প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

নজরুল কবীর: সরকারের ‘সবুজ সংকেত’, তারপরও ঈদের আগে খালেদা জিয়ার বিদেশ যাত্রা অনিশ্চিত?

নজরুল কবীর: সরকারের ‘সবুজ সংকেত’, তারপরও খালেদা জিয়ার বিদেশ যাত্রা অনিশ্চিত। পাসপোর্টে প্রদানের শর্ত  শিথিল করে বিনা ফিঙ্গার প্রিন্ট ও বিনা স্বাক্ষরেই খালেদা জিয়ার নতুন এমআরপি পাসপোর্ট প্রদানে ব্যবস্থা নিচ্ছে সরকার। ২০১৯ সালে খালেদা জিয়ার পাসপোর্টের মেয়াদ  শেষ হয়ে গেলেও তা নবায়নের উদ্যোগ নেওয়া হয়নি পরিবার বা দলের পক্ষ থেকে। যদ্দুর জানা গেছে, খালেদা জিয়ার বিদেশে চিকিৎসা নেওয়ার ব্যাপারে সরকার সবুজ সংকেত মিলেছে। দু’একদিনের মধ্যেই সিদ্ধান্ত হবে। তবে খালেদা জিয়ার বিদেশ যাওয়া অনিশ্চিত। কারণ বিশ্ব জুড়ে করোনা পরিস্থিতির কারণে যুক্তরাজ্য ও সিঙ্গাপুর বাংলাদেশের জনসাধারণের গমানগমনে নিষেধাজ্ঞা দিয়ে রেখেছে। বৃহস্পতিবার এ ধারায় যুক্ত হয়েছে মালেয়শিয়া ও ফিলিপাইন। এমনকি সৌদিআরবও শর্ত আরোপ করেছে। সৌদি আরবের শর্ত অনুযায়ী বাংলাদেশ থেকে কোভিডমুক্ত সার্টিফিকেট নিত হবে এবং কোভিডমুক্ত হওয়ার পর ১৪ দিন পার হতে হবে।

এছাড়া অবশ্যই টিকা গ্রহণ করতে হবে দুই ডোজ। এক ডোজ টিকা নিলে এ ক্ষেত্রেও অবশ্যই ১৪ দিন পার হতে হবে টিকা নেওয়ার। টিকা ছাড়া সংশ্লিষ্ট দেশের কেউ সৌদিতে যেতে পারবেন না। ফলে খালেদা জিয়া বিদেশ চিকিৎসা নিতে সরকারি অনুমতি পেলেও সহসাই তা কার্যকর হচ্ছে না। পরিবার সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, আবেদনে কোনো সুনির্দিষ্ট দেশ উল্লেখ না করলেও, তারা আপাতত দুবাই যাওয়ার উদ্যোগ নিচ্ছেন। পরে সেখান থেকে যে দেশে গেলে যথাযথ চিকিৎসা পাবেন, তার অনুমতির চেষ্টা করা হবে। অন্য একটি সূত্র বলছে, পাসপোর্ট হাতে পাওয়ার পর খালেদা জিয়ার ভিসার জন্য সিঙ্গাপুর, যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য ও মালেয়শিয়ার হাইকমিশনে আবেদন করা হবে বা একাধিক দেশের ভিসা নেওয়া হবে। তবে ঈদের আগে খালেদা জিয়ার বিদেশে যাওয়া অনিশ্চিত বলা যায়। ফেসবুক থেকে

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত