প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

অনলাইনে এসকর্ট সার্ভিস, চক্রের মূলহোতাসহ আটক ৪

সুজন কৈরী: রাজধানীর গুলশান, উত্তরা এবং রামপুরা এলাকা থেকে অনলাইনে কুরুচিপূর্ণ ভিডিওর মাধ্যমে জনসাধারণের সঙ্গে প্রতারণা এবং ব্ল্যাকমেইল করার দায়ে মূল হোতাসহ ৪ জনকে আটক করেছে র‌্যাব-৩। বুধবার অভিযান চালিয়ে পর্ণোগ্রাফি চক্রের সদস্যদের ওই চারজনকে আটক করা হয়।

আটকরা হলেন- কাজী কাদের নেওয়াজ ওরফে পাশা ভাই ওরফে আরিয়ান (২৬), সিয়াম সাবের রাহাত ওরফে শান আহমেদ (২২), শান্ত আহমেদ ওরফে সিফাত আহমেদ (২২) ও মাসুম বিল্লাহ ওরফে শ্যামল (২৮)। তাদের কাছ থেকে ৪টি মোবাইল ফোনসেট, ৪টি সিমকার্ড এবং ৯৮পাতা বিভিন্ন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের স্কীনশর্ট উদ্ধার করা হয়েছে।

র‌্যাব-৩ এর এএসপি ফারজানা হক বলেন, সম্প্রতি ব্যাটালিয়নের একটি দল গোয়েন্দা সংবাদের ভিত্তিতে জানতে পারে, কতিপয় প্রতারক এবং কুরুচিপুর্ণ ব্যক্তি অনলাইনে এসকর্ট সার্ভিস নামের অপকর্ম চালাচ্ছে। মোবাইল ও মেমোরী কার্ডে বিভিন্ন অশ্লীল ছবি ও ভিডিও সংরক্ষিত রেখে বিভিন্ন সামজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বেনামী আইডি খুলে বিভিন্ন ব্যক্তির সঙ্গে অশ্লীল কথাবার্তা বিনিময়, কুরুচিপূর্ণ ছবি ও ভিডিও আদান-প্রদানের মাধ্যমে যুব সমাজকে আকৃষ্ট করে তাদের নৈতিকতার অবক্ষয় ঘটাচ্ছে। ওই সংবাদের ভিত্তিতে অভিযান চালিয়ে পর্ণোগ্রাফি চক্রের ৪ সদস্যকে আটক করা হয়।

আটকদের প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদ ও তাদের ব্যবহৃত ভুয়া সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমগুলো পর্যালোচনা করে র‌্যাব জানতে পেরেছে, আটকরা দীর্ঘদিন ধরে ওয়েবসাইট বা সিক্রেট ফেসবুক পেইজ খুলে রাজধানীতে অনলাইন এসকর্ট সার্ভিস (অনলাইন যৌন ব্যবসা) নামের অপকর্ম চালাতেন। অনৈতিক এই ব্যবসায়ীদের কবলে পড়ে যুব সমাজের অধঃপতনসহ সামাজিক ভারসাম্য নষ্ট হচ্ছে। ডিজিটাল দেহ ব্যবসার অন্যতম নাম এসকর্ট সার্ভিস সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ায় খুব সহজেই মানুষ অবৈধ যৌনাচারে লিপ্ত হচ্ছেন। পাশাপাশি প্রতারিত হচ্ছেন অনেকেই। এসব অবৈধ ব্যবসায়ীর হাত ধরেই অনলাইন দেহ ব্যবসা ব্যাপক বিস্তার লাভ করছে। এই চক্র অনলাইনে কাস্টমারদের কাছ থেকে অর্ডার নিতেন, মেয়েদের সাথে পরিচয় করিয়ে দিতেন এবং জায়গার ব্যবস্থা করে দিতেন। মেয়েদের বেশিরভাগই কলেজ বা ইউনিভার্সিটি পড়ুয়া তরুণী।

 

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত