প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] ইয়নের সঙ্গে একান্ত সাক্ষাৎকারে অং সান সুচির আইনজীবী, সন্দেহ নিয়েই ন্যায়বিচার প্রত্যাশা করছি

সালেহ্ বিপ্লব: [২] মিয়ানমারের ক্ষমতা দখলের সঙ্গে সঙ্গেই সেনাশাসক বন্দী করে প্রেসিডেন্ট উইন মিন্ট, অং সান সুচি ও অন্যান্য নেতাকে।

[৩] অং সান সুচির বিরুদ্ধে অবৈধভাবে ছয়টি ওয়াকিটকি রেডিও আমদানি ও ব্যবহারের অভিযোগে মামলা করেছে সামরিক জান্তা। জেনারেল মিং অং হ্লাইং-এর নেতৃত্বে ১১ সদস্যের এই সামরিক সরকার এক বছর ক্ষমতায় থাকবে বলে জানিয়েছে। সুচির বিরুদ্ধে আরেকটি মামলা হয়েছে, জাতীয় দুর্যোগ মোকাবেলা আইন লঙ্ঘনের অভিযোগে। সুচি ও উইন মিন্ট নির্বাচনের সময় করোনা বিধি ভেঙে মটর শোভাযাত্রায় অংশ নিয়েছিলেন, সেই কারণেই এই মামলা।

[৪] সুচিকে কোথায় রাখা হয়েছে, জানায়নি সামরিক সরকার। তবে এ সপ্তাহে ভিডিও কনফারেন্সে আদালতে হাজিরা দেয়ার সময় তাকে সুস্থ স্বাভাবিক দেখা গেছে।

[৫] আইনজীবী খিন মং জ বলেন, আমরা তাকে দেখতে পাইনি। তার সঙ্গে কথা বলারও সুযোগ পাইনি। তবে তিনি যখন বিচারকের উদ্দেশ্যে কথা বলছিলেন, তখন কণ্ঠস্বর শুনে মনে হয়েছে, তিনি ভালো আছেন। তাকে হতাশ মনে হয়নি।

[৬] খিন মং জ এখনও অং সান সুচির আইনজীবী হিসেবে আদালতের স্বীকৃতি পাননি। এ কারণে সুচির বিরুদ্ধে আনা অভিযোগের কাগজপত্র দেখতে পারেননি, এ কথা জানিয়ে আইনজীবী বলেন, আমরা চেষ্টা করে যাচ্ছি।

[৭]  খিন মং জ বলেন, এক মাসেরও বেশি সময় আইনজীবী না পাওয়া স্বাভাবিক ঘটনা নয়। আইনজীবী হিসেবে দেশের আইনের প্রতি আমার বিশ্বাস আছে। কিন্তু এই মামলার ক্ষেত্রে আমার সন্দেহ আছে। শুধু এটুকুই প্রত্যাশা করতে পারি, অং সান সুচি হয়তো ন্যায়বিচার পাবেন।

[৮] ১ ফেব্রুয়ারি ঘটে যাওয়া সামরিক অভ্যুত্থানের পক্ষে জান্তা সরকার যুক্তি খাড়া করেছে যে, নভেম্বরের নির্বাচনে ব্যাপক কারচুপি হয়েছে। সুচির দল ন্যাশনাল লীগ ফর ডেমোক্রেসি (এনএলডি) ওই নির্বাচনে নিরংকুশ জয় পেয়ে দ্বিতীয়বারের মতো ক্ষমতায় আসে। নির্বাচন কমিশন বলেছে, ভোট সুষ্ঠু হয়েছে।

[৯] সুচির আইনজীবী বলেন, নির্বাচনে কারচুপির অভিযোগটা সাজানোই হয়েছে সামরিক শাসন জারির উদ্দেশ্যে।

[১০] এ অবস্থায় আন্তর্জাতিক কোনও আদালত সুচির মামলায় হস্তক্ষেপ করবে কি না, এমন প্রশ্নের জবাবে খিন মং জ বলেন, কোনও সম্ভাবনা দেখছি না। সামরিক সরকার এ মামলার ব্যাপারে খুবই কঠোর অবস্থান নিয়েছে। তারা নিজেদের দেশপ্রেমিক ও জাতীয়তাবাদী হিসেবে প্রমাণ করতে চাইছে, যদিও তারা তা নয়।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত