প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] মাহমুদউল্লাহর অবসরের ঘোষণায় সতীর্থদের‘গার্ড অব অনার, বিসিবি জানে না কিছুই

মাহিন সরকার : [২] হারারে টেস্টের পঞ্চম দিনে মাঠে নামার আগে সতীর্থদের কাছ থেকে গার্ড অব অনার পেলেন মাহমুদউল্লাহ

[৩] টেস্ট ক্রিকেট থেকে অবসরের সিদ্ধান্ত সতীর্থদের জানিয়েছিলেন মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। আজ তারা মাহমুদউল্লাহকে গার্ড অব অনার দিয়েছেন। চোখের সামনে এসব হয়ে গেলেও বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি) জানে না কিছুই। বিসিবির পরিচালক ও মিডিয়া কমিটির চেয়ারম্যান জালাল ইউনুস জানান, বিসিবি এসবের কিছুই জানে না। জিম্বাবুয়েতে এমন কিছু হতে পারে সেই ধারনাও ছিল না কারো। রাইজিংবিডি

[৪] জানা গেছে, হারারে টেস্টের তৃতীয় দিনের খেলা শেষ হওয়ার পর ড্রেসিংরুমে মাহমুদউল্লাহ সতীর্থদের নিজের অবসরের কথা জানান। তবে আনুষ্ঠানিক ঘোষণা এখনও আসেনি। রোববার পঞ্চম দিন সকালে সতীর্থরা তাকে গার্ড অব অনার দিয়েছেন। ড্রেমিংরুম থেকে মাঠে প্রবেশের পথে তামিম, সাকিব, মুমিনুল, লিটনরা দুই পাশে দাঁড়িয়ে তাকে সম্মান জানান। মাহমুদউল্লাহ হাসিমুখে কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন।

[৫] জালাল ইউনুস বলেন, আমরাও টিভিতে দেখেছি মাহমুদউল্লাহকে গার্ড অব অনার দিয়েছে। কিন্তু বিসিবি এসবের কিছুই জানে না। আমরা জিম্বাবুয়েতে খোঁজ নেব। বিসিবি প্রেসিডেন্ট আছেন, ক্রিকেট অপারেশন্স আছে। তাদের সঙ্গে কথা বলবো কিভাবে কী হলো।

[৬] এদিকে টেস্ট চলকালীন অবসরের সিদ্ধান্ত জানানো এবং গার্ড অব অনারের মতো প্রক্রিয়া চলায় ক্ষুব্ধ বিসিবির এক পরিচালক। তিনি বলেন, ধারাবাহিক সাফল্য পাচ্ছে তাদের এসব মানায়। টেস্টে আমাদের বলার মতো অর্জন নেই। [৭] দল যখন একটু ভালো করছে তখন এসব সিদ্ধান্ত তাও খেলা চলাকালীন মোটেও উচিত হয়নি। দেখেন এক সকালেই তিনটা ক্যাচ মিস। কোনো প্রভাব নেই বলতে পারবেন?

[৮] হারারে টেস্টের আগে ২০২০ সালের ফেব্রæয়ারিতে পাকিস্তানের বিপক্ষে সবশেষ টেস্ট খেলেছিলেন মাহমুদউল্লাহ। এরপর দল থেকে বাদ পড়েন। তাকে সাদা পোশাকে আর বিবেচনায় আনেনি টিম ম্যানেজমেন্ট। পাশাপাশি গত বছর লাল বলের কেন্দ্রীয় চুক্তিতেও তাকে রাখেনি বিসিবি।

[৯] ১৬ মাস পর এই ম্যাচ দিয়ে টেস্ট দলে ফেরেন মাহমুদউল্লাহ। ফিরেই বাজিমাত। দলকে খাদের কিনারা থেকে উদ্ধার করে ১৫০ রানের ঝকঝকে ইনিংস খেলেন। কিন্তু জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে ম্যাচটাই ক্যারিয়ারের শেষ ম্যাচ হয়ে রইল।

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত