প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

সাংবাদিকদের নিকট সত্য কথা বলায় হত্যার হুমকি, থানায় অভিযোগ

ফিরোজ আহম্মেদ: ঝিনাইদহ সদর উপজেলার ভিটশ্বর গ্রামে ৪ বিঘা জমির ধান শত্রুতাবশত গভীর রাতে বিষাক্ত এটোপচা প্রয়োগ করে দখলকৃত ১৫১ শতক জমির ধান নষ্ট করে দিয়েছে দূর্বত্তরা। গত ২১ থেকে ২৭ মার্চ ২০২১ তারিখের মধ্যে এই বিষাক্ত ঔষধ প্রয়োগ হতে পারে এমনটি ধারা করছে এলাকাবাসী। এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে বিভিন্ন রাজনৈতিক মহল,ঝিনাইদহ সদরের ইউএনও এসএম শাহিন,উপজেলা কৃষি কর্মকর্তাসহ বিভিন্ন গনমাধ্যম কর্মীদের আনাগোনায় মুখরিত ছিল। সঠিক তথ্য অনুসন্ধানে যেন সবাই মিলে কাজ করছে। আসল রহস্য উন্মোচন করা হোক এমনটি দাবিও ছিল সর্বমহলের।

গত ৯ এপ্রিল ২০২১ শুক্রবার রাতে ভিটশ্বর গ্রামের মৃত আরশেদ মন্ডলের ছেলে কউসার মন্ডল ঝিনাইদহ সদর থানায় অভিযোগে উল্লেখ করেন,আমি প্রত্যক্ষ স্বাক্ষী হিসাবে সাংবাদিকদের নিকট সত্য ঘটনা বলার কারনে ৯/৪/২১ তারিখ শুক্রবার রাত আনুমানিক ৯ ঘটিকার সময় আমি ভিটশ্বর মাঠে আমার ইরি ধানের জমিতে সেচ দিয়ে বাড়ি ফেরার পথে ভিটশ্বর গ্রামের মৃত পটি খা বিশ্বাসের ছেলে মতিহার বিশ্বাস ও মৃত আফসার দফাদারের ছেলে জাকির হোসেন আমার গলায় কাচি ঠেকাইয়া খুন করার জন্য উদ্যত হয়। তখন ধাক্কা মারিয়া সরাইয়া দিয়ে পাতা মিয়ার চায়ের দোকানে গিয়ে নিজের জীবন রক্ষা করি। আমি সত্য ঘটনা প্রকাশ করায় তারা আমাকে হত্যা করতে চেয়েছে।

ঝিনাইদহ সদর থানাতে অভিযোগ পত্রে এ বিষয়কে কেন্দ্র করে গত ২ মার্চ ২০২১ তারিখে ঝিনাইদহ সদর থানাতে ক্ষতিগ্রস্থ কৃষক ভিটশ্বর গ্রামের হৃষিকেষ মন্ডলের ছেলে নৃপেল মন্ডল অভিযোগে উল্লেখ করেছেন,শত্রুতাবশত গত ২৫ বা ২৭ মার্চ গভীর রাতে তাদের মাঠে আবাদকৃত ১৫১ শতক জমির ধান ক্ষেতে বিষাক্ত পদার্থ ছিটিয়ে দেয়। তিনি অভিযোগে প্রতিবেশি বিল্লাল হোসেনের বরাত দিয়ে জানান, ঘটনার দিন ২৫ মার্চ ভোরে বিল্লাল নামাজ পড়তে মসজিদে যাবার সময়ে দেখেছিল অভিযুক্ত মতি ভেজা কাপড়ে স্প্রে মেশিন কাঁধে নিয়ে মাঠ থেকে বাড়িতে যাচ্ছে। এই মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা সদর থানার এস আই আরাফাৎ হোসেন ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে ক্ষেত বিনষ্টের সত্যতা পেয়েছেন।

ভিটশ্বর গ্রামে উত্তেজনা বিরাজ করছে। স্থানীয় অধিবাসীরা মনে করেন, সঠিক ঘটনা তদন্ত বাধা গ্রস্থ করতে একটি মহল তৎপর। ঘটনায় জড়িত ব্যক্তিদের সঠিক তদন্তের মাধ্যমে খুজে বের করে আইনের আওতায় আনা হোক।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত