প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

গুলশানে গৃহবধূর রহস্যজনক মৃত্যু, হত্যা নাকি আত্মহত্যা!

নিউজ ডেস্ক: রাজধানীর গুলশানে একটি বাড়ির ফাঁকা জায়গা থেকে ইসরাত জাহান মিতু (২৮) নামে এক গৃহবধূর মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। সোমবার (১৪ জুন) দুপুরে গুলশান ২ এর ৬৯ নম্বর রোডের ৯ নম্বর বাড়ির পাশে অবস্থিত সুইমিংপুলের কাছে মরদেহটি পড়ে থাকতে দেখেন স্থানীয়রা।

ইসরাত জাহান মিতু নাঈম আহমেদ রাতুলের স্ত্রী। নিহতের শ্বশুরের নাম ফরিদ আহমেদ ভূঁইয়া। তিনি আরপি কনস্ট্রাকশনের মালিক। তবে এটা হত্যা নাকি আত্মহত্যা এ বিষয়ে কোনো তথ্য জানায়নি পুলিশ।

গুলশান থানার পরিদর্শক (তদন্ত) আমিনুল ইসলাম বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, গুলশানের ৬৯ নম্বর রোডের ৯ নম্বর বাড়ির ৯তলায় থাকতেন তারা। বিকেলের দিকে খবর আসে ওই ভবন থেকে পড়ে একজন মারা গেছেন। পরে গুলশান থানার একটি মোবাইল টিম ঘটনাস্থলে গিয়ে নিহতের মরদেহ উদ্ধার করে।

এ বিষয়ে গুলশান থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবুল হাসান বলেন, আমরা ভবনের নিচ তলায় সুইমিংপুলের পাশে তার মরদেহ পড়ে থাকতে দেখেছি। আমরা ধারণা করছি উপর থেকে পড়ে তার মৃত্যু হয়েছে। তবে আত্মহত্যা নাকি হত্যা, কিংবা দুর্ঘটনা কি না তা এখনো নিশ্চিত নয়। আমরা মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য শহীদ সোহরাওয়ার্দী মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠিয়েছি।

নিহতের পারিবারিক পরিচয় জানতে চাইলে বনানী থানার ওসি বলেন, আমরা এখন পর্যন্ত জানতে পেরেছি নিহতের শ্বশুর ফরিদ উদ্দিন ভূঁইয়া আরপি নামে একটি কনস্ট্রাকশন কোম্পানির মালিক। সেই কোম্পানির পরিচালক নিহত নারী ও তার স্বামী। মিতুর দুই ছেলে ও এক মেয়ে রয়েছে। ঘটনার সময় তার স্বামী বাসায় ছিলেন বলেও জানতে পেরেছি।

নিহত নারীর বাবার বাড়ির বিষয়ে কোনো তথ্য আছে কি না জানতে চাইলে তিনি বলেন, এখন পর্যন্ত তাঁর পৈত্রিক সূত্রে কোনো আত্মীয়ের খোঁজ আমরা পাইনি।

সূত্র : ঢাকা পোস্ট

সর্বাধিক পঠিত