প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] অটিজম সচেতনতা দিবসে ‘প্রাচীর পেরিয়ে’ গ্রন্থ প্রকাশের ঘোষণা দিলেন সায়মা ওয়াজেদ

আখিরুজ্জামান সোহান: [২] অটিজম বিশেষজ্ঞ ও সূচনা ফাউন্ডেশনের চেয়ারপারসন সায়মা ওয়াজেদ হোসেন আজ অধ্যাপক স্টিফেন মার্ক শোরের বই ‘বিয়ন্ড দ্য ওয়াল’-এর বাংলা অনুবাদ ‘প্রাচীর পেরিয়ে’ প্রকাশের ঘোষণা দিয়েছেন। সায়মা সূচনা ফাউন্ডেশনের ফেসবুক পেজে ২২ এপ্রিল বিশ্ব অটিজম সচেতনতা দিবস উপলক্ষে একটি ভিডিওতে এই ঘোষণা দেন। বাসস

[৩] ভিডিওতে তিনি বলেন, ‘আজ আমরা সূচনা ফাউন্ডেশনের পক্ষ থেকে বিশ্ব অটিজম সচেতনতা দিবস উপলক্ষে একটি নতুন বই প্রকাশ করেছি। এটি ড. স্টিফেন শোরের আত্মজীবনীর অনুবাদ।’
সায়মা যোগ করেন, ‘আমি আশা করি, একজন অটিস্টিক ব্যক্তি হিসাবে অধ্যাপক শোর এই অবস্থানে পৌঁছেছেন তা জানতে আপনারা এই বইটি পড়বেন।’

[৪] সূচনা ফাউন্ডেশন তাঁর আত্মজীবনীটি বাংলায় অনুবাদ করেছে জানতে পেরে অধ্যাপক শোর এক ভিডিও বার্তায় বলেন, ‘এটি আমার জন্য আনন্দ ও সম্মান। আমি অনুবাদকবৃন্দ, সায়মা হোসেন এবং বাংলাদেশে অন্যদের জন্য আমি অত্যন্ত আনন্দিত।’

[৫] সায়মা ওয়াজেদ হোসেন অটিজম ও নিউরো ডেভেলপমেন্টাল ডিসঅর্ডার সম্পর্কিত বাংলাদেশ জাতীয় উপদেষ্টা কমিটির চেয়ারপারসন এবং বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিওএইচও)’র মহাপরিচালকের উপদেষ্টা।

[৬] তিনি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নাতনী এবং প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কন্যা। অ্যামাজন.কম-এ দেয়া বইটির সংক্ষিপ্ত বিবরণে বলা হয়, ‘বিয়ন্ড দ্য ওয়াল’ একটি আত্মজীবনীমূলক বিবরণ, যা অ্যাস্পার্জার সিন্ড্রমে আক্রান্ত একজন ব্যক্তির জীবন সম্পর্কে একটি বিরল, বিশদ ও আন্তরিক বর্ণনা তুলে ধরে।

[৭] শোর একটি তথ্যবহুল, ব্যবহারকারী-বান্ধব পাঠ সৃজন করে তার ব্যক্তিগত ও পেশাদার অভিজ্ঞতার সহজ ও খোলামেলা বিবরণ দিয়েছেন, যা অ্যাস্পার্জার সিন্ড্রমে আক্রান্তদের দুঃখ-কষ্টের ওপর নতুন করে আলোকপাত করে।

[৮] ড. স্টিফেন শোর অ্যাডেলফি বিশ্ববিদ্যালয়ের একজন অধ্যাপক। তাঁর গবেষণার মূল বিষয় অটিজমআক্রান্ত মানুষের প্রয়োজনের সাথে সর্বোত্তম অনুশীলনের মেলবন্ধন স্থাপন।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত