রায় শতাধিক শিক্ষার্থী স্ব-উদ্যোগে নানা রকম প্রোডাক্ট নিয়ে অনলাইন ব্যবসা শুরু করেন। তাদের অধিকাংশই অনলাইন ব্যবসায় সফল হয়েছেন।