প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

অধ্যাপক ড. একে আজাদ চৌধুরী: উচ্চশিক্ষায় সংখ্যাগত অর্জন যতোটা প্রশংসনীয়, মানের ক্ষেত্রে ততোটা নয়

অধ্যাপক ড. একে আজাদ চৌধুরী: সংখ্যার বিচারে যদি বলা হয় তাহলে স্বাধীনতার ৫০ বছরে শিক্ষাক্ষেত্রে যথেষ্ট উন্নতি সাধিত হয়েছে যেটা ব্যাপক প্রসংশার দাবিদার। স্বাধীনতার প্রাক্কালে উচ্চশিক্ষায় সারাদেশে ছাত্র সংখ্যা ছিলো ১০-২০ হাজারের মধ্যে। এখন সেই সংখ্যা প্রায় ৩৫ লাখ। স্বাধীনতার সময়ে দেশে বিশ্ববিদ্যালয় ছিলো মাত্র ছয়টি। এখন দেশে পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের সংখ্যাই চল্লিশের উপরে। প্রাইভেট বিশ্ববিদ্যালয় প্রায় দেড়শ। আগে সেকেন্ডারি পাস করার পর বিএসসি, বিকম পড়া যেতো কিছু সিলেক্টেড সরকারি কলেজে। এখন জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনে পুরো দেশজুড়ে বিভিন্ন কলেজে অনার্স, বিএসসি ও বিকম করা যায়।

উচ্চ শিক্ষায় গুণের ক্ষেত্রে ঘাটতি রয়েছে। স্বাধীনতার প্রাক্কালে বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয় যেসব ছাত্র স্নাতক পাস করে বের হতো তাদের গুণগত মান বেশ প্রশংসনীয় ছিলো। স্বাধীনতার পরে এই মানটা ধরে রাখা অনেকটা কষ্টসাধ্য হয়ে যাচ্ছে। তবে কিছু বিশ্ববিদ্যালয় ভালো করছে। শিক্ষাক্ষেত্রের অর্জনটাকে কার্যকরী এবং ফলপ্রসূ করার জন্য শিক্ষার গুণগত মান ও গবেষণার দিকে আরো জোর দিতে হবে।

আমাদের টেকনোলজি বেস্ড এডুকেশনকে আরও জোরদার করতে হবে। যাতে সবাই চাকরি না খুঁজে উদ্যোক্তা হতে পারে। উচ্চশিক্ষায় প্রশংসনীয় উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে তবে গুণগতমানের ক্ষেত্রে আরো প্রত্যাশা রয়েছে। পরিচিতি : সাবেক উপাচার্য, ঢাকা বিশ^বিদ্যালয়। অনুলিখন : আমিরুল ইসলাম

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত