প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

যশোরে যুবককে মারপিটে ছিনিয়ে নেয়া মোটরসাইকেল উদ্ধার, আটক ১

জাহিদুল কবির: যশোরে হাফিজুর রহমান (২৪) নামে এক যুবককে মারপিটে জখম করে মোটরসাইকেল ছিনিয়ে নেয়া এবং মুক্তিপণ দাবির অভিযোগে কোতয়ালি থানায় মামলা হয়েছে। হাফিজুর শহরতলীর পুলেরহাটি কৃষ্ণবাটি ত্রিশঘরের উত্তরপাশের মৃত সিরাজুল ইসলামের ছেলে।
পুলিশ ছিনিয়ে নেয়া মোটরসাইকেলসহ আকাশ হোসেন হৃদয় (২২) নামে এক আসামিকে আটক করেছে। সে শহরতরীর পুলেরহাট কৃষ্ণবাটি সার্ভিসিং এর বিপরীতে মৃত আব্দুল ওহাবের ছেলে।

মামলার অপর আসামিরা হলো, চাঁচড়া রায়পাড়া ইসমাইল কলোনীর ফারুক পকেটমারের ছেলে কুদরত আলী (২৮), খালিদ কাজীর ছেলে ইমন ওরফে গুন্ডা ইমন (২২), কৃষ্ণবাটি এলাকার মৃত আবুল হোসেনের ছেলে মনা (৩০), চাঁচড়া রায়পাড়ার আব্দুস সামাদের ছেলে রবি (২৪) এবং মন্ডলগাতী গ্রামের টুটুল।

সোমবার (২৬ এপ্রিল) হাফিজুর রহমান দায়েরকৃত এজাহারে উল্লেখ করেছেন, গত ১৯ এপ্রিল সন্ধ্যা পৌনে ৭টার দিকে তিনি তার ব্যবহৃত মোটরসাইকেলটি নিয়ে পুলেরহাট আকিজ পেট্রোল পাম্পের সামনে যান। সেখানে গেলে আসামিরা তার পথরোধ করে এবং মারপিটে জখম করে।

আসামিরা তার প্যান্টের পকেট থেকে ১৮ হাজার ৭শ টাকা কেড়ে নেয়। এরপর তার মোটরসাইকেলটি এক কেড়ে নেয়। আসামিদের একটি মোটরসাইকেলে উঠিয়ে খোলাডাঙ্গা সার গোডাউনের ভেতরে নিয়ে গিয়ে অবৈধভাবে আটকে রাখে। এবং মারপিট করতে থাকে। সে সময় বলা হয় ‘তোর মোটরসাইকের নিতে হলে ২ লাখ টাকা চাঁদা দিতে হবে।’ এরপর চাকু দেখিয়ে হত্যার হুমকি দিয়ে আসামিরা একটি মোটরসাইকেলে উঠিয়ে তাকে শার্শার নাভারণ এলাকার একটি ফাঁকামাঠে নিয়ে যায়। সেখান থেকে ফের রাত ১টার দিকে মন্ডলগাতী গ্রামের একটি আমবাগানে নিয়ে আসে এবং মারপিট করে। এবং ‘বলে চাঁদার ২ লাখা টাকা নিয়ে মোটরসাইকেল নিয়ে যাবি’। এই বলে ছেড়ে দেয়। তিনি বাড়িতে ফিরে অসুস্থ হয়ে পড়েন এবং পরিবারের সদস্যরা তাকে যশোর জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করে।

এ বিষয়ে কোতয়ালি থানার এসআই সাব্বির হাসান জানিয়েছেন, এই ঘটনায় মামলা হওয়ার পর পুলিশ সোমবার ভোরে অভিযান চালিয়ে হৃদয়কে আটক করে তার বাড়ি থেকে। সেই সাথে তার কাছ থেকে ছিনিয়ে নেয়া মোটরসাইকেলটি জব্দ করা হয়েছে। আটক হৃদয়কে সোমবার আদালাতের মাধ্যমে জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত