প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] মহাদেবপুরে পারিবারিক কলহের জেরে মা ছেলের আত্মহত্যা

নওগাঁ প্রতিনিধি: [২] পারিবারিক কলহের জেরে নওগাঁর মহাদেবপুরে মা ও ছেলে গ্যাসের বড়ি (কীটনাশক) সেবন করে আত্মহত্যা করেছেন। বৃহস্পতিবার বিকেলে উপজেলার সদরের হাসপাতাল মোড় এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। নিহতরা হলেন, বীরেন কুমার মন্ডলের স্ত্রী শেফালী রাণী মন্ডল (৪৮) ও তার ছেলে সুজন কুমার মন্ডল (২৭)। বীরেন কুমার মন্ডল একজন ধান-চাল ব্যবসায়ী।

[৩] স্থানীয় এলাকাবাসী ও থানা পুলিশ জানায়, দীর্ঘদিন ধরে বীরেন মন্ডল এর সাথে মা -ছেলে কলহ চলছিল। মা – ছেলের সন্দেহ বীরেন পরকিয়ার সাথে জড়িত। পরকীয়ার জেরেই এই আত্মহত্যার ঘটনা ঘটে থাকতে পারে বলে ধারনা করা হচ্ছে। প্রায় এক যুগ আগে ছেলে সুজন মোটরসাইকেল দূর্ঘটনায় আহত হলে তখন থেকে তার মা তাকে তুলে খাওয়াতেন। ধারনা করা হচ্ছে যে, তার মা নিজে গ্যাস বাড়ি সেবন করে তার ছেলেকেও সেবন করান।

[৪] বীরেন কুমার মন্ডল জানান, দুপুর আড়াইটার দিকে তার স্ত্রী তাকে ফোন করে তাড়াতাড়ি বাসায় যেতে বলেন। অন্যথায় তিনি বিষ পান করবেন বলে হুমকি দেন। আমি সে সময় ব্যক্তিগত কাজে মহাদেবপুরের বাহিরে ছিলাম । এর পর বাসায় ফিরে দেখি দরজা জানালা বন্ধ করা। এর পর জানালা ভেঙ্গে ঘরে প্রবেশ করে দেখি আমার স্ত্রী ও ছেলেকে অসুস্থ্য অবস্থায় পড়ে আছে।

[৫] প্রতিবেশিদের সহায়তায় উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যাই। তারা গ্যাসের বড়ি সেবন করেছে বলে জানতে পারি। সেখানে তাদের অবস্থার অবনতি ঘটলে নওগাঁ সদর হাসপাতালে নেওয়ার পথে বিকেল সাড়ে ৪টার দিকে ছেলে সুজন কুমার মারা যায়। আর স্ত্রীকে সদর হাসপাতালে নেয়া হলে ৫টার দিকে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

[৬] মহাদেবপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আজম উদ্দিন মাহমুদ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। তিনি বলেন, মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। মরদেহ দুটি ময়না তদন্তের জন্য বর্তমানে নওগাঁ সদর হাসপাতালে রাখা হয়েছে। পারিবারিক কলহের জের ধরে আত্নহত্যার ঘটনা ঘটতে পারে বলে ধারনা করছি। এ ব্যাপারে থানায় অপমৃত্যু মামলা দায়ের করা হবে। সম্পাদনা: সঞ্চয় বিশ্বাস

সর্বাধিক পঠিত