প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] গোপনে তেল আবিব সফর করলেন ইমরান খানের উপদেষ্টা, অস্বীকার পাকিস্তান সরকারের (ভিডিও)

রাশিদুল ইসলাম : [২] ইসরায়েলি মন্ত্রিসভার সঙ্গে বরাত দিয়ে জেরুজালেম পোস্ট, ইসরায়েল হাইয়োম’সহ আরো কিছু পত্রিকা দাবি করেছে, গত ২০ নভেম্বর পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের এক সিনিয়র উপদেষ্টা তেল আবিব সফর করেছেন। পাকিস্তান ও ইসরায়েলের মধ্যে এ আলোচনার আয়োজন করেন লন্ডনে ইসলামিক থিওলজি অব কাউন্টার টেরিরিজমের প্রতিষ্ঠাতা নুর দাহরি। তিনি ইসরায়েলি আই২৪ চ্যানেলকে সাক্ষাতকারে দুটি দেশের মধ্যে আলোচনা ফলপ্রসূ হয়েছে বলে জানান।

[৩] একাধিক ইসরায়েলি মিডিয়া দাবি করছে ইসরায়েলি প্রতিনিধির সঙ্গে আলোচনা ফলপ্রসূ হয়েছে। পাকিস্তানের উপদেষ্টা গতমাসে ব্রিটিশ এয়ারওয়েজের একটি বিমানে ইসলামাবাদ থেকে লন্ডন যান এবং সেখান থেকে একই এয়ারলাইন্সের বিএ১৬৫ নম্বর ফ্লাইটে তেল আবিবে পৌঁছান।

[৪] ইসলামাবাদ তেল আবিবের সঙ্গে সম্পর্ক স্বাভাবিক করার ‘প্রচণ্ড চাপ’ উপেক্ষা করছে বলে এর আগে পাকিস্তানের প্রধামন্ত্রী ইমরান খান অভিযোগ তোলেন। জেরুজালেম পোস্টের প্রতিবেদনে বলা হচ্ছে সৌদি আরব, আমিরাতের পক্ষ থেকে এ চাপ প্রয়োগ করা হচ্ছে।

[৫] ইমরান খান তেল আবিবের সঙ্গে রাজনৈতিক ও কূটনৈতিক সম্পর্ক স্থাপনের ‘কৌশলগত সিদ্ধান্ত’ নিয়েছেন। এমন খবর জেরুজালের পোস্টের ওয়েবসাইটে প্রকাশ করা হলেও পরে তা সরিয়ে ফেলা হয় এবং দৈনিকটির প্রিন্ট ভার্সনে খবরটি ছাপা হয়নি।

[৬] নূর দাহরি বুধবার দাবি করেন, ইমরান খানের ওই উপদেষ্টা তার ব্রিটিশ পার্সপোর্ট ব্যবহার করে তেল আবিব সফর করেন। আরব দেশগুলোর সঙ্গে পাকিস্তানের বর্তমান শীতল সম্পর্ক থেকে ইসলামাবাদকে বের করে আনার পাশাপাশি আরো বেশি কিছু ‘অর্জনের’ বিনিময়ে ইমরান খান ইসরাইলের সঙ্গে সম্পর্ক স্বাভাবিক করতে রাজি হয়েছেন বলে তিনি জানান।

[৭] ইসরাইলের নিউজ চ্যানেল ‘আই২৪’কে দেয়া সাক্ষাৎকারে দাহরি দাবি করেন, মার্কিন সরকার পাকিস্তানের ওই উপদেষ্টার তেল আবিব সফর অনুমোদন করার পর তেল আবিব বিমানবন্দরে ইসরাইলি কর্মকর্তারা তাকে স্বাগত জানান। পাকিস্তানি বংশোদ্ভূত দাহরি বলেন, পাক প্রধানমন্ত্রীর উপদেষ্টা তেল আবিবে ইসরায়েলি গোয়েন্দা সংস্থা মোসাদের প্রধান ইয়োসি কোহেনের সঙ্গে সাক্ষাৎ করে তার কাছে পাকিস্তানি সেনাপ্রধানের এক গোপন বার্তা পৌঁছে দেন।

[৮] আন্তর্জাতিক মিডিয়াগুলো বলছে, সৌদি যুবরাজ বিন সালমান গত কয়েক মাস ধরে ইমরান খানের সঙ্গে সাক্ষাতের আবেদন প্রত্যাখ্যান করে এসেছেন। এছাড়া, সৌদি আরব পাকিস্তানকে তেল সরবরাহ করা প্রায় বন্ধ করে দিয়েছে; এমনকি রিয়াদ ইসলামাবাদকে ঋণ অনুদান হিসেবে যে ৩০০ কোটি ডলার দিয়েছিল তাও ফেরত চেয়েছে।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত