প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] করোনা মোকাবেলায় মালদ্বীপ, ভারতের পর এবার নেপালকে প্রয়োজনীয় ওষুধ ও স্বাস্থ্য সুরক্ষা সামগ্রী দিল বাংলাদেশ

কূটনৈতিক প্রতিবেদক:[২] মঙ্গলবার দুপুরে রাষ্ট্রিয় অতিথি ভবন পদ্মায় ঢাকায় নিযুক্ত নেপালের রাষ্ট্রদূত ডা. বনশিধর মিশ্র’র কাছে ওষুধ ও স্বাস্থ্য সুরক্ষা সামগ্রী হস্তান্তর করেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন ও স্বাস্থ্য মন্ত্রী।

[৩] এসবের মধ্যে পাঁচ হাজার রেমডিসিভির, ফেস সিল্ড, পিপিপি ও বেশকিছু ওষুধ সামগ্রী ছিল।

[৪] বিশ্বব্যাপী করোনা পরিস্থিতি মোকাবিলার অংশ হিসেবে এই সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দিয়েছে বাংলাদেশ।

[৫] এর আগে গতবছরের ৯ মে করোনা মোকাবিলায় মালদ্বীপে ওষুধ, জীবানুনাশক ও সুরক্ষা সরঞ্জাম পাঠায় বাংলাদেশ।

[৬] প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বন্ধুত্বের নিদর্শন হিসেবে বন্ধুপ্রতিম মালদ্বীপের প্রেসিডেন্ট ইব্রাহীম মোহাম্মদ সলিহ এর কাছে সে সময় জরুরি ওষুধ, চিকিৎসা ও নিরাপত্তা সামগ্রী পাঠানোর সিদ্ধান্ত নেন।

[৭] এসব সামগ্রীর মধ্যে ছিলো ২০ হাজার পিপিই, পাঁচ হাজার হ্যান্ড স্যানিটাইজার, ৯৬০ টি নিরাপত্তা চশমা ও ৪০ কার্টন জরুরি ওষুধ। পাশাপাশি প্রায় ৮৫ টন খাদ্য সামগ্রীও পাঠানো হয়।

[৮] এরই ধারাবাহিকতায় দ্বিতীয় দেশ হিসেবে চলতি বছরের ৫ মে বেনাপোল সীমান্ত দিয়ে প্রথম দফায় ১০ হাজার রেমডিসিভির পাঠায় বাংলাদেশ।

[৯] আরো ১০ হাজার অ্যান্টিভাইরাল ইনজেকশন ও মুখে গ্রহণের ওষুধ, ৩০ হাজার পিপিই, কয়েক হাজার জিংক, ক্যালসিয়াম, ভিটামিন সি ও অন্যান্য প্রয়োজনীয় ট্যাবলেট পাঠানো হবে বলে জানিয়েছে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়।

[১০] পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন বলেন, ভারতের বেশ কয়েকটি প্রদেশ থেকে সহযোগিতা চাওয়া হয়েছে, আমরা তাদেরকে দেশটির কেন্দ্রীয় সরকারের অনুমতি নিতে বলেছি। তারা যদি অনুমতি পায়, তখন আমরা সহযোগিতা করবো।

[১১] দায়িত্বশীল সূত্র বলছে, পর্যায়ক্রমে অন্যান্য জরুরি ওষুধ ও চিকিৎসা সরঞ্জাম পাঠানো হবে এবং প্রয়োজনে ভারতকে আরও সহায়তা দিতে আগ্রহী বাংলাদেশ । দেশটি তাদের যে চাহিদাপত্র দিয়েছে সেটি নিয়েও কাজ করছে ঢাকা।

[১২] করোনা সংক্রমণের বিস্তারে ভারতে মানুষের মৃত্যুতে বাংলাদেশ সরকার এরই মধ্যে গভীর দুঃখ ও সমবেদনা প্রকাশ করেছে। ভারতের জনগণের দুর্ভোগ যাতে লাঘব হয়, সে জন্য বাংলাদেশের জনগণ প্রার্থনা করছে।

[১৩] সংকটময় এই পরিস্থিতিতে বাংলাদেশ তার ঘনিষ্ঠ প্রতিবেশীদের পাশে আছে উল্লেখ করে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় বলেছে, মানুষের জীবন বাঁচানোর সম্ভাব্য সব উপায়ে সহায়তা দিতে বাংলাদেশ প্রস্তুত রয়েছে।

[১৪] জরুরি ওষুধ পাঠানোর ঘোষণায় ঢাকার ভারতীয় হাইকমিশন বাংলাদেশকে ধন্যবাদ জানিয়ে টুইটে বলেছে, বাংলাদেশ-ভারত একসঙ্গে এ মহামারি জয় করবে।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত