প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] পটিয়ায় রাতে অবৈধভাবে মাটি কাটাকে কেন্দ্র করে আওয়ামী লীগ নেতার ওপর হামলা

চট্টগ্রাম প্রতিনিধি : [২] পটিয়া বড়লিয়া মৌলভী হাট সৈয়দ বাড়ি এলাকায় স্থানীয় ইউপি সদস্য সৈয়দ জাবেদ সরোয়ার অবৈধভাবে রাতের আঁধারে মাটি কেটে বিক্রি করার খবর পুলিশকে জানানোর অপরাধে আওয়ামী লীগ নেতা সৈয়দ শোয়েবের উপর হামলার অভিযোগ পাওয়া গেছে।

[৩] জানা গেছে, উপজেলার বড়লিয়া ইউনিয়নের মৌলভীর হাট এলাকার সৈয়দ বাড়ি এলাকায় স্থানীয় ইউপি সদস্য সৈয়দ জাবেদ সরোয়ারের নেতৃত্বে দীর্ঘদিন শতশত ট্রাক টপ সয়েল মাটি কেটে লক্ষ লক্ষ টাকার বাণিজ্য করে আসছে। অবৈধভাবে মাটি কেটে ট্রাক চলাচলের কারণে পুরো এলাকার রাস্তাঘাট নষ্ট হয়ে যাওয়ায় এলাকার লোকজন ক্ষিপ্ত হয়ে উঠেন। বিষয়টি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও পটিয়া থানার অফিসার ইনচার্জকে এলাকাবাসীর পক্ষ থেকে একাধিকবার জানানো হয়।

[৪] গত শনিবার (১৭ এপ্রিল) রাতে পটিয়া থানার এস আই আক্বাসের নেতৃত্বে পুলিশের একটি টিম অবৈধভাবে মাটি কাটার খবর পেয়ে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে ঘটনাস্থলে গেলে সৈয়দ জাবেদ সরোয়ারের মাটি কাটার বিষয়টি ধরা পড়েন। এতে ইউপি সদস্য সৈয়দ জাবেদ সরোয়ার উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক সৈয়দ মোরশেদ উল্লাহ ও তার ভাই সৈয়দ সোয়েককে সন্দহ করে রবিবার বাসায় গিয়ে হামলায় হালায়।

[৫] হামলার খবর পেয়ে আশ পাশের লোকজন এগিয়ে আসলে পালিয়ে যাওয়া সময় ইউপি সদস্য জাবেদ সরোয়ারও মাটি পড়ে সামান্য আহত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে।

[৬] এ ঘটনায় উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক সৈয়দ মোরশেদ উল্লাহ বাদী হয়ে ইউপি সদস্য সৈয়দ জাবেদ সরওয়ার(৩৪), সৈয়দ জাহেদ সরওয়ার(৪৪), সৈয়দ আজাদ সরওয়ার(৩৮), জয়নাল(৪৮), ইসনাফ(৪৫)সহ কয়েক জনের বিরুদ্ধে গত সোমবার পটিয়া থানায় অভিযোগ করেন।

[৭] স্থানীয় ইউপি সদস্য সৈয়দ জাবেদ সরওয়ারের সাথে মোবাইলে একাধিকবার যোগাযোগ করা হলেও মোবাইলে পাওয়া যায়নি।

[৮] এ প্রসঙ্গে পটিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ রেজাউল করিম মজুমদার বলেন, বড়লিয়া মৌলভীহাট এলাকায় অবৈধভাবে দীর্ঘদিন ধরে পুলিশের চোখ ফাঁকি দিয়ে মাটির ব্যবসা করে আসছে। পুলিশ ঘটনাস্থলে গেলে তারা পালিয়ে যায় পরে মাটি কাটার ঘটনায় হামলা হয়েছে বলে শুনেছি, ঘটনায় জড়িতদের বিরুদ্ধে তদন্ত পূর্বক ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে তিনি জানান।

সর্বাধিক পঠিত