প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] বিজয়ের মাসে পতাকা তৈরির ধুম, সড়ক ও মহল্লায় নেমেছে মৌসুমী পতাকা বিক্রেতারা

তরিকুল ইসলাম: [২] ১৬ডিসেম্বর, ২১শে ফেব্রুয়ারি ও ২৬শে মার্চ জাতীয় দিবসকে কেন্দ্র করে পতাকা বিক্রি হয় বছরের অন্যান্য সময়ের চেয়ে বেশি।

[৩]স্কুল-কলেজসহ বিভিন্ন সরকারি প্রতিষ্ঠানের জন্য ১০ ফুট বাই ৬ ফুট ও দোকানের জন্য ৫ ফুট বাই ৩ ফুট মাপের বাইরেও বিভিন্ন আকারের পতাকা তৈরি হচ্ছে।

[৪] বিশেষ করে বিজয়ের মাসে অনেকেই বাড়ির ছাদে, শিল্প-প্রতিষ্ঠানের সামনে এমনকি গাড়িতেও জাতীয় পতাকা ওড়ান।

[৫] কেরানীগঞ্জ, গুলিস্তান, চকবাজার, সদরঘাট ও কামরাঙ্গির চর এলাকার তৈরি হচ্ছে পতাকা।

[৬] মৌসুমি পতাকা বিক্রেতারা কয়েক ফুট লম্বা বাঁশে পতাকা সাজান। হাতে ও মাথায় লাল-সবুজ ব্যাচ ১০ থেকে ২০টাকার মধ্যে পাওয়া যায়। [৭] ছোট পতাকা ১৫ টাকা, মাঝারি ও বড় পতাকা ১২০ টাকা থেকে ৫০০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। সম্পাদনা: রায়হান রাজীব

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত