শিরোনাম
◈ যড়যন্ত্র না থাকলে পদ্মা সেতুতে বিশ্ব ব্যাংকের অর্থায়ন বন্ধ হলো কেন, প্রশ্ন হাইকোর্টের ◈ শিমুলিয়া ঘটে প্রায় ২০০ বাইক নিয়ে ছাড়লো ফেরি ◈ ‘সুপ্রিম কোর্টের ১২ বিচারপতি করোনায় আক্রান্ত’ ◈ প্রথম ১৫ ঘণ্টায় পদ্মা সেতুতে আয় দেড় কোটি টাকা ◈ বিশ্ব গণমাধ্যমে পদ্মা সেতু: জাতির গর্ব ও সামর্থ্যের প্রতীক  ◈ পদ্মা সেতুর জন্য প্রধানমন্ত্রীকে অভিনন্দন জানিয়েছে এশিয়ার ৫ দেশ ◈ নাশকতাই ছিলো পটুয়াখালী ছাত্রদল কর্মী বাইজীদের উদ্দেশ্য: সিআইডি ◈ পদ্মা সেতুতে প্রথম দিনেই মোটরসাইকেল দুর্ঘটনায় দুই প্রাণহানি ◈ জাতিসংঘে র‌্যাপোটিয়ারের দাবি অর্থহীন: তথ্যমন্ত্রী ◈ খালেদা জিয়ার সঙ্গে দেখা করতে বাসভবনে দুই নাতনি

প্রকাশিত : ১০ জুন, ২০২১, ০১:৪৫ দুপুর
আপডেট : ১০ জুন, ২০২১, ০১:৪৫ দুপুর

প্রতিবেদক : নিউজ ডেস্ক

[১] গত ২০ বছরে বিশ্বজুড়ে প্রথমবারের মতো বেড়েছে শিশুশ্রম

লিহান লিমা: [২] ইউনিসেফ ও আইএলও জাতিসংঘের এই দুই সংস্থার প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, গত দুই দশকে এই প্রথমবারের মতো শিশুশ্রম বেড়েছে এবং করোনা ভাইরাস মহামারী আরো লাখ লাখ শিশুকে একই পরিণতির দিকে ঠেলে দেয়ার হুমকি সৃষ্টি করেছে। গার্ডিয়ান

[৩] যৌথ প্রতিবেদনে আন্তর্জাতিক শ্রম সংস্থা (আইএলও) ও জাতিসংঘের শিশু সংস্থা (ইউনিসেফ) জানায়, ২০২০ সালের শুরুতে বিশ্বজুড়ে শিশুশ্রমিকের সংখ্যা ছিলো ১৬ কোটি। গত চার বছরে ৮৪ লাখ শিশুশ্রমিক বেড়েছে। এই শিশুশ্রমিকদের অর্ধেকেরও বেশির বয়স মাত্র ৫ থেকে ১১ বছর।

[৪] মহামারী মারাত্মক আকার ধারণ করার পূর্বেই শিশুশ্রমিকের এই হার বাড়তে থাকে। যেখানে কি না ২০০০ সাল থেকে ২০১৬ সাল পর্যন্ত শিশুশ্রমের সংখ্যা ৯ কোটি ৪০ লাখ হ্রাস পেয়েছিলো। ইউনিসেফ প্রতি ৪ বছর পরপর এই প্রতিবেদন প্রকাশ করে।

[৫] প্রতিবেদনে বলা হয়, একদিকে যেমন করোনা মহামারী বেড়েছে একই সময়ে বিশ্বের ১০জনের মধ্যে একজন শিশু শিশুশ্রমের যাঁতাকলে পড়েছে। সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে সাব-সাহারা আফ্রিকার দেশগুলো। এই সংস্থাগুলো জানায়, যদি দারিদ্র্যে নিমজ্জিত হওয়া পরিবারগুলোকে আর্থিক সংকট থেকে উত্তরণে সহায়তা করা না যায় তবে আরো ৫ কোটি শিশু আগামী দুই বছরে শিশু শ্রমের কবলে পড়বে।

[৬] ইউনিসেফের প্রধান হেনরিয়েটা ফরে বলেন, ‘আমরা শিশুশ্রমের বিরুদ্ধে লড়াইয়ে হেরে গিয়েছে। করোনা মহামারী এই পরিস্থিতিকে আরো খারাপ করেছে। এখন দ্বিতীয় বছরের মতো বিশ্বব্যাপী লকডাউন বলছে, যার ফলে স্কুলগুলো বন্ধ রয়েছে, অর্থনৈতিক অগ্রগতি বাধাগ্রস্ত হচ্ছে, জাতীয় বাজেট সংকুচিত হচ্ছে ও পরিবারগুলো হৃদয়বিদারক সিদ্ধান্ত নিতে বাধ্য হচ্ছে।’

  • সর্বশেষ