প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] আফগানিস্তানের পর এ বছরের শেষ নাগাদ ইরাকও ছাড়ছে মার্কিন কমব্যাট সেনারা

সালেহ্ বিপ্লব, আসিফুজ্জামান পৃথিল: [২] হোয়াইট হাউজে ইরাকি প্রধানমন্ত্রী মুস্তাফা আল-খাদেমির সঙ্গে বৈঠকের পর এই ঘোষণা দেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট বাইডেন। সোমবার বাইডেনের সঙ্গে খাদেমির বৈঠকে ইরাকে আর বিদেশি কমব্যাট সেনার প্রয়োজন নেই বলে মার্কিন প্রেসিডেন্টকে জানান ইরাকি প্রধানমন্ত্রী। বিবিসি

[৩] বাইডেন জানান, ইরাকে নতুন পর্যায় শুরু হবে সেনা প্রত্যাহারের পর। তবে মার্কিন সামরিক সহায়তা অবশ্যই অব্যাহত রাখা হবে। ইরাকি প্রধানমন্ত্রী জানান, এখন দেশের সম্পর্ক আগের যেকোনো সময়ের চেয়ে শক্তিশালী। ইরাকে বর্তমানে প্রায় আড়াই হাজার মার্কিন সেনা রয়েছে। তারা জঙ্গিগোষ্ঠী ইসলামিক স্টেটকে মোকাবিলায় স্থানীয় বাহিনীগুলোকে সহায়তা করছে। নিউ ইয়র্ক টাইমস

[৪] বাইডেনের ঘোষণার পরও ইরাক একই সংখ্যাক মার্কিন সেনা থাকতে পারে। তারা ইরাকি সেনাবাহিনীকে প্রশিক্ষণ ও পরামর্শ দেবে। তবে তারা কমব্যাট সেনা বা লড়াকু সেনা হবে না। তারা চিকিৎসা, প্রশিক্ষণ বা ইঞ্জিনিয়ারিং কোরের সদস্য হতে পারে। এনবিসি

[৫] আইএসের বিরুদ্ধে আন্তর্জাতিক জোটের লড়াইয়ের অংশ হিসেবে ২০১৪ সালে ইরাকে সর্বশেষ মার্কিন সেনা মোতায়েন করা হয়েছিল। মোতায়েন করা সেনাদের মধ্যে বেশির ভাগ সদস্যকে সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প প্রত্যাহার করে নেন। বাগদাদ প্রায় তিন বছর আগে ঘোষণা দেয় যে ইরাকে আইএস পরাজিত হয়েছে। তবে দেশটিতে এখনো আইএস সক্রিয় রয়েছে। তারা প্রায়শই রক্তক্ষয়ী হামলা চালাচ্ছে।

 

সর্বাধিক পঠিত