প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] রাশিয়া ও চীনসহ বিকল্প জায়গা থেকে টিকা আনার চেষ্টা চলছে: স্বাস্থ্য অধিদপ্তর মহাপরিচালক

মিনহাজুল আবেদীন: [২] শুক্রবার বিবিসি বাংলায় স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক অধ্যাপক আবুল বাসার মোহাম্মদ খুরশীদ আলম আরও বলেন, টিকার ঘাটতি থাকছেই। আমরা বার বার বলছি, তাগাদা দিয়েছি। অধিদপ্তর ও মন্ত্রণালয়কে দুই বার চিঠি দেয়া হয়েছে। তারা প্রত্যেকবার বলছে, কোনো অসুবিধা হবে না।

[৩] মহাপরিচালক বলেন, রাশিয়া ও চীন আগ্রহ প্রকাশ করেছে, তারা টিকা দিতে চায়। ইতোমধ্যে দুই তিনটা বৈঠকও হয়েছে। কিন্তু মুশকিল হচ্ছে, কেউ না করছে না। টিকা দেবে না, একথা কেউ বলছে না। কিন্তু কবে পাওয়া যাবে, সেই নিশ্চয়তা পাওয়া যাচ্ছে না।

[৪] তিনি বলেন, যুক্তরাষ্ট্র থেকে ফাইজার এবং মডার্নার টিকা আনার ব্যাপারেও যোগাযোগ করা হয়েছে। তারা এই মুহূর্তে তাদের দেশের বাইরে টিকা সরবরাহ করছে না।

[৫] তিনি বলেন, বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা ভারতের সেরামের কাছ থেকে টিকা নিয়ে বাংলাদেশকে দিতে চেয়েছিল। কিন্তু সেরাম এই মুহূর্তে টিকা দিতে অপারগতা প্রকাশ করেছে।

[৬] স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের রোগ নিয়ন্ত্রণ বিভাগের সাবেক পরিচালক ডা. বেনজীর আহমেদ বলেন, টিকা কার্যক্রম ঝুঁকিতে পড়লে সংক্রমণের বিস্তার প্রতিরোধে নেতিবাচক প্রভাব পড়বে।

[৭] ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের স্বাস্থ্য অর্থনীতি ইনস্টিটিউটের পরিচালক অধ্যাপক নাসরিন সুলতানা বলেন, এখন সংক্রমণের দ্বিতীয় ঢেউ চলছে, টিকা কার্যক্রম ব্যাহত হলে ঝুঁকি আরও বাড়বে। যারা অক্সফোর্ড অ্যাস্ট্রাজেনেকার টিকার প্রথম ডোজ নিয়েছেন, তাদের দ্বিতীয় ডোজ দেয়া সম্ভব না হলে তার শরীরে টিকা কার্যকর হবে না। সম্পাদনা : রাশিদ

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত