প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] ত্রিশালে ছেলের হাতে পিতা খুন

হারুন অর রশিদ: [২] ময়মনসিংহের ত্রিশাল উপজেলার মোক্ষপুর ইউনিয়নে আলী হোসেন (৪৭) নামে এক বদমেজাজী পিতাকে কুপিয়ে হত্যা করেছে ছেলে। অকারনেই মাকে বেদম মারধর করত বলেই ওই হত্যাকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে বলে দাবি নিহতের পরিবারের।

[৩] পুলিশ ও পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার মোক্ষপুর ইউনিয়নের মোক্ষপুর গ্রামের মৃত ওয়াহেদ আলীর ছেলে আলী হোসেন। প্রায় ২৫ বছর আগে বিয়ে করেছেন একই উপজেলার হরিরামপুর ইউনিয়নের মাগুরজোড়া গ্রামের হালিমা আক্তারকে। আলী হোসেন বিয়ের পর থেকেই হালিমার ওপর অমানবিক নির্যাতন করতেন। হালিমার বড় ছেলে আরিফ জ্ঞানবুদ্ধি হবার পর থেকে দেখে আসছে মায়ের ওপর এমন অত্যাচার নির্যাতন। বুধবার সকালেও হালিমাকে পিটিয়ে কপাল ফাটিয়ে দেয় আলী হোসেন। মারধরের পর আরিফ মাকে উদ্ধার করে স্থানীয় পল্লী ডাক্তারের কাছে চিকিৎসা গ্রহণ করে পুরান বাড়িতে নিয়ে যায়। সারাদিন নিজ বাড়ি যায়নি বলে সন্ধ্যার দিকে আবারও মারতে গেলে, রাগে-ক্ষোভে ক্ষিপ্ত হয়ে আরিফ দা দিয়ে পিতা আলী হোসেনকে কুপিয়ে হত্যা করে।

[৪] খবর পেয়ে রাত সাড়ে ১১ টার দিকে আলী হোসেনের লাশ উদ্ধার কওে ত্রিশাল থানা পুলিশ। ওই ঘটনায় বৃহস্পতিবার সকালে নিহতের ভাই আবুল কাসেম বাদী হয়ে ত্রিশাল থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। ময়নাতদন্তের জন্য নিহতের লাশ ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করেছে পুলিশ।

[৫] নিহতের স্ত্রী হালিমা খাতুন জানান, বিয়ের পর থেকেই আমার স্বামী আমার ওপর অমানবিক নির্যাতন করতো। বুধবার সকালেও আমাকে পিটিয়ে কপাল ফাটিয়ে দেয়, সন্ধ্যার দিকে আবারও মারতে গেলে, বড় ছেলে আরিফ মায়ের ওপর এমন নির্যাতন সহ্য করতে না পেরে বাবাকে আঘাত করে।

[৬] এ ব্যাপারে ত্রিশাল থানার ওসি মাইন উদ্দিন জানান, ওপর অমানবিক নির্যাতন সহ্য করতে না পেরে রাগে-ক্ষোভে ক্ষিপ্ত হয়ে আরিফ দা দিয়ে তার পিতা আলী হোসেনকে কুপিয়ে হত্যা করেছে বলে আমরা প্রাথমিকভাবে জানতে পেরেছি। আরিফ পলাতক রয়েছে। তাকে গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত