প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

৪ ইটভাটা গুঁড়িয়ে দিল প্রশাসন

লোহাগাড়া প্রতিনিধি : পরিবেশ অধিদপ্তরের ছাড়পত্র ছাড়া ইটভাটা প্রস্তুত ও নিয়ন্ত্রণ আইন অমান্য করে ভাটা পরিচালনা করার অপরাধে চট্টগ্রামের লোহাগাড়ায় সাঁড়াশি অভিযান চালিয়ে গুঁড়িয়ে দেয়া হলো ৪টি অবৈধ ইটভাটা। মঙ্গলবার (১৬ ফেব্রুয়ারি) দিনব্যাপী পরিবেশ অধিদপ্তর ও চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসনের যৌথ অভিযানে এসব ইটভাটা গুঁড়িয়ে দেয়া হয়। এ সময় ধ্বংস করা হয়েছে ভাটায় তৈরিকৃত কাঁচা ইট।

গুঁড়িয়ে দেয়া ইটভাটাগুলো হল, বড়হাতিয়া ইউনিয়নের কুমিরাঘোনা এলাকায় মঞ্জুর আলম কোম্পানির মালিকানাধীন আখতরাবাদ কালু ব্রিকস (একেবি), মালপুকুরিয়া এলাকায় নুরুল আলমের মালিকানাধীন মেসার্স মদিনা অটো ব্রিকস এন্ড ম্যানুফ্যাকচারিং (এমবিএম), চুনতি ইউনিয়নে ইয়াছিন মাঝির মালিকানাধীন চুনতি ব্রিকস ম্যানুফ্যাকচারিং (সিবিএম) ও লোহাগাড়া সদর ইউনিয়নের দরবেশহাট এলাকায় গিয়াস উদ্দিন চৌধুরীর মালিকানাধীন শাহপীর ব্রিকস ওয়ার্কস (এসবিডব্লিউ)। এসব ইটভাটার পরবর্তী কার্যক্রম বন্ধ রাখারও নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

অভিযানে নেতৃত্ব দেন চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট নুরজাহান আক্তার সাথী। তিনি জানান, উচ্চ আদালতের নির্দেশনা অনুযায়ী চট্টগ্রামে অবৈধ ইটভাটা উচ্ছেদে অভিযান চলছে। এরই অংশ হিসেবে লোহাগাড়ায় অভিযান চালিয়ে ৪টি ইটভাটা গুঁড়িয়ে দেয়া হয়েছে। দীর্ঘদিন যাবৎ এই ইটভাটাগুলো জেলা প্রশাসনের কার্যালয় প্রদত্ত লাইসেন্স ও পরিবেশ অধিদপ্তরের ছাড়পত্র ছাড়া ইট প্রস্তুত আইন অমান্য করে ভাটা স্থাপন ও ইট প্রস্তুত করে আসছিল। ধারাবাহিকভাবে অবৈধভাবে গড়ে ওঠা ইটভাটায় অভিযান অব্যাহত থাকবে।

অভিযান পরিচালনাকালে সার্বিক সহযোগিতায় ছিলেন, বাংলাদেশ পরিবেশ অধিদপ্তর চট্টগ্রাম জেলা কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক আফজারুল ইসলাম, শেখ মোজাহিদ, পরিদর্শক নূর হাসান সজিব, ফায়ার ষ্টেশনের কর্মকর্তা রাখাল চন্দ্র রুদ্র, র‌্যাব- ৭ এর কর্মকর্তা মো. রায়হানসহ পরিবেশ অধিদপ্তরের কর্মকর্তা-কর্মচারী, ফায়ার সার্ভিসের সদস্য, র‌্যাব, পুলিশসহ বিপুল সংখ্যক আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্য।

 

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত