প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] ডিবি পুলিশ পরিচয়ে ২৮ লাখ টাকা লুট, গ্রেপ্তার ৩

শাহজালাল ভূঞা: [২] ফেনীর দাগনভূঞায় ইসলামি ব্যাংক থেকে উত্তোলন করে এজেন্ট শাখায় নেওয়ার পথে ২৮ লাখ টাকা ডিবি পুলিশ (ভূয়া) পরিচয় দিয়ে লুট করে নেওয়ার ঘটনায় দায়েরকৃত মামলার দুই মাস পর আন্তঃজেলার ডাকাত দলের শীর্ষ তিন সদস্যকে গ্রেপ্তার করেছে জেলা গোয়েন্দা (ডিবি) পুলিশ। লুণ্ঠিত ২৭ লাখ ৬১ হাজার টাকার মধ্যে ৫০ হাজার টাকা উদ্ধার করেছে।

[৩] জব্দ করা হয়েছে ডাকাতির কাজে ব্যবহৃত একটি প্রাইভেটকার। বুধবার দুপুরে জেলা পুলিশ সুপার কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলন করে এমন তথ্য জানান পুলিশ সুপার খোন্দাকার নূরুন্নবী। এর আগে মঙ্গলবার রাজধানীর বিভিন্ন স্থান থেকে ডাকাতদের গ্রেপ্তার করা হয়।

[৪] গ্রেপ্তারকৃতরা হলেন- বরগুনা জেলার তালতলী থানার পঞ্চকরালিয়া (পঁচা কোরালিয়া) হাওলাদার বাড়ীর ময়েজ উদ্দিন হাওলাদারের ছেলে মো. জাকির হোসেন (৩৮), বগুড়া জেলার সদর থানার ফাপর বগুড়া পৌরসভা জেলাদার পাড়া পুরান বগুড়ার মো. ইব্রাহিম আকন্দের ছেলে মো. সবুজ মিয়া (৫০) ও পাবনা জেলার চাটমোহর থানার চৌরইকুল সরকার বাড়ীর মো. আবু জাফরের ছেলে মো. ইমরান নাজির (৩৮)। গ্রেপ্তারকৃতরা সকলেই বর্তমানে ঢাকার বিভিন্ন এলাকায় বসবাস করতো।

[৫] পুলিশ জানায়, ইসলামী ব্যাংক এজেন্ট ব্যাংকের সত্ত্বাধিকারী মো. আবু জাফর শাহীন গত ২১ অক্টোবর ইসলামী ব্যাংক দাগনভূঞা শাখা থেকে নগদ ২৭ লাখ ৬১ হাজার পাঁচশত টাকা উত্তোলন করে সোনাগাজীর কুঠিরহাট এজেন্ট ব্যাংকিং শাখায় নিয়ে যাচ্ছিলেন। তিনি দাগনভূঞা উপজেলার বেকের বাজার উত্তর আলীপুর সৌদিয়া মসজিদের সামনে পৌঁছলে আন্তঃজেলা ডাকাত দলের সদস্যরা ডিবি পুলিশ (ভুয়া) পরিচয় দিয়ে জোর পূর্বক আবু জাফর শাহীনকে প্রাইভেট কারে তুলে কুমিল্লা জেলার সদর দক্ষিণ থানাধীন দয়াপুর নামক স্থানে নিয়ে যায়।

[৬] এসময় তার কাছ থেকে ২৭ লাখ ৬১ হাজার পাঁচশত টাকা লুট করে নিয়ে তাকে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের পাশে ফেলে ডাকাতরা পালিয়ে যায়। ওই ঘটনায় ভূক্তভোগী মো. আবু জাফর শাহীন বাদি হয়ে দাগনভূঞা থানার মামলা (মামলা নং-১১, ২১/১০/২০২০) দায়ের করে।

[৭] জেলা গোয়েন্দা পুলিশের পরিদর্শক (ডিবি) এ এন এম নুরুজ্জামান নেতৃত্বে পুলিশ পরিদর্শক খালেদ হোসেন এর একটি বিশেষ টিম ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে অভিযান পরিচালনা করে। গত দুই মাস অভিযান চালিয়ে ডাকাতির ঘটনায় ব্যবহৃত প্রাইভেটকার (ঢাকা মেট্টো-গ-২৮-৬৪২২) জব্দ করে। ডাকাতির সাথে জড়িত তিনজনকে ঢাকার বিভিন্ন স্থান থেকে গ্রেপ্তার করা হয়। পুলিশ এসময় লুন্ঠিত ৫০ হাজার টাকা উদ্ধার করে।

[৮] জেলা গোয়েন্দা পুলিশের পরিদর্শক (ডিবি) এ এন এম নুরুজ্জামান জানান, ডাকাত দল ঢাকাসহ আশে পাশে জেলায় বিভিন্ন ব্যাংকের সামনে অবস্থান করে প্রতিনিয়ত ডাকাতি সংগঠিত করে থাকে। তাদের বিরুদ্ধে দেশের বিভিন্ন থানায় একাধিক মামলা রয়েছে। গ্রেপ্তারকৃতদের বুধবার আদালতের মাধ্যমে কারাগারে প্রেরণ করা হবে। সম্পাদনা: সাদেক আলী

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত