প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] মৈত্রী সেতুর মাধ্যমে গতিশীল হবে দুই দেশের বাণিজ্য-অর্থনীতি, বাংলাদেশ-ভারত সম্পর্ক আরো দৃঢ় হবে: নরেন্দ্র মোদি

মিনহাজুল আবেদীন: [২] মঙ্গলবার (৯ মার্চ) দুপুর ১টার দিকে ফেনী নদীর নির্মিত ভারতের ত্রিপুরা রাজ্যের সাবরুম ও বাংলাদেশের খাগড়াছড়ি জেলার রামগড়কে যুক্ত করা বাংলাদেশ-ভারত মৈত্রী সেতু-১ উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে ভার্চুয়ালে যোগ দিয়েে একথা বলেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি।

[৩] সেতু প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ৩০ বছর ধরেও কেউ এ কাজটি করতে পারেন নি, যা আমি সম্পন্ন করলাম। ত্রিপুরা বিকাশের জন্য কেন্দ্রীয় সরকার সর্বদা কাজ করে যাচ্ছে। ৪০ হাজার গ্রামের উন্নতি হচ্ছে, এ ফলে গরীব ও অসহায়দের মধ্যে সুখ ফিরে আসবে।

[৪] ৩ বছর পর ত্রিপুরার মানুষ সুখ খুঁজে পাচ্ছে, রাজ্যের মধ্যে শক্তি বিকাশ লাভ করছে, যা অপশক্তি প্রতিরোধ করবে।

[৫] তিনি বলেন, সেতু-১ উদ্বোধনের মধ্যেদিয়ে বাংলাদেশ সরকারের সঙ্গে নতুন করে সম্পর্ক তৈরি হয়েছে। এতে শান্তি প্রতিষ্ঠা হবে, আয় বাড়বে।এটি শুধু  এটার মধ্যে সীমাবদ্ধ থাকবে না, এর মাধ্যমে পানি, আইসটি, ট্রানজিট ও সীমান্তের সমস্ত সমস্যার সমাধান হবে। আগরতলায় বড় কারখানা প্রতিষ্ঠা করা হবে, এর মাধ্যমে বাংলাদেশের সঙ্গে সস্পর্ক আরো বৃদ্ধি হবে।

[৬] ফেনী নদী বাংলাদেশ ও ভারতের মধ্যে দিয়ে প্রবাহিত।এই সেতুর মাধ্যমে সরাসরি চট্টগ্রাম সমুদ্র বন্দরের সঙ্গে যুক্ত হবে ত্রিপুরা। ভারতের ন্যাশনাল হাইওয়েস অ্যান্ড ইনফ্রাস্টাকচার ডেভেলপমেন্ট কর্পোরেশন লিমিটেড (এনএইচআইডিসিএল) এবং ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান তানিশ চন্দ্র আগারভাগ ইনপাকন প্রাইভেট লিমিটেডের তত্ত্বাবধানে ৮২.৫৭ কোটি টাকা ব্যয়ে রামগড়ের মহামুনিতে ২৮৬ একর জমির ওপর ‘মৈত্রী সেতু’ নির্মিত হয়েছে।

 

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত