প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] ঔপনিবেশিক মনোভাব থেকেই নিম্ন আয়ের দেশগুলোকে টিকা দিতে চাইছে না ধনী দেশগুলো, বললো বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা

লিহান লিমা: [২] টিকা নিয়ে বৈশ্বিক অংশীদারিত্বের ব্যর্থতার তীব্র নিন্দা জানিয়ে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার প্রধান টেড্রোস আধানম গেব্রেয়েসুস বলেন, ‘ধনী দেশগুলো এখন কমবয়সী ও করোনার কম ঝুঁকি থাকা ব্যক্তিদের টিকা দিচ্ছে, অন্যদিকে দরিদ্র দেশগুলো টিকাশূন্য হয়ে রয়েছে। পূর্ববর্তী সপ্তাহের চাইতে গত সপ্তাহে আফ্রিকায় করোনায় নতুন সংক্রমণ ও মৃত্যু ৪০ শতাংশ বেড়েছে। ‘ভয়ঙ্কর ডেল্টা ধরন’ বিশ্বজুড়ে ছড়িয়ে পড়েছে।’ টাইমস অব ইন্ডিয়া

[৪] সংবাদ সম্মেলনে ক্ষোভ প্রকাশ করে তিনি বলেন,‘এই বিশ্ব ব্যর্থ হয়েছে, বিশ্ব সম্প্রদায় হিসেবে আমরা ব্যর্থ হয়েছি।’ নাম প্রকাশ না করে তিনি বলেন, ধনী কয়েকটি দেশ নিম্ন আয়ের দেশগুলোকে টিকা দিতে ইচ্ছুক নয়। তিনি এটিকে এইচআইভি/এইডস এর সঙ্গে তুলনা করে বলেন, ওই সময় কিছু দেশ বলেছিলো, আফ্রিকান দেশগুলো এই জটিল চিকিৎসা পদ্ধতি ব্যবহার করতে পারবে না। টেড্রোস বলেন, ‘আমি বলতে চাইছি এটি অতীতের কথা ছিলো। বর্তমানের সমস্যা শুধু সরবরাহের, আমাদের শুধু টিকাটা দিন। টিকা আছে আর টিকা নেই এই দুইয়ে পার্থক্যই এখন বর্তমান বিশ্বে অবিচার ও বৈষম্যকে আঙ্গুল দিয়ে দেখিয়ে দিচ্ছে।’

[৫] হু এর জরুরি বিভাগের শীর্ষ প্রধান মাইক রায়ান বলেন, অনেক অনুন্নত দেশ শিল্পোন্নত দেশের চাইতেও নিজেদের জনসাধারণকে গণহারে কলেরা ও পোলিওর মতো সংক্রমক রোগের টিকা দানে এগিয়ে রয়েছে। আর এখন স্বৈরতান্ত্রিক ও ঔপনৈবেশবাদী মানসিকতা থেকে বলা হচ্ছে ‘আমরা তোমাদের কিছু দিতে চাই না কারণ আমরা আশঙ্কা করছি তোমরা এটি ব্যবহার করতে পারবে না।’ মহামারীর এই মধ্যভাগে এসে এ কথাটা সত্যিই আশ্চর্যজনক।

[৬] গত ফেব্রুয়ারি থেকে হু এর বৈশ্বিক উদ্যোগ কোভ্যাক্সের মাধ্যমে এ পর্যন্ত বিশ্বের ১৩২টি দেশে ৯ কোটি ডোজ টিকা দেয়া হয়েছে। কিন্তু ভারত টিকা রপ্তানি বন্ধ করে দেয়া বড় ধরনের সরবরাহ সংকট তৈরি হয়েছে। হু এর জ্যেষ্ঠ পরামর্শক ব্রুস অ্যালিওয়ার্ড বলেন, ‘কোভ্যাক্সের মাধ্যমে আমরা এই মাসে অ্যাস্ট্র্যাজেনেকা, সেরাম ও জনসনের এক ডোজ টিকাও দিতে পারি নি। পরিস্থিতি হলো, আমরা এখন রিক্তহস্ত।’

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত