প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

শুধু অভিনয়ই নয়, নাচের ক্ষেত্রেও অনন্য শাবনূর, বললেন কোরিওগ্রাফার একে আজাদ

ইমরুল শাহেদ: ঢাকার চলচ্চিত্রের এক সময়ের খ্যাতিমান অভিনেত্রী শাবনূর চলচ্চিত্র পেশাকে পাশে ঠেলে প্রবাস জীবন বেচে নিয়েছেন। বর্তমানে অস্ট্রেলিয়া রয়েছেন তিনি। দেশের কারো কারো সঙ্গে তার ক্ষীণ যোগাযোগ থাকলেও গণমাধ্যমের তেমন কারো সঙ্গে যোগাযোগ নেই। দু’একজনের সঙ্গে মাঝে মধ্যে যোগাযোগ হলে তার ছিঁটেফোটা সংবাদ আকারে প্রকাশ পায়।

কিন্তু শাবনূর চলচ্চিত্রে অনুপস্থিত থাকলেও তিনি আলোচনার বাইরে নন। কোনো না কোনো কারণে ঘুরেফিরেই আলোচনায় চলে আসেন। নৃত্যপরিচালক একে আজাদ নাচ নিয়ে কথা বলতে গিয়ে এ রিপোর্টারকে বলেন, ‘শাবনূর শুধু একজন তুখুড় অভিনেত্রীই নন, তিনি একজন ভালো নাচের শিল্পীও। তাকে একবার বলা হয়েছিল তাল লয় ঠিক রেখে গানের একটি কলির সঙ্গে ঠোট মেলাতে মেলাতে এসে মায়ের কোলে মাথা রাখতে হবে।

কিন্তু স্পেস যেমন সীমিত তেমনি টাইমিংও একেবারেই কম। অথচ কাজটা বড়। একজন দক্ষ অভিনেত্রী ও নাচিয়ে শিল্পী না হলে সেটা করা সম্ভব নয়। তিনি কোনো প্রকার রিহার্সাল ছাড়াই প্রথম শটেই কাজটা সন্তোষজনকভাবে করে ফেললেন।’ আজাদ বলেন, ‘শাবনূরের এই দক্ষতায় আমরা সবাই হতবাক হয়ে গেলাম।’ তিনি বলেন, ‘আমি নাচের একটি স্কুল পরিচালনা করি।

নতুনদের মধ্যে এমন মনোযোগী কাউকে পাওয়া যাচ্ছে না। আমি যখন ওস্তাদ আমির হোসেন বাবুর সহকারী ছিলাম তখন থেকেই শাবানা থেকে শাবনূরদের প্রজন্মের তারকাদের সঙ্গেও কাজ করেছি। একক নৃত্যপরিচালক হওয়ার পর আমি প্রায় সব তারকারই নৃত্য পরিচালনা করেছি। কিন্তু শাবনূরের মতো কাউকে পাইনি।

তবে অনেকেই ভালো নাচেন। মৌসুমী এবং পপিও খু¦ব ভালো নাচেন। তাদের পরে যারা রয়েছেন, তারা অভিনয় পেশার অনিবার্য অংশ হিসেবে নাচ নিয়ে কেউ অনুশীলন করেন না। যদি কেউ নাচের প্রতি মনোযোগী হন এবং নাচটাকে ভালোভাবে রপ্ত করেন তাহলে তিনি ভালো একজন অভিনেত্রী হতে বাধ্য।’ মুম্বাইয়ের হেমা মালিনী এবং মাধুরী দিক্ষীত প্রথমে নাচের শিল্পী পরে তারা অভিনেত্রী। চলচ্চিত্রে এসে খ্যাতিমান হতে সময় লাগেনি তারা।

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত