প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

কামরুল হাসান মামুন: ১৮ কোটি মানুষ ১০ টাকা করে দিলে বিদেশী ইনস্টিটিউটের তত্বাবধানে স্বতন্ত্র স্বাধীন ইনস্টিটিউট প্রতিষ্ঠা করা যাবে

কামরুল হাসান মামুন: কজন পদার্থিবীদ সহকর্মী বন্ধু মিলে একটি বিশ্ব মানের ইনস্টিটিউট ফর ফান্ডামেন্টাল সাইন্স প্রতিষ্ঠা করার কথা ভাবছি বেশ কিছুদিন যাবৎ। কারণ আমরা মনে করি একটি দেশকে উন্নত করতে পারে কেবল উন্নত মননের মানুষ। তাই উন্নত দেশ গড়ার প্রথম পদক্ষেপ হলো সেই মননের মানুষ তৈরির কারখানা নির্মাণ করা। একই সঙ্গে বুঝতে হবে যে দেশ উন্নয়নের প্রথম ধাপ প্রযুক্তি নয় বরং বিজ্ঞান কারণ প্রযুক্তির রসদ আসে তত্বীয় বিজ্ঞান থেকে। তত্বীয় বিজ্ঞানহীন প্রযুক্তি কেবল টেকনিশান বানাতে পারে। তত্বীয় বিজ্ঞান বলা যায় মস্তিষ্কের জিমনাসিয়াম। তত্বীয় বিজ্ঞান করতে খরচ কম লাভ বেশি।
তাই একটা স্বাধীন বিশ্বমানের ইনস্টিটিউট করতে হলে বিশ্বমানের বেতন এবং পরিবেশ দিতে হবে। ব্যতিক্রমী উন্নত মানুষ আনতে হলে ব্যতিক্রমী সুযোগ সুবিধা বেতন দিতে হবে। বর্তমান কাঠামোতে বাংলাদেশের কোন পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনে কোন ইনস্টিটিউট করলে সেই উন্নত বেতন আর উন্নত সুযোগ সুবিধা দেওয়া সম্ভব না। তাই স্বনামধন্য কোন বিদেশী ইনস্টিটিউটের তত্বাবধানে একটি স্বতন্ত্র স্বাধীন ইনস্টিটিউট করতে হবে। যেই ইনস্টিটিউটটিতে থাকবে আন্তর্জাতিক মানের থাকা খাওয়ার সুন্দর ব্যবস্থা এবং থাকবে মনোরম পরিবেশ।

এইরকম একটি ইনস্টিটিউট করতে হলে অনেক টাকার দরকার। দেশের ১৮ কোটি মানুষ যদি ১০ টাকা করে দান করে তাহলেইতো ১৮০ কোটি টাকা হয়ে যায় যা দিয়ে কাঙ্খিত ইনস্টিটিউট তৈরির প্রাথমিক কাজ করে কিছু টাকা ইনভেস্ট করে সেখান থেকে অর্জিত লাভ দিয়ে আনুসাঙ্গিক খরচ মেটানো যাবে। যদিও আমরা মনে করি এর চেয়েও বেশি ডোনেশন পাওয়া সম্ভব। অনেকেই অনেক বড় বড় দানও করতে পারেন। বিদেশে আমাদের অনেক বাঙালি আছেন যারা দেশের জন্য কিছু করতে চান তারাও এই প্রক্রিয়ায় অংশগ্রহণ করতে পারেন। এইরকম কিছু একটা করা আপাত অসম্ভব মনে হলেও ভবিষ্যৎ প্রজন্মের কথা ভেবে আমাদেরকে এই অসম্ভবকেই সম্ভব করতে হবে।

লেখক: শিক্ষক, পদার্থবিজ্ঞান বিভাগ, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়

 

 

সর্বাধিক পঠিত