প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] পুঠিয়ায় দেড় হাজার নিবন্ধিত ব্যক্তি করোনা টিকা নেয়নি

আবু হাসাদ: [২] রাজশাহীর পুঠিয়া উপজেলায় নিবন্ধিত প্রায় দেড় হাজার ব্যক্তি করোনা ভাইরাস প্রতিষেধক টিকা নেয়নি। সংশ্লিষ্টরা মনে করছেন সচেতনতার অভাব ও গুজব ছড়ানোর কারণে এমনটি হয়েছে বলে মনে করছেন।

[৩] উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স সূত্রে জানা গেছে, করোনা ভাইরাসের টিকা গ্রহণ করতে গত ৭ ফেব্রুয়ারি থেকে ৫ এপ্রিল পর্যন্ত মোট ৬ হাজার ৮৫০ জন নিবন্ধন করেন। এর মধ্যে টিকা নিয়েছেন ৫ হাজার ৪৪১ জন। বাকি ১ হাজার ৪০৯ জন নিধারিত সময়ের মধ্যে টিকা নিতে আসেননি।

[৪] এদিকে সুরক্ষা অ্যাপে নিবন্ধন করে টিকা নেননি এমন একজন বলেন, করোনার সংক্রমণ কমে যাওয়ায় নিধারিত সময়ে টিকা নেয়া হয়নি। নিবন্ধন করা অপর এক নারী বলেন, যারা টিকা নিয়েছেন তারা পুনরায় করোনায় আক্রান্ত হচ্ছেন বলে শুনেছি। তাই টিকা নেয়া এবং না নেয়া একই কথা। তাই টিকা নেননি।

[৫] উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান জি এম হিরা বাচ্চু বলেন, করোনার টিকা নিয়ে অপপ্রচার হচ্ছে। আবার টিকা নিয়েও দু’একজন করোনা আক্রান্ত হয়েছে এমন খবর সংবাদ মাধ্যমে এসেছে। তিনি বলেন, সরকারকে বিব্রত করতে একটি মহল টিকার কার্যকারিতা নিয়ে গুজব ছড়াচ্ছে। এসব সমাধানে প্রচারণা ও প্রয়োজনীয় উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে।

[৬] এ বিষয়ে উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা নাজমা নাহার বলেন, প্রথম ডোজের টিকা নেয়ার সুযোগ এখনও আছে। যারা টিকা নেননি তারা হয়তো পরবর্তীতে নেবেন। তাছাড়া অন্তঃসত্ত্বা ও শিশুকে দুধ খাওয়ান এমন অনেক নারী ভুলে নিবন্ধন করেছিলেন। তাদের টিকা দেয়া হয়নি। এটিও একটি কারণ হতে পারে।

[৭] এ বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা নূরুল হাই মোহাম্মদ আনাছ বলেন, করোনা প্রতিরোধে ভ্যাকসিনের বিকল্প নেই। আমি নিজেই উদ্বোধনী দিনে প্রথম ডোজ নিয়েছি। আজ দ্বিতীয় ডোজও নিলাম। করোনা টিকা নিয়ে বিভিন্ন গুজব ও অপপ্রচারের কারণে অনেকে হয়তো নিবন্ধন করেও টিকা নেননি। অপপ্রচারে কান না দিয়ে যারা নিবন্ধিতরা টিকা গ্রহন করতে অনুরোধ জানান তিনি।

[৮] এদিকে আজ ৮ এপ্রিল সকাল থেকে করোনা ভ্যাকসিনের দ্বিতীয় ডোজ প্রদান শুরু হয়েছে। টিকার দ্বিতীয় ডোজ গ্রহন করেছেন ২২ জন। এর মধ্যে পুরুষ ১৮, মহিলা ৪ জন এবং নতুন টিকা নিয়েছেন ১৫ জন এর মধ্যে পুরুষ ১১ ও মহিলা ৪ জন। সম্পাদনা: সাদেক আলী

সর্বাধিক পঠিত