প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] দোয়ারায় বেড়িবাঁধ সড়ক ভাঙনে মানুষের চরম ভোগান্তি

নুর উদ্দিন : [২] দোয়ারা উপজেলার সুরমা ইউনিয়নের খাসিয়ামারা নদীর পাশে আলীপুর গ্রামের বেড়িবাঁধ এবার বর্ষায় ভারত থেকে আসা পাহাড়ি ঢলে ভেঙে গেছে। যানতাম চলাচল বন্ধ রয়েছে। জরুরি ভিত্তিতে বেড়িবাঁধ সড়ক মেরামতের দাবি স্থানীয় বাসিন্দাদের।

[৩] আলীপুরের বেড়িবাঁধ যাতায়াত সড়ক হিসাবে ব্যবহার হয়ে আসছে বছরের পর বছর ধরে। সুরমা ইউনিয়নের টিলাগাঁও, আলীপুর, হাছনবাহার, কারেন্টের বাজার, টেংরা বাজার, নুরপুর, সোনাপুর প্রভৃতি এলাকা থেকে প্রতিদিন শত শত মানুষ এই বেড়িবাঁধ সড়ক দিয়ে আসা-যাওয়া করেন। যানবাহনও চলাচল করে থাকে। এই বেড়িবাঁধ সড়ক দিয়ে সোনালী নুর মানিক উচ্চ বিদ্যালয় এবং সমুজ আলী স্কুল এন্ড কলেজের শতাধিক শিক্ষার্থী চলাচল করেন।

[৪] গত বর্ষায় খাসিয়ামারা নদী দিয়ে ভারত থেকে নেমে আসা পাহাড়ি ঢলে আলীপুর গ্রামের ফসল রক্ষা বাঁধ ভেঙে যায়। এই বাঁধ ভেঙে যাওয়ায় এলাকার অনেক ঘরবাড়ি ও ফসলি জমির ক্ষতি হয়েছে। এভাবে প্রতিবছর পাহাড়ি ঢলে বেড়িবাঁধ ভেঙে এলাকার মানুষের ব্যাপক ক্ষতি হয়ে আসছে। বেড়িবাঁধ আরও অন্তত: দুই ফুট উঁচু করা হলে সহজে ভেঙে যেতো না এবং ঘর-বাড়ি ফসলি জমির ক্ষতি হতো না।

[৫] শিক্ষার্থী তাহমিনা বেগম বলেন, বেড়িবাঁধ সড়ক ভেঙে যাওয়ায় যানবাহন দিয়ে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে আসা-যাওয়া করতে পারি না।

[৬] শিক্ষার্থী জিয়া উদ্দীন বলেন, আলীপুর গ্রামের বেড়িবাঁধ সড়ক ভেঙে যাওয়ায় বাইসাইকেল ব্যবহার করতে না পেড়ে পায়ে হেঁটে সমুজ আলী স্কুল এন্ড কলেজে আসা-যাওয়া করি।

[৭] আলীপুর গ্রামের বাসিন্দা সালাম হোসেন বলেন, বেড়িবাঁধ যাতায়াত সড়ক হিসাবে ব্যবহার হয়ে আসছে বছরের পর বছর ধরে। এই সড়ক পাকাকরণ করা হলে পাহাড়ি ঢলে ভেঙে যাবে না এতে ঘর-বাড়ি, ফসলি জমি রক্ষা পাবে।

[৮] সুরমা ইউপি চেয়ারম্যান মামুনুর রশিদ বলেন, এখানকার বেড়িবাঁধ প্রতি বছর পাহাড়ি ঢলে ভেঙে যায়। এবারও ভেঙেছে। বেড়িবাঁধ পানি উন্নয়ন বোর্ড নির্মাণ করে। ভেঙে গেলেও মেরামত করে। পানি উন্নয়ন বোর্ড তাড়াতাড়ি বেড়িবাঁধের ভাঙন মেরামত না করলে মানুষের ভোগান্তি বাড়বে।

সর্বাধিক পঠিত